ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লাদাখ পরিস্থিতি নিয়ে ফের উদ্বেগ প্রকাশ যুক্তরাষ্ট্রের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২০, ৪:০৯ পিএম

লাদাখ পরিস্থিতি নিয়ে শুরু থেকেই ভারতকে সমর্থন জানিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে তাদের সমর্থনও ভারতের জন্য কাজে দিচ্ছে না। লাদাখে নিয়ন্ত্রণ রেখায় এখনও অটল রয়েছে চীন। এমন পরিস্থিতিতে আবারও উদ্বেগ জানাল যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানিয়েছে, আমেরিকা চায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) ভারত-চীন উত্তেজনা যাতে আর না বাড়ে।

আগামী সপ্তাহে ভারত সফরে আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রসচিব মাইক পম্পেও এবং প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক এস্পার। ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্করের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা নিয়ে তারা আলোচনা করবেন। তার আগে নয়াদিল্লির সঙ্গে প্রতিরক্ষা এবং তথ্য আদানপ্রদান সংক্রান্ত সহযোগিতা বাড়ানোর কথা বলেছে ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকার। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ চীন সাগরে ভারতের সাম্প্রতিক তৎপরতা বৃদ্ধিকেও স্বাগত জানিয়েছে আমেরিকা।

সমমনোভাবাপন্ন দেশগুলির সঙ্গে ভারতের সামরিক সমন্বয়বৃদ্ধির পক্ষে যুক্তি দিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘লাদাখ সীমান্তের পরিস্থিতি আমরা নজরে রেখেছি। ভারত সেখানে আগাগোড়াই সংযত আচরণ করছে। হিমালয়, দক্ষিণ চীন সাগর এবং ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চীনের আগ্রাসী আচরণের মোকাবিলায় ভারতের মতো সমমনস্ক অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করার বিষয়টি আগের চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।’ সাম্প্রতিক মালাবার নৌ-মহড়ায় অস্ট্রেলিয়ার যোগদানের বিষয়ে নয়াদিল্লির ইতিবাচক মনোভাবেরও প্রশংসা করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালের পরে ফের ভারত, আমেরিকা, জাপানের যৌথ নৌ-মহড়া মালাবারে প্রত্যাবর্তন হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার। এই উদ্দেশ্যে চলতি মাসের গোড়ায় জাপানে চতুর্দেশীয় জোট ‘কোয়াড’-এর বৈঠক হয়েছিল। সেখানে লাদাখ পরিস্থিতি নিয়ে পম্পেওর সঙ্গে জয়শঙ্করের আলোচনা হয় বলে সাউথ ব্লক সূত্রের খবর। টোকিওতে ওই বৈঠকের পরে এলএসি-তে ৬০ হাজার চীনা ফৌজ মোতায়েনের খবর জানিয়ে বেজিংয়ের মোকাবিলায় ‘কোয়াড’-এর দেশগুলির মধ্যো সহযোগিতা ও সমন্বয় বাড়ানোর সওয়াল করেছিলেন পম্পেও। চীনা কমিউনিস্ট পার্টির ‘খারাপ আচরণ’কে দীর্ঘ দিন ধরে পশ্চিমী দুনিয়া উপেক্ষা করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বিশ্ব এখন জেগে উঠছে। আমেরিকা ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে চিন বিরোধী জোট গঠনের কাজ শুরু করেছে।’ সূত্র: এবিপি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন