ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

প্রবাস জীবন

দাম্ভিকদের পতন অনিবার্য: আজহারী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১১:৩৪ এএম | আপডেট : ১:১৫ পিএম, ২৫ অক্টোবর, ২০২০

ফ্রান্সে প্রকাশ্যে বিশ্বনবী রাসূলুল্লাহ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন নিয়ে এবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী। গতকাল রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, ‘কোনো সভ্য সমাজের মানুষ এভাবে ভিন্ন বিশ্বাসের মানুষদের সেন্টিমেন্টের প্রতি এরকম উগ্র আচরণ করতে পারে না।’ ইনকিলাবের পাঠকদের জন্য আজহারীর সেই ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

“রবিউল আউয়াল মাসে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায়, ফ্রান্সের দুটো বিল্ডিংয়ে প্রকাশ্যে আল্লাহর রাসূল (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন— শতাব্দীর সর্ব নিকৃষ্ট অসভ্যতা। কোন সভ্য সমাজের মানুষ এভাবে ভিন্ন বিশ্বাসের মানুষদের সেন্টিমেন্টের প্রতি এরকম উগ্র আচরণ করতে পারে না। এটা সুস্পষ্ট উস্কানিমূলক। এর প্রতিক্রিয়ায়, অনাকাঙ্ক্ষিত যে কোন ঘটনা বা পরিস্থিতির জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট দায়ী থাকবে। কারণ সে বলেছে, ফ্রান্স ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন বন্ধ করবে না। এটা নাকি তাদের বাক-স্বাধীনতা। শেইম! শেইম অন এমানুয়েল ম্যাক্রন!

হৃদয়ের সবটুকু ঘৃণা ও ক্ষোভ একত্রিত করে ধিক্কার জানাই এসব নরাধমদের— যারা ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের প্রতি অসহনশীলতা প্রদর্শনকে ও অন্যের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়াকে “ফ্রিডম অফ স্পিচ” বলে আখ্যায়িত করছে। পৃথিবীর কোন ভদ্র ও সুস্থ বিবেকসম্পন্ন মানুষ এহেন কাজকে সমর্থন করতে পারে না। আসলেই, এমানুয়েল ম্যাক্রন এর মানসিক চিকিৎসা প্রয়োজন।

গরিব আফ্রিকান দেশগুলোকে শোষণ নিপীড়ন করেই লুটেরা ফ্রান্সের আজকের এই বাহাদুরি। দাম্ভিকদের পতন অনিবার্য। আল্লাহ তায়ালা চাইলে মুহূর্তে এই দাম্ভিকদের দম্ভকে মাটির সাথে গুড়িয়ে দিতে পারেন। মনে রাখা দরকার যে “আল্লাহ ছাড় দেন কিন্তু ছেড়ে দেন না”। ইতিহাস আমাদেরকে এটাই মনে করিয়ে দেয়। ইতিহাস বড়ই নির্মম !

এই ফ্রান্সে আইন করে মুসলিম নারীদের হিজাব পড়া নিষিদ্ধ করা হলেও, করোনা সংক্রমিত হওয়ার পর, মুখ না ঢেকে চলাফেরা করলে ১৫০ ইউরো জরিমানার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ফ্রান্সে হঠাৎ গত একদিনে করোনায় ৪০ হাজার আক্রান্ত, মৃত্যু ২৯৮ জন। জানিনা এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে গজব কিনা!

শুধু এতটুকু জানি— প্রিয়নবির প্রতি অসম্মান দেখিয়ে ওরা নিজেদেরকে কলঙ্কিত করেছে, সর্বোচ্চ অসভ্যতার পরিচয় দিয়েছে। আমার প্রিয় নবির মর্যাদাকে ওরা কস্মিনকালেও কিঞ্চিৎ কমাতে পারবেনা। কিভাবে তারা সেটা করবে? স্বয়ং আরশের অধিপতি প্রিয় হাবিবের সম্মানকে দ্যুলোক-ভূলোক ছাড়িয়ে, সাত আকাশ মাড়িয়ে তাঁর আরশ অবধি সমুন্নত করেছেন।”

“আর আমি আপনার স্মরণকে (গোটা জগৎময়) সমুন্নত করেছি”। [সূরা আল-ইনশিরাহ: ৪]

“আপনার প্রতি বিদ্বেষ ও শত্রুতাপোষণকারী হল শেকড়হীন, নির্বংশ”। [সূরা আল-কাউসার: ৩]”

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
saiful ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১২:২৪ পিএম says : 0
আল্লাহ্‌ নিকট কুফর গৃন্য কিন্তু কুফর কারির প্রতি কেবল কুফরের কারনে দুনিয়াতে আজাব দেননা। (তার কুফরের হিসাব তিনি আখেরাতে নেবেন বলে) কিন্তু তাঁর প্রিয় হাবিব (সাঃ)এর প্রতি অপমান, তিনি কখনই শয্য করেননা, সেই ব্যক্তি কুফরকারি কিবংবা কালেমা পাঠকারি (যাদেরকে খাওয়ারেজি/ মুনাফেক বলাহয়) যেই হোকনা কেন। যেহেতু প্রাঞ্চের সরকার প্রধান সমর্থন করেছেন কিবংবা হয়তো শরাশরী তার মদদেই হচ্ছে, সুতরাং এটা কেবল ব্যক্তিগত নয় এটা এখন জাতিগত অপরাধ। আমি আমার প্রিয় হাবিব (সাঃ) এর প্রতি অঘাত ভালোবাসার টানে প্রাঞ্চের প্রতি আমার অন্তরের অন্তর স্থল থেকে ঘৃণা পোষন করছি আর তাদের সকল পন্যব্যবহার ত্যাগ করলাম। আসুন আমরা যদি প্রিয় নবী (সাঃ) এর প্রতি বৃন্দু মাত্র ভালোবাসা রাখার দাবি করি তবে, প্রতিবার কেবল মুখে নয় ব্যবহারিক ভাবেও করি। আল্লাহ্‌ তায়ালা আমাদের ঈমানকে হিফাজত করুন এবং আমাদের অন্তরকে হিদায়েতের আলোতে আলোকিত করুন।
Total Reply(0)
mohammed ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১২:৫৯ পিএম says : 0
i hate France for sake allah
Total Reply(0)
MASUM BAILLAH ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১:০৩ পিএম says : 0
Boycott French Products
Total Reply(0)
DIDARUL ALAM ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১:০৪ পিএম says : 0
“রবিউল আউয়াল মাসে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায়, ফ্রান্সের দুটো বিল্ডিংয়ে প্রকাশ্যে আল্লাহর রাসূল (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন— শতাব্দীর সর্ব নিকৃষ্ট অসভ্যতা। কোন সভ্য সমাজের মানুষ এভাবে ভিন্ন বিশ্বাসের মানুষদের সেন্টিমেন্টের প্রতি এরকম উগ্র আচরণ করতে পারে না। এটা সুস্পষ্ট উস্কানিমূলক। এর প্রতিক্রিয়ায়, অনাকাঙ্ক্ষিত যে কোন ঘটনা বা পরিস্থিতির জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট দায়ী থাকবে। কারণ সে বলেছে, ফ্রান্স ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন বন্ধ করবে না। এটা নাকি তাদের বাক-স্বাধীনতা। শেইম! শেইম অন এমানুয়েল ম্যাক্রন!
Total Reply(0)
Jack Ali ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ১২:২৯ পিএম says : 0
Sura: Al-Ma’idah. Ayat:33. The punishment of those who wage war against Allah and His Messenger and do mischief in the land is only that they shall be killed or crucified or their hands and their feet be cut off from opposite sides, or be exiled from the land. That is their disgrace in this world, and a great torment is theirs in the Hereafter.
Total Reply(0)
Tajirul laskar ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ৬:৫৭ এএম says : 0
Francer precidet nip at jak
Total Reply(0)
shazzadul ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ৪:১৩ পিএম says : 0
আমি ফ্রান্সকে বয়কট করি, আপনিও করেন . এক জন এক করে এক হাজার এক লক্ষ এক কোটি একশ কোটি হবে ইনশাআল্লাহ
Total Reply(0)
নূর মোহাম্মদ নূরু ৫ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৫৫ পিএম says : 0
হাদীস শরীফে আছে তোমর সামনে যদি কোন অনৈতিক, অসামাজিক,অনৈসলামিক কার্য কলাপ সংগঠিত হয়, তবে তা শক্তি প্রয়োগ করে হলেও তা নিভৃত কর। তা সম্ভব না হলে জবান দ্বারা বলে নিবৃত কর,তাও না পারলে অন্তরে অন্তরে ওটার প্রতি ঘৃনা কর। আর এটা হলো ইসলামের সর্ব নিম্ন পর্যায়ের ঈমানদারের কাজ। এই টুকুও যে না করে বা শক্তি সমর্থ থাকতেও যদি তা প্রয়োগ না করে, তাহলে তাদের হিসাব আল্লাহর জিম্মায়। আর আমি সেই নিম্ন পর্যায়ের‌ই এক নালায়েক,তাই আফছুছ ঘৃনা ও বয়কট কারিদের‌ই দলে। আল্লাহ ওদের হেদায়েত করুন ন‌ইলে নিপাত।
Total Reply(0)
Mustafizur Rahman Ansari ৬ নভেম্বর, ২০২০, ৭:২৬ পিএম says : 0
শেইম শেইম অন এমানুয়েল ম্যাক্রন.
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন