ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

নিকার্কের হাতে জনসনের রেকর্ড

প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : একবার ভাবুন তো, মাইকেল জনসন দৌড়াচ্ছেন, আর তাঁকে পেছনে ফেলে ফিনিশিং লাইনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন অন্য কোনো স্প্রিন্টার! না, যুক্তরাষ্ট্রের কিংবদন্তি স্প্রিন্টারকে ওই দুঃস্বপ্নের মধ্য দিয়ে যেতে হয়নি। তবে এত দিন সযতনে আগলে রাখা তাঁর ৪০০ মিটারের বিশ্ব রেকর্ডটা গেলপরশু কেড়ে নিলেন অন্য একজনÑওয়েইড ভ্যান নিকেরেক। নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়েই রিও অলিম্পিকে ৪০০ মিটারের স্বর্ণ পদক জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান এই স্প্রিন্টার। রিও গেমসে দক্ষিণ আফ্রিকার যা প্রথম স্বর্ণ পদক।
১৭ বছর! এই শতাব্দীর শুরুর আগের রেকর্ড! ১৯৯৯ সেভিয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ৪০০ মিটারের বিশ্ব রেকর্ড গড়েছিলেন কিংবদন্তি মাইকেল জনসন (৪৩.১৮ সেকেন্ড)। কিন্তু রেকর্ডের খাতায় আমেরিকান কিংবদন্তিকে পেছনে ফেলে দিলেন নিকার্ক। ২৪ বছর বয়সী প্রোটিয়া স্প্রিন্টার ৪০০ মিটার দৌড়েছেন ৪৩.০৩ সেকেন্ডে। জনসনের রেকর্ডের চেয়েও ০.১৫ সেকেন্ড কম!
শুরু থেকে শেষÑপুরো ৪০০ মিটারই অন্য সবাইকে পেছনে ফেলে রেখেছিলেন। ৩০০ মিটারের পর একটু ক্লান্ত মনে হচ্ছিল, কিন্তু আগেই এত বেশি এগিয়ে ছিলেন, ঠিকই বড় ব্যবধানে এগিয়ে থেকে ফিনিশিং লাইন ছুঁয়ে ফেললেন। কতটা ব্যবধান? রুপাজয়ী এবং ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকের সোনাজয়ী, গ্রেনাডার কিরানি জেমসের সময় লেগেছে ৪৩.৭৬ সেকেন্ড। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্রের লসন মেরিট ৪৩.৮৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে জিতেছেন ব্রোঞ্জ। বেইজিংয়ে গত বিশ্ব চ্যাম্পিয়শিপেও মেরিট ও জেমসকে পেছনে ফেলেছিলেন নিকার্ক। এবার অলিম্পিকে দুই প্রতিদ্ব›দ্বীর সঙ্গে পেছনে ফেললেন জনসনকেও!
আট নম্বর লেনে থেকে অবিশ্বাস্য দৌড়ে সবাইকে চমকে দিয়েছেন নিকার্ক। শেষ দিকে এসে জেমস আর মেরিটের গতি যখন কমছে তখন উল্টো গতি বাড়িয়ে বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে ফেলেন তিনি। অলিম্পিকে এই প্রথম ৪০০ মিটারে শীর্ষ তিন জন ৪৪ সেকেন্ডের নীচে দৌড়ালেন। নিকার্কই বিশ্বের একমাত্র অ্যাথলেট যিনি ১০০ মিটার ১০ সেকেন্ড, ২০০ মিটার ২০ সেকেন্ড ও ৪০০ মিটার ৪৪ সেকেন্ডের নিচে দৌড়েছেন। এমন অর্জন শেষে আপ্লুত নিকার্ক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার বিশ্বাস ছিল, আমি বিশ্বরেকর্ড গড়তে পারব। আমি এই পদক জয়ের স্বপ্ন দেখেছি সারা জীবন।’
যার রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়লেন নিকার্ক, ১৯৯৬ ও ২০০০ সালে সোনা জেতা যুক্তরাষ্ট্রের সেই জনসনও বিস্ময়ে অভিভূত। বিশ্বের অন্যতম সেরা স্প্রিন্টার হিসেবে বিবেচিত জনসন বিবিসিকে বলেন, ‘ওহ মাই গড! আট নম্বর লেন থেকে বিশ্ব রেকর্ড। আমি ২০০ মিটার থেকে ৪০০ মিটার পর্যন্ত এমন কিছু কখনও দেখিনি।’
বিশ্বের অন্যতম সেরা অ্যাথলেট উসাইন বোল্ট অবসরে যাবেন। তবে বিশ্ব সম্ভবত পেয়ে গেছে আগামীর তারকাকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন