ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চট্টগ্রামে স্বামীর খোঁজে আসা গৃহবধূকে আশ্রয় দিয়ে ধর্ষণ

প্রেমিকের সহযোগিতায় গণধর্ষণের শিকার তরুণী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

চট্টগ্রামে স্বামীর খোঁজে আসা এক গৃহবধূকে আশ্রয় দিয়ে গলায় ছুরিধরে ধর্ষণ করা হয়েছে। অন্যদিকে পালিয়ে বিয়ে করতে ঘর ছাড়ার পর প্রেমিকের সহযোগিতায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। এ দুটি ঘটনায় গতকাল রোববার নয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নগরীর লালখান বাজারে স্বামীর খোঁজে আসেন কুমিল্লার দাউদকান্দির এক গৃহবধূ। স্বামীকে না পেয়ে ঘোরাফেরার সময় তার সাথে দেখা হয় পূর্ব পরিচিত মো. মনির হোসেনের সাথে। তার স্বামীকে খুঁজে বের করার কথা বলে মেয়েটিকে বাসায় নিয়ে যায় মনির। শনিবার সকালে মনিরের স্ত্রী গার্মেন্টেসে চলে যায়। খালি বাসায় মনির মেয়েটিকে গলায় ছুরি ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর মনির গৃহবধূকে স্থানীয় এক দল বখাটের হাতে তুলে দেয়। তারা তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে এবং টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় স্থানীয় লোকজন গিয়ে মেয়েটিকে তাদের হাত থেকে উদ্ধার করে। তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গতকাল ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে মনিরসহ চারজনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার অপর তিনজন হলো- মাসুদ, দিদার ও সোহেল। পুলিশ জানায়, মনির হোসেনকে একটি ছোরাসহ নগরীর ডবলমুরিং থানার রেলবিট থেকে গ্রেফতার করা হয়। স্থানীয়রা জানায়, মনির হোসেন থানা-পুলিশের সোর্স হিসেবে এলাকায় নানা অপকর্মে জড়িত।

এদিকে ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুরে প্রেমিকের সহযোগিতায় তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তরুণীর বন্ধুসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার পাঁচজন হল- মোহাম্মদ নাজিম (২২), আবুল মনসুর (৩৫), মো. সালাহউদ্দিন (৩৮), মো. ইয়াছিন (২৩) ও মো. পারভেজ (২৫)।

পুলিশ জানায়, মেয়েটির বাসা নগরীর অক্সিজেন এলাকায়। সে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে। শুক্রবার রাতে প্রেমিক নাজিমের সাথে বাসা থেকে পালিয়ে যায়। নাজিম তাকে নিজের বাড়িতে তোলার বদলে ভুজপুর থানার নারায়ণহাট ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামের একটি নির্জন ঘরে নিয়ে তোলে। সেখানে তার আট-নয়জন বন্ধু মিলে ওই তরুণীর উপর রাতভর পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়। গণধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হলে পুলিশ অভিযানে নামে। শনিবার রাত থেকে গতকাল ভোর পর্যন্ত টানা অভিযানে ওই পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়।
থানার ওসি শেখ মো. আবদুল্লাহ জানান, তরুণী থানায় মামলা করেছেন। মামলায় তাকে বন্ধু ও তার সহযোগিরা ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরতে অভিযান চলছে বলে জানান ওসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন