ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

মিসের মহড়ায় কষ্টের জয় রিয়ালের

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

ভিনিসিউস জুনিয়র ছিলেন পরিষ্কার অফসাইডে। রিয়াল মাদ্রিদের কোনো খেলোয়াড়ের কাছ থেকে বল এলে হতো না গোল। বিপদমুক্ত করার চেষ্টায় থাকা রিয়াল ভ্যালাদলিদের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে এলো বল। তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ঠান্ডা মাথায় খুঁজে নিলেন জাল। অসংখ্য সুযোগ হারিয়ে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়ে যাওয়া শিরোপাধারীরা পেল স্বস্তির জয়। গতপরশু রাতে লা লিগার ম্যাচে ১-০ গোলে ভ্যালাদলিদকে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের দল। এ নিয়ে ঘরের মাঠে টানা ২০ ম্যাচ ধরে অপরাজিত রিয়াল।
প্রথম সুযোগ হারায় দশম মিনিটে। বাঁ দিক থেকে লুকা ইয়োভিচের কাটব্যাক ধরে বুলেট গতির শট নেন মার্সেলো। ফিরতি বলে ফেদে ভালভার্দের শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে কোনোমতে ঠেকান ভ্যালাদলিদ গোলকক্ষক রবের্তো হিমেনেস। প্রতি আক্রমণ থেকে ১৭তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পেয়ে যান ইয়োভিচ। ভালভার্দের নিখুঁত ক্রস বিপজ্জনক জায়গা থেকে লক্ষ্যে রাখতে পারেননি এই সার্বিয়ান ফরোয়ার্ড। ২৮তম মিনিটে ভ্যালাদলিদের অস্কার প্লানো একটি সুযোগ হাতছাড়া করার সাত মিনিট পর খুব কাছ থেকে সাইড নেটে মারেন ইয়োভিচ। ৪৮তম মিনিটে কর্নারে ইয়োভিচের চমৎকার হেড দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন হিমেনেস। ফিরতি বলে কাসেমিরোর শট ফেরে ক্রসবারে লেগে। হাতছাড়া হয়ে যায় এগিয়ে যাওয়ার চমৎকার সুযোগ।
দ্বিতীয়ার্ধ শুরুর কিছু পরেই ইয়োভিচ, ইসকো ও ওদ্রিওসোলাকে তুলে ভিনিসিউস, আসেনসিও ও দানি কারভাহালকে নামান জিদান। এরপরই যেন বদলে যায় রিয়াল। খেলায় বাড়ে গতি, আক্রমণে ধার। ফলও মেলে দ্রুত। ৬৫তম মিনিটে বল বিপদমুক্ত করতে গিয়ে উল্টো অফসাইডে থাকা ভিনিসিউসের কাছে পাঠিয়ে দেন সফরকারীদের এক খেলোয়াড়। সুবর্ণ সুযোগ কাজে লাগান তরুণ ফরোয়ার্ড। ৭৫তম মিনিটে করিম বেনজেমার শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর প্রতি আক্রমণে তার পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ আসে ভিনিসিউসের সামনে। এবার আর পেরে ওঠেননি তিনি। ৮৩তম মিনিটে একটুর জন্য দ্বিগুণ হয়নি ব্যবধান। লুকা মদ্রিচের শট ফেরে পোস্টে লেগে। ম্যাচের শেষ শটেও গোল করার সুযোগ ছিল ভিনিসিউসের সামনে। কিন্তু দুর্বল শটে গোলরক্ষকের হাতে বল তুলে দেন তিনি। ৩ ম্যাচে টানা দ্বিতীয় জয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে উঠে এসেছে রিয়াল। এক ম্যাচ বেশি খেলা ভালেন্সিয়া ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে। ৩ ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে এগিয়ে থেকে শীর্ষে রয়েছে গেটাফে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন