ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

জনজীবন দুর্বিষহ

দক্ষিণাঞ্চলে নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

দক্ষিণাঞ্চলে পেয়াঁজের ঝাঁজ চালসহ ভোজ্য তেলের বাজারেও পড়তে শুরু করেছে। রসুন আর আদার দাম আগে থেকেই বেশি। করোনা সঙ্কটের মধ্যে প্রতিনিয়ত এসব নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির কারণে নাকাল হচ্ছেন দক্ষিণাঞ্চলের সাধারণ মানুষ। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তেমন কোন প্রশাসনিক উদ্যোগ লক্ষণীয় নয়। 

পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির পরে সীমিত কিছু প্রশাসনিক উদ্যোগ লক্ষ্য করা গেলেও এখন আর তা নেই। বরিশাল মহানগরীসহ দক্ষিণাঞ্চলের ৬টি জেলা ও ৪২ উপজেলায় টিসিবির গাড়ির সংখ্যা ২০টি অতিক্রম করেনি। গতকাল মাত্র ১৬টি গাড়িতে পণ্য বিক্রি হয়েছে। যার মধ্যে বরিশাল মহানগরীতে ৫টি এবং অবশিষ্ট ১১টি গাড়ি ৫টি জেলা সদর ও কয়েকটি উপজেলা পর্যায়ে পেঁয়াজ, চিনি, ডাল ও তেল বিক্রি করেছে।
দেশি পেঁয়াজ ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ ৭৫ টাকায় বিক্রি হলেও তার অন্তত ২০ ভাগই পঁচা। গত এক সপ্তাহে চালের দাম বেড়েছে কেজি প্রতি ৩ থেকে ৫ টাকা পর্যন্ত। দক্ষিণাঞ্চলের বাজারে এখন সর্বনিম্ন মানের চাল বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪২ টাকা কেজি। আর মাঝারি মানের মিনিকেট চাল ৫৬-৫৮ টাকা। পেঁয়াজ ও চালের পরে আরেক অত্যাবশ্যকীয় নিত্যপণ্য ভোজ্য তেলের দামও বেড়েছে। সুপার সয়াবিন ও সয়াবিন তেলের দাম প্রতি লিটারে ১০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে ৯০ থেকে ১শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
টিসিবি অতি সীমিত আকারে কিছু পেঁঁয়াজ, সয়াবিন তেল, চিনি ও মসুর ডাল বিক্রি করলেও তা বাজারে কোন ইতিবাচক প্রভাব ফেলছে না। মজুদ পর্যাপ্ত, পেঁয়াজের কোন ঘাটতি নেই বলে দাবি করলেও মাথাপিছু ১ কেজির বেশি পেঁয়াজ বিক্রি করছে না রাষ্ট্রীয় এ বাণিজ্য সংস্থাটি। ফলে এক কেজি পেঁয়াজ কেনার জন্য টিসিবির গাড়ির পেছনে লাইনে দাঁড়াতে অনেকেরই আগ্রহ নেই। এতে করে বাজারে কোন প্রভাব ফেলছে না সরকারি এ কার্যক্রম।
গত মাসে ভাদ্রের অমাবশ্যার সময় সাগরের অস্বাভাবিক জোয়ার আর উজানের ঢলে প্লাবিত হয়ে দক্ষিণাঞ্চলের আগাম শীতকালীন প্রায় সব শাক-সবজি নষ্ট হয়। ফলে দক্ষিণাঞ্চলে এখন শাক-সবজির অগ্নিমূল্যে এবং প্রকট সঙ্কটও। ৫০ টাকা কেজির নিচে কোন সবজি নেই। ফলে সাধারণ গরীব অসহায় মানুষের পক্ষে এখন শাক-ভাত খেয়ে জীবন ধারণও কঠিন হয়ে পড়েছে।
করোনা সঙ্কটে গত ছয় মাস ধরে অর্থনৈতিক দুরাবস্থার মধ্যে চাল, ভোজ্য তেল আর পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি সাধারণ মানুষের দুর্ভোগকে বাড়িয়ে তুলেছে। বিষয়টি নিয়ে যার সাথেই কথা হয়েছে সকলেই হতাশ ও ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন