ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সম্মিলিতভাবে কাজ করলে দারিদ্র্য থাকবে না

মুজিববর্ষে গৃহহীনদের গৃহ উপহার কার্যক্রম উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দারিদ্র্য বিমোচনে সরকারের পাশাপাশি দেশের বিত্তবানদের সাধারণ জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টাই দেশ থেকে চিরতরে দারিদ্র্য দূর করতে পারে। দেশের উন্নয়নে সবাই সম্মিলিতভাবে কাজ করলে দারিদ্র্য থাকবে না। গতকাল শনিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে ‘মুজিববর্ষে গৃহহীন মানুষকে সরকারের সচিবগণের গৃহ উপহার’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন।

এই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে অনুষ্ঠানে সরকারের ৮০ জন সিনিয়র ও সচিব নিজ নিজ এলাকায় নিজস্ব অর্থায়নে ১৬০টি গৃহহীন, ভূমিহীন পরিবারের কাছে তাদের জন্য নির্মিত ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা আমাদের সমাজে বিত্তশালী রয়েছেন, তারা যদি এভাবে তার নিজ নিজ এলাকায় কিছু দুস্থ পরিবারের দিকে ফিরে তাকান; ঘর না থাকলে ঘর করে দেন, তাদের কিছু কাজের ব্যবস্থা করে দেন, তাদেরকে সহযোগিতা করলে তাতে সবাই উপকৃত হয়। শুধু নিজে ভালো থাকব, নিজে সুন্দর থাকব, নিজে আরাম-আয়েশে থাকব, আর আমার দেশের মানুষ, আমার এলাকার মানুষ তারা কষ্টে থাকবে, এটা তো মানবতা নয়।

সবাইকে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা যেসব স্কুলে পড়াশোনা করেছেন, সেসব স্কুলগুলোর উন্নয়নের জন্য একটু কাজ করেন। আপনি যেই গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছেন সেই গ্রামে যেই কয়টা মানুষকে পারেন, সহযোগিতা করেন। সবাই মিলে সম্মিলিত কাজ করলে পরে এদেশে দারিদ্র্য থাকবে না। মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না, সরকারের সেই ঘোষণা বাস্তবায়নে এগিয়ে আসায় সচিবদের ধন্যবাদ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা সরকারি অফিসারদের এই কথাই বলেছিলেন যে আপনারা আজকে যা কিছু পান, তার মূলে কারা? এই গ্রামের মানুষগুলোই তো। মাথার ঘাম পায়ে ফেলেই তো এরা অর্থ উপার্জন করে। তাদের জন্য আপনারা কিছু করেন। জাতির পিতার জীবনের মূল লক্ষ্যই ছিল দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানো। আজকে এই একটা ঘর পাবার পর সেই দুঃখী মানুষের মুখে যখন হাসি ফোটে। তখন তার যে আনন্দ আসে, আমার মনে হয় এটাই সব থেকে বড় পাওয়া।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে কাজ করে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমি যদি একটু কিছু করে যেতে পারি মানুষের জন্য, এটাই আমার জীবনের স্বার্থকতা। কী পেলাম, না পেলাম, সেই চিন্তা আমি কখনও করি না।

বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামমুখর জীবন তুলে ধরার পাশাপাশি ১৯৭৫ সালে তাকে হত্যার পর নিজের নির্বাসিত জীবনের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, জাতির পিতাকে হত্যা করার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে জিয়াউর রহমান খুনিদের বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছিল, রাষ্ট্রদূত করেছিল। আর যারা যুদ্ধাপরাধী, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সাথে ঘরবাড়ি পুড়িয়েছে, গণহত্যা চালিয়েছে, মা-বোনদেরকে তুলে নিয়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে তুলে দিয়েছে, লুটপাট করেছে তাদেরকেই মন্ত্রী বানিয়েছে, তাদেরকেই ক্ষমতায় বসিয়েছে।

জাতির পিতাকে হত্যার পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিপরীতে বাংলাদেশের হাঁটার কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শখ হাসিনা বলেন, পরবর্তীতে দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে মানুষের কল্যাণে কাজ শুরু করলে বাঙালি জাতি বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে চলতে শুরু করে।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, ঘর নেই এমন ২ লাখ ৯৩ হাজার ৩৬১টি পরিবার এবং জমি আছে ঘর নেই এমন ৫ লাখ ৯২ হাজার ২৬১টি পরিবারসহ সর্বমোট ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৬২২টি পরিবারের তালিকা করেছে সরকার। যাদের ১৮ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঘর তৈরি করে দেয়া হবে।

২০২০-২১ অর্থ বছরে ১ হাজার কোটি টাকায় প্রায় ৬০ হাজার পরিবারকে ঘর করে দেয়া হচ্ছে। জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/দপ্তর, সরকারি প্রতিষ্ঠান ও কর্মকর্তা এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান/ব্যক্তি উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে সর্বমোট ৬ হাজার ২শ ২২টি গৃহ নির্মাণের জন্য প্রতিশ্রুত হয়েছেন। এর মধ্যে জনপ্রতিনিধি ২ হাজার ৮৩২ জন, মন্ত্রণালয় ও সরকারি প্রতিষ্ঠান ২ হাজার ৫৬২টি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি উদ্যোগে ৮২৮টি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (10)
Md. Alomgir Hussain ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৫ এএম says : 0
এম পি ও ভুক্ত স্কুল,কলেজ,মাদরাসা জাতীয়করন চাই!
Total Reply(0)
Masud Rana ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৫ এএম says : 0
কথা সত্য
Total Reply(0)
Azizul Islam ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৬ এএম says : 0
আশার আলো।
Total Reply(0)
Anowar Hossain ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৬ এএম says : 2
মানবতার মা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বারবার দরকার,জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু ।
Total Reply(0)
Niranjan Debnath ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৭ এএম says : 2
অনেক অনেক অভিনন্দন জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয় হোক মেহনতী মানুষের
Total Reply(0)
Mojibur Mojibur ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৮ এএম says : 1
এরকম গৃহহীন সবাইকে দেওয়ার অনুরোধ রহিল আম্মাজান
Total Reply(0)
Magla Sarbon ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 2
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উনি হলেন মহান ওনার কোন তুলনা হয় না উনি সবার পাশে থাকেন
Total Reply(0)
Shah Amran Mdsha Amran ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 2
অভিনন্দন দোয়া ও শুভ কামনা রইল। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয় হোক মানবতার মমতাময়ী মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর।
Total Reply(0)
সাহিন হোসেন ১ নভেম্বর, ২০২০, ১:০০ এএম says : 2
আমাদের প্রধানমন্ত্রী আমাদের অহংকার তোমার জন্য বাংলাদেশের ধন্য
Total Reply(0)
Jack Ali ১ নভেম্বর, ২০২০, ১১:২৮ এএম says : 0
If we stop stealing money from our hard earned tax payers money then there will be not a single poor people in our Beloved Country.. We are muslim, we must rule our country by The Law of Our Creator Who created us and commanded us to rule the Country by the Law of Allah.. Our country is ruled by the Non-Believer's law as such every type of crimes become pandemic..
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন