রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ২১ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রেশনিংয়ের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে : ঢাকা ওয়াসা

পানির দাবিতে সড়ক অবরোধ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় পানির উৎপাদনও আগের তুলনায় অনেক কমে যাওয়ায় জামতলা বৌবাজার নামক স্থানে নতুন স্লুইচ ভালভ্ স্থাপন করে রেশনিং এর মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। এ এলাকায় নতুন পাম্প স্থাপনের লক্ষ্যে রিগ পাঠানো হয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে এ তা সম্পন্ন করা সম্ভব হবে। আর এ সময় রেশনিং করে এবং প্রয়োজনে পানির গাড়ি দিয়ে গ্রাহকদের নিকট পানি সরবরাহ নিশ্চিতকরণ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে ঢাকা ওয়াসা। গতকাল রোববার ঢাকা ওয়াসার উপ-প্রধান জনতথ্য কর্মকর্তা এ. এম. মোস্তফা তারেক স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গতকাল সকালে ঢাকা ওয়াসার মড্স জোন-১০ এর আওতাধীন পূর্ব শেওড়াপাড়া-৩ (মাহফুজ ক্লিনিক) পাম্পের পানি সরবরাহকৃত এলাকার কিছু গ্রাহক পানি না পাওয়ার রাস্তায় নেমে অভিযোগ করে। কারিগরী কারণে উক্ত পাম্পটির উৎপাদন কমে যাওয়ায় স্বাভাবিক পানি সরবরাহে কিছুটা সমস্যা দেখা দেয়। সমস্যার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ঢাকা ওয়াসা কর্তৃপক্ষ থেকে সংস্থার প্রধান প্রকৌশলী নিজে উপস্থিত হয়ে উপস্থিত গ্রাহকদের সাথে কথা বলেন এবং সমস্যাটি দ্রুত সমাধানে আশ্বস্ত করেন।

বর্তমানে পুর্ব শেওড়াপাড়ায় রাসেল চেম্বার ও অরবিট গলি এলাকায় প্যারেড স্কয়ার-১, শেওড়াপাড়া-৩ (মাহফুজ ক্লিনিক) এবং শেওড়াপাড়া-৪ পানির পাম্পের সমন্বয়ে রেশনিং এর মাধ্যমে উক্ত পাম্প এলাকার গ্রাহকদের পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। প্যারেড স্কয়ার-১ এবং শেওড়াপাড়া-৪ পানির উৎপাদনও আগের তুলনায় অনেক কমে যাওয়ায় বর্তমানে জামতলা বৌবাজার নামক স্থানে নতুন স্লুইচ ভালভ্ স্থাপন করে রেশনিং এর মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। ফলে গত সপ্তাহের তুলনায় বর্তমানে সংশ্লিষ্ট এলাকায় পানি সরবরাহ অনেকটা স্বাভাবিক রয়েছে। উল্লেখিত এলাকায় ইতিমধ্যেই নতুন পাম্প স্থাপনের লক্ষ্যে রিগ পাঠানো হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে আগামী এক মাসের মধ্যে এ তা সম্পন্ন করা সম্ভব হবে। আর এ সময় রেশনিং করে এবং প্রয়োজনে পানির গাড়ি দিয়ে গ্রাহকদের নিকট পানি সরবরাহ নিশ্চিতকরণ অব্যাহত থাকবে।

এদিকে গতকাল সকালে পানির দাবিতে রাজধানীর মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা। বিক্ষোভকারীরা কলস-পাতিলসহ পানি রাখার নানা পাত্র নিয়ে বিক্ষোভে যোগ দেন। এ সময় তাদের হাতে ‘পানি নাই, পানি চাই’ স্লােগান লেখা প্লাকার্ড দেখা যায়। বিক্ষোভকারীরা মিরপুর-ফার্মগেট সড়কে অবস্থান নেন। ফলে শেওড়াপাড়া থেকে মিরপুর ১০ পর্যন্ত সড়কে তীব্র যানজট তৈরি হয়। এতেভোগান্তিতে পড়েন অফিসগামী মানুষ। ঘণ্টাখানেক সড়ক অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। এ সময় তারা পানির দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এসে তাদের সড়ক থেকে সরে যাওয়ার আহবান জানান। পরে তারা মূল সড়ক ছেড়ে দিয়ে দুই পাশে অবস্থান নেন।

শেওড়াপাড়ার বাসিন্দার মো. মাহফুজুর রহমান জানান, সেখানে শতাধিক পরিবারে এক মাসেরও বেশি সময় ধরে পানি নেই। এ বিষয়ে তারা একাধিকবার কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। কিন্তু পানি সমস্যার কোনো সমাধান হয়নি। এ কারণে তারা সড়কে নেমে এসেছেন।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হুমায়ুন রশিদ জনি জানান, মিরপুরের শ্যাওড়াপাড়ার যে অঞ্চলে পানির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে সেটি ঢাকা ওয়াসার মডসু-১০জোনের মধ্যে পড়েছে। ওয়াসাকে জানানোর পরও তারা এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এমনকি ওয়াসার এ অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল হাবিব ফোনও ধরেন না। পুলিশের পল্লবী জোনের এসি জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সকালে পানির জন্য সড়ক অবরোধ করেছিলেন শেওড়াপাড়ার বাসিন্দারা। পরে তারা সড়ক থেকে সরে যান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন