ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতের অর্থনীতিতে বিপর্যয়ের পূর্বাভাস জাতিসংঘের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৫৬ পিএম

করোনা মহামারির নেতিবাচক প্রভাবে ভারতের অর্থনীতি এ বছর ৫ দশমিক ৯ শতাংশ সংকুচিত হবে। সম্প্রতি এই পূর্বাভাস দিয়েছে জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থা (আঙ্কটাড)। এর আগেও প্রায় সব আন্তর্জাতিক সংস্থার পূর্বাভাসেই বলা হয়েছে, চলতি বছর ভারতের অর্থনীতি সংকুচিত হতে যাচ্ছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত আঙ্কটাডের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে বিশ্ব অর্থনীতি অব্যাহত মহামারির কারণে গভীর মন্দা দেখছে। সংস্থাটি বলছে, বৈশ্বিক অর্থনীতি এই বছর আনুমানিক ৪ দশমিক ৩ শতাংশ সংকুচিত হবে। সেই সঙ্গে বৈশ্বিক উৎপাদন বছরের শেষ অবধি ৬ ট্রিলিয়ন ডলার পর্যন্ত কমতে পারে। তারা সতর্ক করে বলেছে, আগামী বছর ভারতের প্রবৃদ্ধি ইতিবাচক হলেও এই সংকোচনের ফলে স্থায়ীভাবে যে আয়ের ক্ষতি হবে তা থেকে যাবে।

আঙ্কটাড বলছে, ২০২০ সালে দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনীতি ৪ দশমিক ৮ শতাংশ সংকুচিত হবে তবে ২০২১ সালে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হারে প্রবৃদ্ধি হবে। ভারতের জিডিপি ২০২০ সালে ৫ দশমিক ৯ শতাংশ সংকুচিত হবে, পরবর্তী বছরে ঘুরে দাঁড়াবে। প্রবৃদ্ধি হবে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হারে।

এদিকে কোভিড সংকট থেকে ভারতের অর্থনীতি দ্রুত মুক্তি পাচ্ছে না বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ম্যাককিনসে অ্যান্ড কোম্পানি। সংস্থাটির গ্লোবাল ম্যানেজিং পার্টনার কেভিন স্নিডার বলেন, প্রথমে ভারতীয় অর্থনীতির বিকাশ হতে পারে যা দ্রুত পুনরুদ্ধারের মতো দেখা যাবে তবে ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরের আগে কোভিড-১৯ পূর্ববর্তী অবস্থায় ফিরবে না। এক সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী অর্থনীতিগুলো কীভাবে পুনরুদ্ধার করবে সে সম্পর্কে নয়টি পরিস্থিতি বর্ণনা করা যায়। তবে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে বিশ্ব অর্থনীতি যেখানে ছিল সেখানে পৌঁছাতে কমপক্ষে ২০২৩ এর তৃতীয় প্রান্তিক পর্যন্ত সময় লাগবে। এ অবস্থায় সব সম্ভাবনার করা বিবেচনা করে ভারতসহ সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার এক্স আকারের হতে পারে।

এপ্রিল থেকে জুনে ভারতের অর্থনীতি ২৩ দশমিক ৯ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে। চলতি বছর ভারতের অর্থনীতিতে বেশ ধরনের সংকোচন হবে বলছে অনেক পূর্বাভাস। রেটিং এজেন্সি ফিচ বলছে এ বছর ভারতের অর্থনীতি সাড়ে ১০ শতাংশ সংকুচিত হবে। ভারতের রিজার্ভ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সাবেক প্রধান অর্থনীতিবিদ রঘুরাম রাজন দ্বিতীয় প্রান্তিকের পরিসংখ্যান প্রকাশের পর বলেন আরও কমতে পারে ভারতের প্রবৃদ্ধির হার। সূত্র: ইকোনমিক টাইমস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Mohan ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৬:২৩ পিএম says : 0
আ হা .. কী আনন্দ আকাশ ও বাতাসে
Total Reply(0)
Mohin Uddin Molla ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২৬ পিএম says : 0
এদের আছে শুধু অহংকার আর হিংসা।
Total Reply(0)
Abdul Matin ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২৬ পিএম says : 0
খয়রাতি বলে আমাদের
Total Reply(0)
মোহাম্মদ কাজী নুর আলম ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২৮ পিএম says : 0
একটা দেশের চারদিক থেকে অশনি সংকেত। গোপূজার দলকে ক্ষমতা থেকে না সরাতে পারলে ভারতীয়দের কপালে খারাপই আছে।
Total Reply(0)
Asia. ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২৮ পিএম says : 0
Asia is a separate world. No trade or travel or communication out side of Asia. Insahallah.
Total Reply(0)
মোহাম্মদ মোশাররফ ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২৮ পিএম says : 0
একজন চাওয়ালাকে দিয়ে কি এত বড় একটা রাষ্ট্র চালানো সম্ভব। ভারতীয়দের একটা লজ্জাও থাকা দরকার।
Total Reply(0)
Helal Sharif ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:২৫ পিএম says : 0
I heard they are the next superpower... In reality, they are stinking poor and sinking fast. It was all Bollywood fantasy. A caste-based society is doomed. What a neighbor to have. God save us.
Total Reply(0)
ash ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:৫৮ এএম says : 0
AKTA KHOYRATI MULLUK !! ( MINIGS ) A BEGGER NATION !! INDIA
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন