ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নেত্রকোনার বগলা নদীতে নিখোঁজের ৪২ ঘন্টা পর শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৪৭ পিএম

নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের কুট্টাকান্দা গ্রামের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী মাছুমা আক্তার (৭) অন্যান্য শিশুদের সাথে খেলা করতে গিয়ে বগলা নদীর পানিতে পড়ে নিখোঁজের ৪২ ঘন্টা পর সোমবার সকাল ৮টার দিকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, কুট্টাকান্দা গ্রামের মিজান উল্লাহ্’র শিশু কন্যা এবং স্থানীয় ব্র্যাক স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী মাছুমা গত ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার আনুমানিক দুপুর দেড়টা দিকে বাড়ীর পাশেই বগলা নদীর পাড়ে তারই সমবয়সী মামাতো ও চাচাতো বোনদের নিয়ে খেলা করছিল। খেলারত অবস্থায় অসাবধানতাবসত হঠাৎ মাছুমা নদীতে পড়ে গিয়ে পানিতে তলিয়ে যায়। একই গ্রামের হাসানুল্লাহ্ মেয়ে সুমাইয়া বিষয়টি দেখতে পেয়ে দৌড়ে মাসুমার বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারকে পানিতে পড়ে ডুবে যাওয়ার কথা বলে। পরিবারের লোকজন তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে ছুটে এসে নদীর পানিতে মাছুমাকে খোঁজাখুজি শুরু করে। পরে তারা বিষয়টি থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। পরে পুলিশের সহায়তায় কলমাকান্দা ফায়ার সার্ভিস ও ময়মনসিংহের ডুবুরি দল সন্ধ্যা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেও নিখোঁজ মাছুমার কোন সন্ধান পায়নি।
নিখোঁজের ৪২ ঘন্টা পর সোমবার সকাল ৮টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে নাজিরপুর ইউনিয়নের হুলিয়়াখালি নামক পাঞ্চায়়েত ডোবায় একটি শিশুর লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয় জেলেরা তাকে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পুলিশ ও পরিবারের লোকজন সেখানে ছুটে গিয়ে লাশটি নিখোঁজ মাছুমার বলে সনাক্ত করে।
এ ব্যাপারে কলমাকান্দা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা আব্দুল কাদিরের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি নিখোঁজ মাছুমার লাশ উদ্ধারের কথা স্বীকার করেন।
কলমাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল করিমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে পুলিশ লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন