ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সরকারের ব্যর্থতায় চাকরি হারানোর আশঙ্কায় সউদী প্রবাসীরা

পীর সাহেব চরমোনাই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৪৬ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, সরকারের কূটনৈতিক ব্যর্থতার কারণে চাকরি হারানোর আশঙ্কায় সউদী প্রবাসীরা। দেশে ছুটিতে আসা সউদী প্রবাসীদের কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার ক্ষেত্রে সৃষ্ট জটিলতা নিরসন করতে ব্যর্থ হলে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হবে প্রবাসীরা। পীর সাহেব বলেন, সরকারের অব্যবস্থাপনা ও কূটনৈতিক ব্যর্থতার কারণে লক্ষ লক্ষ সউদী প্রবাসী চাকরি হারানোর আশঙ্কার মধ্যে রয়েছেন।
আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, ছুটিতে আসা এসব সউদী প্রবাসীরা সাউদিয়া ও বিমানের টিকিটের অভাবে কর্মস্থলে ফিরে যেতে পারছেন না। এদিকে অনেকেরই সউদী ভিসা ইকামার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ঢাকায় টিকিটের জন্য এসে সাত আট দিন অপেক্ষা করেও বিমানের টিকিট পাচ্ছেন না সউদী আরব গমনেচ্ছুযাত্রীরা। বিমানের টিকিটের অভাবে প্রবাসী কর্মজীবীরা চাকরি হারালে সব দায় দায়িত্ব সরকারকে বহন করতে হবে। উদ্ভূত সমস্যা নিরসনে সরকারকে সউদীগামী যাত্রীদের জন্য বিমানের টিকিটের ব্যবস্থা করতে হবে।
এদিকে, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই বলেছেন, দেশে দুর্নীতি ও ধর্ষণ মহামারি রূপ নিয়েছে। বিরানব্বই ভাগ মুসলমানের দেশে ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক ছাত্র সংগঠনগুলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাতে পারবে না ছাত্রীগের এমন হুশিয়ারির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে চক্রান্ত করলে কাউকে ছেড়ে দেয়া হবে না। ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ইসলামী সংগঠনের কার্যক্রম করতে দিবে না? এতবড় দুঃসাহস মেনে নেয়া যায় না। তার এ বক্তব্য বাইরের দেশে চলতে পারে, কিন্তু বিরানব্বই ভাগ মুসলমানের দেশে বরদাশত করা হবে না।
আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর মোহাম্মদপুরস্থ একটি মিলনায়তনে নবীন আলেমদের সংবর্ধনা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পশ্চিম শাখার সভাপতি মুহাম্মদ আলমগীর হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি এম হাছিবুল ইসলাম। এ সময় অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, দেশে দুর্নীতি ও ধর্ষণ সমানতালে চলছে। দুর্নীতি যেমন রাষ্ট্রের রন্দ্রে রন্দ্রে চলে গেছে, তেমনি নারী ধর্ষণের ঘটনাও সারাদেশে সীমাহীন আকার ধারণ করছে। আর এ অধিকাংশ হচ্ছে সরকার দলীয় লোকজনের মাধ্যমে। ছাত্রলীগের সনজিত চন্দ্র দাস ইসলামী রাজনীতির বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে। তাই তাকে গ্রেফতার করতে হবে। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন স্যার সালিমুল্লাহ যিনি মুসলমান ছিলেন। কাজেই মুসলমানের প্রতিষ্ঠিত ক্যাম্পাসে ইসলামী রাজনীতি চলবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন