ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু

কাউন্সিলের অংশ সাংবাদিকদের গয়েশ্বর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

করোনাভাইরাসের কারণে পাঁচ মাস স্থগিত ছিল বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম। গত ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে আবারও শুরু হয়েছে দলটির এই কার্যক্রম। এটিকে বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলের অংশ হিসেবে দেখছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।
তিনি বলেন, সাংগঠনিক কার্যক্রম কাউন্সিলের একটা অংশ। অর্থ্যাৎ আমাদের দেশব্যাপী প্রতিটি জেলা, উপজেলা বা থানার যতগুলো ইউনিট আছে, সেগুলো কাউন্সিলের পূর্বেই সম্পন্ন করতে হয়। সেই কাজটা শুরু হয়েছে। বিশ্ব পরিস্থিতি ও বাংলাদেশের পরিস্থিতিতে আমাদের কখন কাউন্সিল করার সুযোগ সৃষ্টি হবে সেজন্য অপেক্ষা করতে হবে। একটা সময় কাউন্সিল হবে।
গতকাল সোমবার শের ই বাংলা নগরে জাতীয়তাবাদী তরুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পনের পর সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, বিএনপি বাংলাদেশের একটি সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল। এই দলের কাউন্সিল ভার্চুয়াল বা অনলাইনে সম্ভব নয়। কাউন্সিল মানে হলো ব্যাপক লোক সমাগম হবে। প্রায় চার হাজারের মতো কাউন্সিলর আছে। তাপর ডেলিগেট, কাউন্সিলে লাখ লাখ লোক সমবেত হয়। সবকিছু বিবেচনায় রাখতে হয়।
২০১৬ সালের ১৯ মার্চ বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল হয় রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটে। দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তিন বছর পর জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।
করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিষয়টি তুলে ধরে স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, কোভিড-১৯ এর কারণে স্বাস্থ্যবিধি মানা এবং মানুষের জীবনে যে ঝুঁকি সব কিছু মোকাবেলার ক্ষেত্রে আমাদেরকে কতগুলো নিয়ম মেনে চলতে হয় প্রত্যেককে প্রত্যেকের স্বার্থে। এখন যে স্বাস্থ্যবিধি আছে সেখানে আমাদের সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরেশোরে করার সুযোগ কম। তারপরেও কাজ শুরু করেছি। কাউন্সিল দলের সাংগঠনিক প্রক্রিয়ার একটা অংশ, এটা গঠনতন্ত্রেও নিয়ম আছে। গঠনতন্ত্র তো দলের জন্য, জীবনের জন্যই। সেকারণে আমাদের কাউন্সিলটা যে সময় হওয়ার কথা সে সময়ে হয়নি। ভবিষ্যতে হবে।
এর আগে জাতীয়তাবাদী তরুণ দলের আহ্বায়ক সাঈদ আহমেদ আসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীদের নিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন এবং তার রুহের মাগফিরাত কামনায় মোনাজাত করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন