ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০২ আষাঢ় ১৪২৮, ০৪ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

জিপিএস পদ্ধতিতে সিএস জরিপ অনুযায়ী শীতলক্ষ্যায় সীমানা পিলার স্থাপনে রেলওয়ের বাধায় উত্তেজনা

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০২০, ৫:৫২ পিএম

শীতলক্ষ্যা নদীতে নতুন সীমানা পিলার স্থাপনের কার্যক্রমে বাধা দিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডায় মৃদু উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মাহবুব জামিলের নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থল গেলে রেলওয়ের উর্ধ্বতনদের কাউকে পাওয়া যায়নি। সোমবার ৫ অক্টোবর শীতলক্ষ্যার পশ্চিম তীরে নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় সীমানা পিলার স্থাপনে রেলওয়ের (জিআরপি) পুলিশ বাধা দিলে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পরে বাধার মুখেই রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় ৫টি সীমানা পিলার স্থাপন করা হয়।
জানা গেছে, হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী জিপিএস পদ্ধতিতে ধলেশ^রী ও শীতলক্ষ্যার উভয়তীরে ২ হাজার ৪০০ টি নতুন সীমানা পিলার বসানো হচ্ছে। ১০০ ফুট পরপর সীমানা পিলার স্থাপন করা হচ্ছে। এই সীমানা পিলার পাইলিং এর মাধ্যমে স্থাপন করা হচ্ছে। উচ্চতায় ১০ ফুট এবং বেস হচ্ছে ৫ ফুট বাই ৫ ফুট। যাতে কেউ ইচ্ছে করলেই সীমানা পিলার উঠিয়ে নিতে না পারে। এই পিলারের আয়ুস্কাল কমপক্ষে ১০০ বছর। শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব তীরে মদনগঞ্জ থেকে ২৬নং ওয়ার্ডের রামনগর পর্যন্ত ইতিমধ্যে শতাধিক নতুন সীমানা পিলার স্থাপন করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার ৫ অক্টোবর দুপুরে শীতলক্ষ্যার পশ্চিম তীরে নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় ৫টি নতুন সীমানা পিলার স্থাপন করতে গেলে রেলওয়ের জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মোখলেছের নেতৃত্ব রেলওয়ে পুলিশের একটি টিম সীমানা পিলার স্থাপন কাজে বাধা দেয়। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডায় মৃদু উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এদিকে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে নিজ মোবাইলে ভিডিও করতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে যান রেলওয়ের জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মোখলেছ। পরে তার লোকজন প্রচার করতে থাকে প্রতিপক্ষের মারধরে এসআই মোখলেছ আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মাহবুব জামিলের নেতৃত্বে বিআইডব্লিউটিএ'র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম-পরিচালক শেখ মাসুদ কামাল, উপ পরিচালক মোবারক হোসেন, সহকারী পরিচালক এহতেশামুল পারভেজ, নূর হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তবে এসময় রেলওয়ের জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মোখলেছসহ কাউকে পাওয়া যায়নি। এসময় রেলওয়ের আনসার সদস্য মোস্তফা জানান, তারা পিলার নির্মাণ কাজে কোন বাধা দেননি। জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মোখলেছ ঘটনাস্থলে এসেছিলেন। এ বিষয়ে জিআরপি পুলিশ ফাঁড়ির লোকজন ভাল বলতে পারবে। পরে ঘটনার সময়ে ধারনকৃত একটি ভিডিও চিত্রে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট দেখতে পান, বাধা প্রদানকালীন সময়ে নিজেই মোবাইলে নির্মাণ কাজের ভিডিও করছিলেন এসআই মোখলেছ। এসময় নিজেই পা পিছলে পড়ে যান এসআই মোখলেছ। পরে এ বিষয়টিকে প্রতিপক্ষের হামলা রটিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টির পায়তারা হয়েছিল। এরপর বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটসহ বিআইডব্লিউটিএ'র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দীর্ঘক্ষণ ঘটনাস্থলে থাকলেও রেলওয়ের উর্ধ্বতনদের কাউকেই পাওয়া যায়নি।
অপরদিকে রেলওয়ে বলছে তাদের মেগা প্রজেক্টে ডুয়েল গেজ ডাবল লাইন প্রকল্পে ডুকে গেছে বিআইডব্লিউটিএ‘র সীমানা পিলার। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মিটারগেজ রেললাইন সমান্তরাল ডুয়েলগেজ প্রকল্পের জেডিজি (ইঞ্জিনিয়ারিং) মো. আফজাল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, নারায়ণগঞ্জ স্টেশনের জমি নিয়ে বিআইডব্লিউটিএর বাঁধায় বেশ বেগ পেতে হয়েছে। নিজেদের জমি দখলমুক্ত করতে গিয়ে আইনি বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে রেলওয়েকে।
তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ কার্যালয়ের যুগ্মপরিচালক মাসুদ কামাল জানান, রেলওয়ের বক্তব্য মোটেও সঠিক নয়। উল্টো রেলওয়ে আমাদের জমিই দখল করে নেয়ার পায়তারা করছিল। আমরা বিআইডব্লিউটিএ’র নিজস্ব জমিতেই সীমানা পিলার স্থাপন করছি।
নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মাহবুব জামিল বলেন, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী নদীকে রক্ষা করার জন্য গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম (জিপিএস) পদ্ধতিতে সিএস জরিপ মোতাবেক নতুন সীমানা পিলার স্থাপন করা হচ্ছে। যেসব জায়গায় ত্রুটিপূর্ণ পিলার রয়েছে সেসব জায়গায় সীমানা পিলার পূণনির্ধারণ করে জিপিএস পদ্ধতিতে নতুন সীমানা পিলার স্থাপন করা হচ্ছে। পিলার স্থাপন কাজে বাধা প্রদানের খবরে ঘটনাস্থলে গেলেও কাউকে পাওয়া যায়নি। কারো কোন আপত্তি আছে কিনা সেটা জানার জন্য দীর্ঘক্ষণ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলেও কেউ আসেনি।
উল্লেখ্য এর আগে গোদনাইল এলাকায় সীমানা পিলার স্থাপন করাকালীন সন্ত্রাসী রাসেলের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী সীমানা পিলার স্থাপন কাজে বাধা দিয়েছিল। যে কারণে ৩ অক্টোবর ভ্রাম্যমান আদালতের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়। তবে এসময় বাধা প্রদানকারীদের কেউ ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলনা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন