ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২১ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

নিষিদ্ধ আশরাফুল আজ থেকে মুক্ত

প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : ২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) ‘টু’ তে ঢাকা গøাডিয়েটর্সের হয়ে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত ছিলেন, আকসুর তদন্তে এই তথ্য জানাজানি হওয়ায় বিসিবি’ও হতভম্ব হয়েছে তখন। আকসু কর্মকর্তাদের কাছে সরল স্বীকারোক্তিতে কৃত অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছেন আশরাফুল। বিসিবিকে ট্রাইব্যুনাল গঠনের নির্দেশ দিয়ে ২০১৩ সালের ১৩ আগস্ট হোটেল রেডিসানে সেই অভিযোগই আইসিসি জানিয়ে দিয়েছে বিসিবিকে। আকসুর নির্দেশনায় বিসিবি গঠিত ট্র্যাইব্যুনালে আশরাফুলের প্রথমে সাজা হয়েছিল ৮ বছর। পরবর্তীতে আপীলে সেই সাজা কমিয়ে ৩ বছরের জন্য ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হয়েছেন আশরাফুল। যার মধ্যে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা ৫ বছরের!
মাত্র ১৭ বছর ৬১ দিন বয়সে শ্রীলংকার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরির ইতিহাস রচনা করা আশরাফুল নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আজ থেকে মুক্ত। ২০১৩ সালের পর থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে, বিপিএল’র একটি আসর করেছেন মিস, প্রিমিয়ার ডিভশন ক্রিকেট লীগে পর পর ৩ মওশুম দর্শক হয়ে থাকা, জাতীয় লীগ এবং বিসিএল’র তিনটি আসর ক্যারিয়ার থেকে চলে যাওয়ার যন্ত্রণায় দগ্ধ আশরাফুল নিষ্কুলুষ হয়ে ক্রিকেটে ফিরতে উদগ্রীব। প্রতীক্ষিত এই ক্ষণের জন্য কাউন্ট ডাউন করেছেন এক একটি করে দিন। তবে মুক্ত হয়েও পূর্ণ মুক্তির স্বাদ পেতে থাকতে হচ্ছে অপেক্ষায়। ৮ বছরের সাজা ৩ বছরে নামিয়ে আনা হলেও ট্র্যাইব্যুনালের রায়ে আরো ২ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে থাকার শর্ত দেয়া হয়েছে আশরাফুলের ক্ষেত্রে। নিষেধাজ্ঞাদেশ থেকে মুক্তি পেয়েও ২ বছর খেলতে পারবেন না বিপিএল, শর্ততে বলা আছে তা। এমনকি আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক প্রথম শ্রেনীর আসর বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিপিএল) গড়াবে মাঠে, সেই আসরেও আশরাফুলের অংশগ্রহণের সুযোগ নিয়ে পরিষ্কার কিছু জানাতে পারছে না বিসিবি। ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক আসর বিপিএল টি-২০তে ফিক্সিংয়ের অপরাধে অপরাধী বলে প্রথম শ্রেণীর ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক আসর বিসিএলে আশরাফুলের খেলার ব্যাপারে আইসিসি’র নির্দেশনার অপেক্ষায় বিসিবি। এ তথ্যই দিয়েছেন বিসিবি’র সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজনÑ ‘আশরাফুল নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন শর্ত সাপেক্ষে। আইসিসি’র যে শর্ত আছে, তাতে ২ বছর জাতীয় দলে সিলেকশনের বাইরে থাকতে হচ্ছে তাকে। বিপিএল ছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে বাধা থাকার কথা নয় আশরাফুলের। তবে বিসিএল যেহেতু ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক আসর, তাই এখানে আশরাফুল খেলতে পারবে কি না, তা জানতে আইসিসিকে ই-মেইল করেছি। আমাদের এখনো বেশ কিছু ব্যাপারে পরিষ্কার হওয়ার আছে।’
নিষিদ্ধ আশরাফুল এই তিন বছরে প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ কোন আসরে খেলতে পারেননি। ফিটনেস ধরে রাখতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে করেছেন জিমনেট। খেলেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আমন্ত্রণমূলক একটি আসর এবং ঢাকায় ইনডোর ক্রিকেটে। বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রথম শ্রেণীর ২টি আসর বিসিএল এবং এনসিএলে দল নির্বাচনের দায়িত্বটা বিসিবি’র নির্বাচকদের। ফর্ম, ফিটনেস, বর্তমান এবং নিকট অতীতের পারফরমেন্স বিবেচনায় এনে দল গঠন করেন তারা। দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে থাকায় আশরাফুলকে বিসিএল এবং এনসিএলে ফিরতে নির্বাচকদের দিকেও থাকতে হচ্ছে তাকিয়ে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Abir ১৩ আগস্ট, ২০১৬, ১১:৫০ এএম says : 0
Good news
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন