ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনে অংশ নেওয়া মেয়েদের ধর্ষণের হুমকি!

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০২০, ১০:০৮ এএম

গত কয়েকদিন ধরে টানা আন্দোলন চলছে। দেশে ধর্ষণ বিরোধী এই আন্দোলনে রাজধানীসহ সারাদেশে শিক্ষার্থীরা ব্যাপকভাবে অংশ নিচ্ছে। রাজধানীর শাহবাগ হচ্ছে আন্দোলনের মূল স্থান। এখানে নারী-পুরুষ ও শিক্ষার্থীরা যৌথভাবে আন্দোলনে অংশ নেন।

এদিকে বাংলাদেশে ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনে অংশ নেয়া ছাত্র ইউনিয়নের নেত্রীদেরকে ফোনে ও ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে ধর্ষণের হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমন একটি হুমকির স্ক্রিনশটও তুলে ধরেছেন একজন৷ তিনি ছাত্র ইউনিয়নের লালবাগ শাখার শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক এবং ঢাকা মহানগর কমিটির সদস্য মাহমুদা দীপা৷ অপূর্ব হোসাইন নামে একজন তাকে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে লিখেছেন, ‘‘...তোরে যদি আর শাহবাগে দেখি মাইক হাতে স্লোগান দিতে তাহলে তুই আর বাসায় ফিরে যাইতে পারবি না৷ শাহবাগেই তোরে রেপ কইরা পুইতা ফালামু৷’’ ম্যাসেঞ্জারের এই বার্তার বেশিরভাগ লেখাই অপ্রকাশযোগ্য৷
জার্মান ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ডয়চে ভেলের এক রিপোর্টে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। ওই রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা মহানগর কমিটি সদস্য মাহমুদা বার্তাটির স্ক্রিনশট দিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘‘আমি জানি না কে এই ভদ্রলোক তবে এইভাবে ভয় দেখিয়ে আসলে কতদিন? সে আমাকে মেসেজ দিয়ে ব্লক করে দিয়েছে৷ ভয় দেখিয়ে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না৷’’
এই বিষয়ে মাহমুদা দীপার সঙ্গে ডয়চে ভেলে থেকে যোগাযোগ করা হলে জানান, রোববার সকালে তার ম্যাসেঞ্জারে বার্তাটি এসেছে৷ অসুস্থতার কারণে তিনি এই বিষয়ে এখনও কোন ব্যবস্থা নিতে পারেন নি৷ তবে দলীয় নেতাদের বিষয়টি জানিয়ে রেখেছেন৷ তাদের পরামর্শ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নিবেন৷ শুধু তিনি নন, তার মতো আরো কয়েকজনও এমন হুমকি পাচ্ছেন বলে উল্লেখ করেন মাহমুদা দীপা৷ এরমধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদককেও বেনামে ফোন করে ধর্ষণের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি৷
এই বিষয়ে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক অনিক রায় ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আমাদের সংগঠনের অনেক নেত্রীকে তো মোবাইল ফোনে এসএমএস দিয়ে বলা হচ্ছে, যদি আর একটি বারও সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলো তাহলে শাহবাগে গণধর্ষণ করে পুতে ফেলা হবে৷ শুধু মুখে না, তারা প্রতিনিয়তই এভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে৷’’ ডয়চে ভেলে

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Jack Ali ১২ অক্টোবর, ২০২০, ১১:২৭ এএম says : 0
Those who threaten the women who are protesting against rape-- if your mother is raped, your sister is raped ,,, what will you do??? O'Muslim women who are protesting against rape. Why you disobey Allah commands. You are wearing Hizab. Wearing Hijab is FARD. Those muslim women wear Hizab they will be regarded chaste women. No body dare to violate their chastity. Allah will protect them.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন