ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চতুর্থবারের মতো লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:১৯ পিএম

ঘুরে-ফিরে আবারো চতুর্থবারের মতো লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হলেন সাদ হারিরি। গণবিক্ষোভের মুখে গত বছর পদত্যাগ করেছিলেন তিনি। পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন পাওয়ায় দেশটির প্রেসিডেন্ট তাকে প্রধানমন্ত্রী পদে নিয়োগ দিয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট এই মনোনয়নের কথা জানিয়েছেন। সুন্নি মুসলিম রাজনীতিক হারিরির জন্য এটি হবে চতুর্থবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এখবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, সাদ হারিরি দেশটির প্রেসিডেন্টের সঙ্গে পরামর্শ করার পর পার্লামেন্ট সদস্যদের সমর্থন আদায় করতে সমর্থ হন। তবে দেশটির শিয়াপন্থী দল হিজবুল্লাহ তাদের সমর্থনের বিষয়টি স্পষ্ট করেনি। এর ফলে হারিরিকে ক্ষমতা ভাগাভাগি ও মন্ত্রিপরিষদ গঠনের ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
১৯৭৫ থেকে ১৯৯০ সালের গৃহযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সংকটে পতিত লেবানন। এই সংকট সমাধানে হারিরিকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। গত জনগণের বিক্ষোভের মুখে ২৯ অক্টোবর পদত্যাগ করেছিলেন হারিরি। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত হওয়ার পর হারিরি দ্রুত সরকার গঠনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। যে সরকার দেশের সংস্কার ও অর্থনীতির ধসে পড়া ঠেকাবে।

নতুন সরকার গঠনে সমঝোতার জন্য কয়েক সপ্তাহের রাজনৈতিক উত্থান-পতনের পর বৃহস্পতিবার হারিরিকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়। হারিরিকে সমর্থন জানিয়েছে ফিউচার লেজিসলেটর, শিয়া আমাল পার্টি, ড্রুজ রাজনীতিক ওয়ালিড জুমব্লাটের দল।

প্রসঙ্গত, দুর্নীতি, নিত্যপণ্য ও জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত বছর রাস্তায় নামে লেবাননের মানুষ। তীব্র বিক্ষোভের মুখে বন্ধ হয়ে যায় ব্যাংক, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সরকারি-বেসরকারি অনেক প্রতিষ্ঠান। এক পর্যায়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন সাদ হারিরি।

তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, নতুন করে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিলেও আগের চেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে তাকে। কারণ করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশটির অর্থনীতির অবস্থা আরো নাজুক হয়ে পড়েছে। এছাড়া সম্প্রতি লেবাননে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ব্যাপক প্রভাব পড়েছে দেশটির অর্থনীতিতে। সূত্র : আল জাজিরা

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন