ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

‘অভিবাসী শ্রমিকদের আইনি সহায়তা দিন’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

অভিবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের মাধ্যমেই দেশের অর্থনীতি আজকের অবস্থানে। কিন্তু তারা দেশে এবং বিদেশে নানা ধরণের হয়রানির শিকার হয়ে দেশে ফেরত আসছেন তাই অভিবাসী শ্রমিকদের আইনি সহায়তা দিন। গতকাল দেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ’ (বিলস্) আয়োজিত ‘অভিবাসন এবং অভিবাসী শ্রমিকদের ওপর কোভিড-১৯ এর প্রভাব: পুনরেকত্রীকরণ এবং কাজে নিরাপদ প্রত্যাবর্তন (দেশে ও বিদেশে) শীর্ষক ওয়েবিনারে বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন। সংস্থার চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান সিরাজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন সংস্থার মহাসচিব নজরুল ইসলাম খান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম হেড শরীফুল ইসলাম হাসান। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ শহীদুল আলম (এনডিসি), ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের যুগ্ম সচিব,পরিচালক (তথ্য প্রযুক্তি, গবেষণা ও পরিকল্পনা) নূরুন আখতার, রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেশন মুভমেন্ট রিসার্চ ইউনিট (রামরু) নির্বাহী পরিচালক ড. সি আর আবরার, শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরাম-এসএনএফ এর আহবায়ক ড. হামিদা হোসেন, বিল্স যুগ্ম মহাসচিব ও বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক রিনা রায় প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন।

ওয়েবিনারে বলা হয়, বিশ্বের ৮৪টি দেশে অন্তত: এক কোটি ২৭ লক্ষ বাংলাদেশী শ্রমিক কাজ করছেন। তাদের পাঠানো রেমিট্যান্সের মাধ্যমেই দেশের অর্থনীতি আজকের অবস্থানে। কিন্তু অভিবাসী শ্রমিকরা দশে এবং বিদেশে নানা ধরণের হয়রানির শিকার হয়ে দেশে ফেরত আসছেন। কোভিড-১৯ সময়ে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের তথ্য অনুযায়ী ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিদেশ থেকে ১ লক্ষ ২৭ হাজার শ্রমিক দেশে ফেরত এসেছেন। এছাড়া এসময়ে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ শ্রমিক বিদেশ যেতে পারেন নি। ফেরত শ্রমিকদের পুনর্বাসনে ডাটাবেজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু ফেরত আসা শ্রমিকদের সুনির্দিষ্ট কোন ডাটাবেজ নেই। ফেরত আসা শ্রমিকরা দেশে এসেও প্রয়োজনীয় লিগ্যাল সাপোর্ট পাচ্ছেন না। দেশে এবং বিদেশে তাদের সঠিক মর্যাদা প্রদানের পাশাপাশি তাদের জন্য আইনী সহায়তা ও বিদেশে শ্রমিক প্রেরণে কমপ্লায়েন্স নিশ্চিত করতে বিলসের পক্ষ থেকে আহবান জানানো যাচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন