ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কোনো মুসলিম নেই নীতিশের মন্ত্রিসভায়

বিহারের ইতিহাসে প্রথমবার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

কক্টর হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ভারতে মুসলমানদেরকে কোনঠাসা করে ফেলা হচ্ছে। এবার বিহার রাজ্যে ক্ষমতায় এসেও তারা আবার নতুন করে বিতর্কের জন্ম দিল তারা। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের মন্ত্রিসভার সদস্য হিসাবে ১৪ জন শপথ নিয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন মুসলমানও নেই। যা ১৬ শতাংশ মুসলিম জনসংখ্যা অধ্যুষিত বিহারের রাজনৈতিক ইতিহাসে একেবারে নজিরবিহীন।

বিতর্ক থামাতে বিজেপির জোটসঙ্গী জেডিইউ’র পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, সম্প্রসারণের সময় মুসলিম প্রতিনিধিকে বিহার মন্ত্রিসভার সদস্য করা হবে। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, এবার বিহারে এনডিএ-র কোনও মুসলিম বিধায়কই নেই। সদ্য সমাপ্ত বিহার বিধানসভা নির্বাচনে ১২৫টি আসন নিয়ে পাটনার মসনদ দখল করেছে বিজেপি’র নেতৃত্বাধীন জোট এনডিএ। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারসহ মোট ১৪ জন মন্ত্রী শপথও নিয়েছেন। যাদের মধ্যে দুই উপমুখ্যমন্ত্রী-সহ মোট সাতজন বিজেপির বিধায়ক। মুখ্যমন্ত্রী-সহ পাঁচজন জেডিইউ বিধায়ক ও বাকি দুজন হাম ও ভিআইপি’র সদস্য। গুরুত্বের নিরিখে দেখতে গেলে অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরই রয়েছে বিজেপির হাতে। তবে স্বরাষ্ট্র দপ্তরের দায়িত্ব নিজের হাতে রেখেছেন নীতিশ কুমার।

রাজনৈতিক মহলের অভিযোগ, বিজেপি’র নির্দেশেই চলবেন নীতিশ কুমার ও তার মন্ত্রিসভা। ক্যাবিনেট গঠনেও তার ছাপ পাওয়া গেল বলেই মনে করছেন তারা। উল্লেখ্য, গতবার নীতিশ কুমারের মন্ত্রিসভার একমাত্র মুসলিম প্রতিনিধি ছিলেন খুরশিদ আলম। এবারের মন্ত্রিসভায় দলিত, যাদব, ভ‚মিহারা, ব্রাহ্মণ, রাজপুত সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা রয়েছেন। নেই কেবল কোনও মুসলমান মন্ত্রী। যা নিয়ে ইতিমধ্যে বিতর্ক মাথাচারা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি, হাম অথবা ভিআইপির তরফে কোনও মুসলিম প্রার্থী ভোটে লড়াই করেননি। একমাত্র নীতিশের দলের ১১ জন প্রার্থী ভোটে লড়েছেন। তবে তাদের মধ্যে কেউই নির্বাচনে জিততে পারেননি। গতবারের মন্ত্রী খুশিদ আলমও হেরে গিয়েছেন। উল্টো দিকে মহাজোটের তরফে বহু মুসলিম বিধায়ক রয়েছেন। নথি বলছে, আরজেডির ৭৫ বিধায়কের মধ্যে আটজন, কংগ্রেসের ১৯ জনের মধ্যে চারজন, বামেদের ১৬ জনের মধ্যে একজন, এআইএমআইএমের পাঁচজনই এবং বিএসপির একজন মুসলিম বিধায়ক রয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই এই পরিসংখ্যানই এনডিএ সরকারের মুসলিম প্রীতি ছবি তুলে ধরছে বলে সমালোচনা করেছেন বিরোধীরা। সূত্র : টিওআই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন