ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

বিতর্কই যেন রিয়ালের নিয়তি

বার্সেলোনা ১-৩ রিয়াল মাদ্রিদ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

শুরুতেই পাল্টা-পাল্টি গোল। ৫ম মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। করিম বেনজেমার দারুণ পাস থেকে নিখুঁত গোল করেন ফেদে ভালভার্দে। সেই গোলের রেশ কাটতে না কাটতেই তিন মিনিট বাদে সমতায় ফেরে বার্সেলোনা। জর্ডি আলবার মাইনাস থেকে ফাঁকায় বল পেয়ে জালে জড়িয়ে দেন ১৭ বছরের আনসু ফাতি। বার্সেলোনার জার্সিতে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ডের এটি ত্রয়োদশ গোল, এবারের লিগে চতুর্থ। সেই সাথে ক্লাসিকোর ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে (১৭ বছর ৩৫৯ দিন) গোল করে তিনি ভেঙেছেন রিয়াল কিংবদন্তি রাউল গনসালেসের রেকর্ড। যেটি ক্লাসিকোয় কাতালান ক্লাবটির এটি ৪০০তম গোল। ১৯৯৫ সালে স্পেনের ঐতিহ্যবাহী দুই দলের লড়াইয়ে ১৮ বছর ৯৫ দিন বয়সে গোল করে রেকর্ডটি গড়েছিলেন সাবেক স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড রাউল। এছাড়া ২০০৭ সালে লিওনেল মেসির হ্যাটট্রিকের পর বার্সেলোনার প্রথম টিনএজার হিসেবে ক্লাসিকোয় জালের দেখা পেলেন ফাতি।

পরে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। দু’দলই পায় অনেক সুযোগ, হাতছাড়াও হয় সেসব। বল দখলে বার্সা কিছুটা এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে আধিপত্য করে রিয়াল। গোলের উদ্দেশে তাদের ১৫ শটের ৯টি ছিল লক্ষ্যে, বিপরীতে স্বাগতিকদের ১০ শটের চারটি লক্ষ্যে। কিন্তু ধারার বিপরীতে এগিয়ে ফের যায় রিয়াল। ডি-বক্সে বিপদজনকভাবে সার্জিও রামোসকে ফেরে দেন ক্লেমো লংলে। ভিএআরের সহায়তায় পেনাল্টি পেয়ে নিঁখুত শটে দলকে এগিয়ে নেন রিয়াল অধিনায়কই। ৯০তম মিনিটে আসে তৃতীয় গোল। ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের বল ঠেকাতে গিয়ে বেরিয়ে এসেছিলেন বার্সা গোলরক্ষক নেতো। তা হাতে জমাতে না পারলে বল যায় মদ্রিচের পায়ে। বিরতির পর চমৎকার ফিনিশিংয়ে দলের ৩-১ গোলের জয় নিশ্চিত করে দেন ভালভার্দের বদলি নামা এই মিডফিল্ডার।

গতপরশু রাতে ন্যু ক্যাম্পে এসে লা লিগার প্রথম এল ক্লাসিকোতে তাই জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা তুলে নেয় অসাধারণ এক জয়। ২০০৭ সালের পর এই প্রথম চিরপ্রতিদ্ব›দ্বীদের বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জিতল রিয়াল। গত মৌসুমে শেষ ক্লাসিকোয় ঘরের মাঠে ২-০ গোলে জিতেছিল তারা। লিগে এই নিয়ে টানা দুই ম্যাচ হারল বার্সেলোনা; গত সপ্তাহে গেতাফের মাঠে হেরেছিল লিওনেল মেসিরা। আর তারও আগে সেভিয়ার সঙ্গে ১-১ ড্র করেছিল রোনাল্ড কোমানের দল। ছয় ম্যাচে চার জয় ও এক ড্রয়ে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ফিরেছে রিয়াল। ২ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রিয়াল সোসিয়েদাদ। তিন নম্বরে থাকা ভিয়ারিয়ালের পয়েন্টও ১১। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে পাঁচ নম্বরে।

পরশু ম্যাচের সবকিছুতেই ইঙ্গিত ছিল রোমাঞ্চের, ছিল দারুণ এক ফুটবলের আবহও। তবে ম্যাচের চিত্রের মতো শেষে ব্যবচ্ছেদেও উঠে এসেছে বিতর্কের রসদ। বরাবরের মতো এখানেও রিয়ালের ‘আধিপত্য’। বর্তমানে ‘ভিএআর বা ভার’ অতীতে রেফারি যেন রিয়ালের কথা শুনতেই উপস্থিত থাকে মাঠে। আগেও বহুবারের মতো এমন অভিযোগ এবারও করলেন বার্সা কোচ কোমান। আর প্রতি বারেরমতো এবারও সমালোচনাকে এড়িযে গিয়েছেন রিয়াল বস জিদান।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন