ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

হাজী সেলিমের ছেলে এরফান কর্তৃক নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: নেটিজেনদের নিন্দা

সোশাল মিডিয়া ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ৪:৪৮ এএম

নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহম্মেদ খানকে মারধর করে হত্যার হুমকি দিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে মোহাম্মদ এরফান। রোববার সন্ধ্যার পর ধানমন্ডিতে কলাবাগান ক্রসিংয়ের কাছে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে মামলা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে মোহাম্মদ এরফান ও গাড়িচালক মীজানুর রহমানকে।

জানা যায়, বই কিনে স্ত্রীসহ মোটরবাইকে ফিরছিলেন ওয়াসিফ। সাংসদ হাজী সেলিমের গাড়িটি তাঁর মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। গাড়িতে হাজী সেলিম ছিলেন না, ছিলো এরফান। ওই কর্মকর্তা তখনই মোটরসাইকেল থামান এবং নিজের পরিচয় দেন। তখনই গাড়ি থেকে নেমে দুই ব্যক্তি তাঁকে মারধর শুরু করেন। মারধরের কারণে তাঁর দাঁত ভেঙে গেছে। তাঁর স্ত্রীর গায়েও হাত দিয়েছে এবং তাদেরকে হত্যার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই কর্মকর্তা। ঘটনায় একটি ভিডিও ইতোমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এদিকে ফেইসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাজী সেলিমের ছেলে এরফান কর্তৃক নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় তিব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছে নেটিজেনরা।

এ বিষয়ে ইব্রাহিম রহমান ফেইসবুকে লিখেন, এক সময় সেনাবাহিনীর নাম শুনলে মানুষ ভয়ে কাঁপত, আর এখন হাজী সেলিমের গুণ্ডাপাণ্ডারা প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যদের মাইর দেয়! লজ্জা! মামলা করার কি দরকার। কয়টা মামলা করবেন? প্রতি দিন নতুন নতুন ঘটনা ঘটবে। দেখতে থাকুন, পরের ঘটনায়কে স্বীকার হবেন। আজ আপনার, কাল আমার, কেউ রেহাই পাবেন না। শুধু মাত্র সময়ের অপেক্ষা। আইনের শাসন আর জবাবদিহিতা যে রাষ্ট্রে নাই, সে দেশে এটি নিয়মিতই চলতে থাকবে।’

আরেকটি ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে শায়ান শীল লিখেন, ‘এর আগেও এক এমপি পুত্র তার রেসিং কার দিয়ে এক বাচ্চাকে পিষে মেরেছিল আর উর্ধতনের ফোন পেয়ে পুলিশ তার বাইকে বসিয়ে সুস্থ শরীরে এমপির বাসায় পৌছেঁ দিয়েছিলেন। এবারো হয়তো উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল ঘুরে দাত খেলিয়ে অট্টহাসি দিয়ে সব মিটমাট করে নিবেন।’

‘হায়রে সামরিক বাহিনী! এক সময় সামরিক বাহিনীর নাম শুনলে বাঘে মহিষে এক ঘাটে জল খেত। আর এখন সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তারা মার খাচ্ছে। এ লজ্জা আমরা রাখব কই?’ - আনসার আলী খান জয়ের মন্তব্য।

আল ইমরান খানের প্রশ্ন, ‘যে দেশে একজন ভালো নৌবাহিনীর কর্মকর্তা রাস্তায় স্ত্রীকে নিয়ে নিরাপদে নেই, সে দেশে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কিভাবে হবে?’

হাজী সেলিমের ছেলে এরফান গ্রেফতার হওয়ার পর সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম খোকন লিখেন, ‘বাংলাদেশের অধিকাংশ গণমাধ্যম মদিনা ট্যাংকের বিজ্ঞাপন বন্ধের ভয়ে সেলিম ও তার পুতের রামরাজত্ব নিয়ে খবর লেখে না! পুরান ঢাকায় সেলিম পরিবারের নিয়মিত নির্যাতনের শিকার শত শত পরিবারের আজ ঈদের দিন...’

জোবায়ের শেখ লিখেন, ‘সময় থাকতে ঘুরে দাঁড়ান, নইলে ওরা বাকি দাঁতগুলোও সময়করে ভেঙ্গে দিবে!’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
mozibur binkalam ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ৫:০৫ এএম says : 0
এরা ......................র আদর্শের সৈনিক। আর ক্ষমতায় থাকার কারনে অপরাধীর কিছুই হবে না।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন