ঢাকা শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ০১ মাঘ ১৪২৭, ০১ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

ফিটনেসেও সাকিবের চমক

চার ক্যাটাগরির প্লেয়ার্স ড্রাফট আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

দুদিন আগে ফিটনেস পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল সাকিব আল হাসানের। নির্ধারিত সময়ের দুই ঘণ্টা আগেই চলে এসেছিলেন মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে। অনেকটা সময় কাটালেও সেদিন ফিটনেস যাচাইয়ের জন্য বিপ টেস্টে অংশ নেননি তিনি। পরে জানা যায়, আলাদাভাবে বিপ টেস্ট দেবেন সাকিব। আর সেখানেও বাজিমাত করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের সেরা তারকা। ফিটনেস পরীক্ষায় সর্বোচ্চ স্কোর করেছেন তিনি।

গতকাল বিপ টেস্টে সাকিবের স্কোর এসেছে ১৩.৭। আগের সর্বোচ্চ ছিল বাঁহাতি পেসার মেহেদী হাসান রানার। তিনি পেয়েছিলেন ১৩.৬। দারুণ ফল এসেছিল নিহাদুজ্জামানেরও। ২১ বছরের এই স্পিন অলরাউন্ডারের স্কোর ছিল ১৩.৪। রবিউল ইসলাম ও পিনাক ঘোষ, দুজনই ১৩ পয়েন্ট পেয়ে ছিলেন দ্বিতীয় সেরা। রায়হান উদ্দিন ১৩.২ পেয়ে মেহেদীর কাছাকাছি এসেছিলেন। ট্রেনার তুষার কান্তি হাওলাদার জানিয়েছেন, ‘সাকিব আজ একা অংশ নিয়েছে। তার স্কোর ১৩ এর চেয়ে বেশি এসেছে। আমি একদম সঠিকটা বলতে পারছি না। তবে অন্যতম সেরা।’ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের বিপ টেস্ট নিয়েছেন হাইপারফরম্যান্স ইউনিট ও জাতীয় ক্রিকেট দলের ট্রেনার নিক লি। পরীক্ষা শেষে সাকিবকে নিয়ে সন্তুষ্টিই ছিল লির কণ্ঠে, ‘সাকিব ভালো করেছে। সবকিছুই ঠিকঠাক ছিল। একদম ঠিক ছিল।’
তবে বিশ্বস্ত স‚ত্রের বরাতে জানা গেছে, সাকিব ১৩.৭ স্কোর করেছেন। যা গত কয়েক দিনের বিপ টেস্টে অংশ নেওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। গত সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে দেশে ফিরে বিকেএসপিতে গিয়ে চার সপ্তাহ নিবিড়ভাবে প্রস্তুতি নেন সাকিব। তবে বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হওয়ার পর তিনি ফিরে যান যুক্তরাষ্ট্রে। সেখান থেকে গত শুক্রবার ভোররাতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরার পর অবশ্য ফিটনেস প্রসঙ্গে কিছুটা উদ্বেগ জানিয়েছিলেন তিনি, ‘যে অবস্থায় ছিলাম, অবশ্যই সে অবস্থায় নেই। তারপরও মাঝখানে (গত সেপ্টেম্বরে, বিকেএসপিতে) যখন অনুশীলন করছিলাম, ভালো একটা অবস্থানে চলে এসেছিলাম। এক মাসের এই বিরতি না গেলে হয়তো ভালো অবস্থায় থাকতাম। বিরতির কারণে স্বাভাবিকভাবেই বেশ খানিকটা পিছিয়ে গেছি। সময় তাই লাগবে। এই টুর্নামেন্ট শেষ হতে হতে আশা করি আমার পুরো ফিটনেস ফিরে পাব।’ নিষেধাজ্ঞার কারণে গত এক বছর ক্রিকেটের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক ছিল না সাকিবের। তবে এই সময় নিজের ফিটনেসের যতœ যে তিনি নিয়েছেন, গতকাল বিপ টেস্টে উতরে গিয়ে সেটাই প্রমান করলেন সাকিব।
তিন দিন ধরে ফিটনেস পরীক্ষা শেষে গতকালই চ‚ড়ান্ত করা হয়েছে প্লেয়ার্স ড্রাফটের তালিকা। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের জন্য চার ক্যাটাগরি মোট ১৫৭ জন ক্রিকেটারকে রাখা হয়েছে এই তালিকায়। টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া পাঁচ দল এই তালিকা থেকেই আজ ড্রাফটে নিজেদের দল তৈরি করবে।
‘এ’ ক্যাটাগরিতে আছেন পাঁচ ক্রিকেটার। সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোস্তাফিজুর রহমান- এই পাঁচজন পাবেন সর্বোচ্চ ১৫ লাখ টাকার পারিশ্রমিক। লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকারসহ ‘বি’ ক্যাটাগরির তালিকায় থাকা ২১ ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক ঠিক করা হয়েছে ১০ লাখ। এছাড়া সাব্বির রহমান, এনামুল হক বিজয়দের মতো ২৪ ক্রিকেটার ‘সি’ ক্যাটাগরিতে থেকে পারিশ্রমিক পাবেন ৬ লাখ টাকা। যুব বিশ্বকাপ জয়ী আকবর আলি, তানজিদ হাসানদের সঙ্গে ‘ডি’ ক্যাটাগরিতে আছেন মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফীসদের মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়রা। সবচেয়ে বেশি ১০৮ ক্রিকেটার আছেন এই ক্যাটাগরিতে। তাদের পারিশ্রমিক ধরা হয়েছে ৪ লাখ টাকা।
বিপ টেস্টে উৎরাতে না পারা নাসির হোসেন, সোহাগ গাজীদের মতো ক্রিকেটারদের আর এই টুর্নামেন্ট খেলার সুযোগ থাকছে না। বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপে অংশ নিচ্ছে ফরচুন বরিশাল, বেক্সিমকো ঢাকা, মিনিস্টার গ্রæপ রাজশাহী, জেমকন খুলনা ও গাজী গ্রæপ চট্টগ্রাম। আজ রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে প্লেয়ার্স ড্রাফট।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন