ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মাকে খুন করে পুড়িয়ে প্রমাণ লোপাট

গোপালগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:১৭ পিএম | আপডেট : ২:৩২ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

গত ২৬ জুন রাত সাড়ে ১০ টায় বাড়িতে ফিরে আমি ভাত খেতে চাই। এ সময় ৪ বয়সী ছোট বোন ঘরে ঘুমিয়ে ছিলো । বাবা ভাঙ্গারহাট বাজারের নৈশ প্রহরীর ডিউটিতে ছিলেন। মা হাসি রানী পান্ডে আমাকে ভাত দিতে গিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে হঠাৎ প্লেট ছুড়ে মারে। ভাতের পালিত লাথি মেরে ফেলে দেয় । এক পর্যায়ে আমি চিৎকার চেচামেচি করলে, মা বটি দিয়ে আমাকে কোপাতে আসে । আমি জ্বালানী কাঠ দিয়ে মায়ের মাথায় পেছনে আঘাত করি । এতে মায়ের মৃত্যু হয়। আমি ভয় পেয়ে যাই। এর আগে প্রবল বর্ষণ হয়। তাই আশপাশে কোন মানুষ জন ছিলোনা। লাশ কোলে করে নৌকায় তুলি। বাড়ি থেকে অর্ধ কিলোমিটার দুরে নিয়ে একটি উচু জায়গায় লাশ নৌকা থেকে নামিয়ে রাখি । পরে পাশের বাড়ি থেকে লুকিয়ে পাটখড়ি ও জ্বালানী কাঠ এবং নিজেদের ঘর থেকে কেরসিন নিয়ে গভীর রাতে মায়ের লাশ পুড়িয়ে দেই। পরে মাকে পোড়ানো কয়লা, ছাই, নৌকা পরিষ্কার ও গোসল করে বাড়ি ফিরে এসে ঘুমিয়ে পড়ি ।
এ ভাবেই আদালতে মাকে হত্যা করে লাশ পুড়িয়ে প্রমান লোপাটের বর্নণা দিয়েছে কিশোর ছেলে আকাশ পান্ডে (১৬) । গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫ টায় গোপালগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবিরের আদলতে আকাশ এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।
বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ কোটালীপাড়া উপজেলার কালিকাবাড়ি গ্রামে অভিযান চালিয়ে আকাশকে গ্রেফতার করে। এ সময় পুলিশ লাশ পোড়ানোর কাজে ব্যবহৃত কেরসিনের বোতল উদ্ধার করে। আকাশ পান্ডে কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের কালিকাবাড়ি গ্রামের মনোরঞ্জন পান্ডের ছেলে। সে ভাঙ্গারহাট তালিমপুর তেলিহাটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র।
হত্যাকান্ডের শিকার মা হাসি রানী পান্ডে (৩৫) গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের কালিকাবাড়ি গ্রামের মনোরঞ্জন পান্ডের স্ত্রী। তিনি মাদারীপুর সদর উপজেলার কলাগাছিয়া গ্রামের জুড়ান বাড়ৈর মেয়ে ।
গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান, আকাশ পান্ডের পিতা মনোরঞ্জন পান্ডে (৩৭) ভাঙ্গারহাট বাজারে নৈশ প্রহরীর কাজ করেন। ২৬ জুন রাতে নৈশ প্রহরীর ডিউটি শেষে ২৭ জুন সকালে মনোরঞ্জন বাড়িতে ফিরে স্ত্রীকে ঘরে দেখতে না পেয়ে ছেলে-মেয়ের কাছে জানতে চায় তাদের মা কোথায় গেছে? উত্তরে ছেলে-মেয়ে বলে মা মামা বাড়িতে গেছে । মনোরঞ্জন তার শশুর বাড়ি সহ আতœীয় স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ নিয়ে স্ত্রীর সন্ধান পাননি ।
ওই কর্মকর্তা আরো জানান, এ ঘটনায় মনোরঞ্জন গত ১ জুলাই কোটালীপাড়া থানায় শশুর- শাশুড়ীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে অবার একই ঘটনায় মনোরঞ্জন ৮ জুলাই কোটালীপাড়া থানায় সাধারণ ডায়েরী ( জিডি) করেন । কোটালীপাড়া থানা পুলিশ অভিযোগ ও জিডির তদন্ত করে এ ঘটনার কোন কিনারা করতে পারেননি। শশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় শশুর জুড়ান বাড়ৈ ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২৪ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রইব্যুনালে জামাতা মনোরঞ্জন পান্ডে, তার ভাই, ভাবী, বোন ও বোনের স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুক আইনে একটি মামলা করেন। ওই মামলার তদন্তে নেমে পুলিশ বৃহস্পতিবার গ্রহবধূ হাসি রানী পান্ডে হত্যা রহস্য উদ্ঘাটন করে। এ ঘটনার মূলহোতা হাসি রানী পান্ডের ছেলে আকাশ পান্ডেকে পুলিশ গ্রেফতার করে। আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদানের পর ওই কিশোরকে গোপালগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন