ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বিশ্বের বৃহত্তম আইপিও থেকে জ্যাক মা’র অ্যান্ট গ্রুপের ৩৪ বিলিয়ন ডলার মূলধন সংগ্রহ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ৫:৪৯ পিএম

বিশ্বের বৃহত্তম আইপিও থেকে ৩৪ বিলিয়ন ডলার মূলধন সংগ্রহ করেছে জ্যাক মা’র অ্যান্ট গ্রুপ।এর আগে সউদি আরবের তেল কোম্পানি আরামকো বাজার অর্থনীতির ইতিহাসে ২৯.৪ বিলিয়ন ডলার মূলধন তুলে শীর্ষে অবস্থান করছিল। এবার ৩,৪১০ কোটি মার্কিন ডলারের বেশি মূলধন সংগ্রহ করলো অ্যান্ট গ্রুপ। -সিএনএন, ব্লুমবার্গ

এরফলে সার্বিক বাজার মূল্যায়ন অর্জন করেছে প্রযুক্তি কোম্পানিটি ৩১ হাজার কোটি ডলার। রয়েছে অনলাইনে আর্থিক সেবা ব্যবসার মালিকানা। অ্যান্ট গ্রুপ একইসঙ্গে হংকং এবং সাংহাইয়ের স্টার পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত হয় এবং প্রাইমারি শেয়ার প্রতি মূল্য ওঠে ১০.৩২ হংকং ডলার এবং ৬৮ ইউয়ান। অ্যান্টের প্রধান ব্যবসাগুলোর মধ্যে রয়েছে অনলাইনে গ্রাহক ঋণ, অর্থ সঞ্চালন, পণ্যমূল্য পরিশোধ এবং পুঁজিবাজার বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা। চীনা ই-কমার্স গ্রুপ আলীবাবার সঙ্গে তাদের ব্যবসা জড়িত রয়েছে। যখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের বাণিজ্যিক টানাপড়েন চলছে তখন অ্যান্টের এত বড় মূলধন সংগ্রহ বেইজিংয়ের জন্যে বড় জয়। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনে মার্কিন বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগে নিরুৎসাহিত করে আসছেন। ফলে চীন স্থানীয় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে দেশি শেয়ারবাজারে নিবন্ধনে উৎসাহ দেয়ার কৌশল নেয়। হংকং ও সাংহাই বাজারে অ্যান্টের ১৬৭ কোটি শেয়ার বিক্রি হয়। কোম্পানির মোট মালিকানার ১১ শতাংশ হারে শেয়ার ইস্যু করা হয়েছে। অ্যান্ট গ্রুপের সিংহভাগ মালিকানা জ্যাক মা’র নিয়ন্ত্রণে। চীনে সব ধরনের লেনদেনে সেবা দেয় অ্যান্টের নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ।

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ হিসাব খোলা, ক্ষুদ্র সঞ্চয়, পণ্য বীমা থেকে শুরু করে নানা সুবিধা দেয় কোম্পানিটি। রয়েছে ডেটিং সার্ভিস সেবাও। অ্যান্টের শেয়ার ইস্যু চীনের শেয়ার বাজারে কোভিড মন্দা দূর করতে বড় ধরনের ভূমিকা রাখবে। ইউরোএশিয়া গ্রুপের সিনিয়র জিওটেকনোলজি বিশ্লেষক ঝিয়াওমেং লু বলেন চীন সরকার সর্বশেষ যে অর্থনৈতিক উন্নয়ন পরিকল্পনা করেছে তা থেকেও অ্যান্ট আর্থিকভাবে লাভবান হবে। কারণ, অ্যান্ট চীনের জাতীয় প্রযুক্তি চ্যাম্পিয়ন হিসেবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও ব্লকচেইনে বিনিয়োগ করছে। অ্যাডামস এ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের প্রধান বিনিয়োগ কর্মকর্তা ব্রক সিলভারর্স জানান অ্যান্টের এ ধরনের সফলতা চীনের অন্যান্য প্রযুক্তি কোম্পানিকে আরো এগিয়ে যেতে উৎসাহিত করবে। গত সেপ্টেম্বরে কোম্পানিটির আলিপে এ্যাপের গ্রাহক ছাড়িয়ে যায় ৭৩১ মিলিয়ন। গত জুন পর্যন্ত ১২ মাসে আলিপে ১৭.৭ ট্রিলিয়ন ডলার লেনদেন করে। সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এর আগের ৯ মাসে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বৃদ্ধি পায় ৪৩ শতাংশ যার আর্থিক মূল্য ১৭.৭ বিলিয়ন ডলার। মোট লাভ হয় ১০.৪ বিলিয়ন ডলার।

অ্যান্টের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে চীনের আরেক বড় কোম্পানি টেনসেন্ট এবং এ কোম্পানিটির ব্যবসা সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবল চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে। টিকটক, উইচ্যাট ও হুয়াওয়ের ব্যবসায় মার্কিন বিধিনিষেধ নেমে আসলেও ওয়াল স্ট্রিটে অন্যান্য চীনা কোম্পানিগুলো এগিয়ে যাচ্ছে। যদিও নাসডাকে ‘লাকিন কফি’ আর্থিক ত্রুটির জন্যে ব্যবসা বন্ধ করতে হয়েছে। মার্কিন আইনজীবী, সরকারি সংস্থা ও স্টক একচেঞ্জগুলো চীনা কোম্পানিগুলোর ব্যবসা সম্প্রসারণের পথ সঙ্কুচিত করে দিচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন