ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ধর্মনিরপেক্ষ লেন্সে দেখবেন না

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত মন্তব্য করার ক্ষেত্রে কখনও পিছনা হননি। বারবার তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হয়েছেন। এবার বলিউডের ঘটনা নয়, বিহারে তরুণীকে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ট্যুইটারে গর্জে উঠলেন কঙ্গনা।
গত সোমবারের নৃশংস ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘আমাদের বোনেরা আরা নিরাপদে নেই। প্রতিদিন তাদের বিরুদ্ধে আরও বড় এবং আরও জঘন্য অপরাধ হয়ে চলেছে। প্রিয় উদারপন্থীদের কাছে আমরা অনুরোধ, আপনাদের ধর্মনিরপেক্ষ লেন্সের মধ্যে দিয়ে আক্রান্ত বা অপরাধীদের দিকে তাকাবেন না। অন্তত তাদের আলাদা করবেন না। আসুন একসঙ্গে অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করি।’

সমালোচনার ঝড় উঠতেই নড়েচড়ে বসল নবগঠিত বিহার সরকার। তরুণীকে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনায় মূল অভিযুক্তসহ তিনজকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযোগ নিতে দেরি করায় একজন পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ডও করা হয়েছে।
বিহারে মুখ্যমন্ত্রীর পদে নীতীশ কুমারের শপথের দিন অর্থাৎ গত সোমবার ১৫ দিন লড়াইয়ের পর মৃত্যু হয় ওই তরুণীর। ওই দিন এই ঘটনার অভিযোগ নিতে চায়নি পুলিশ। স্থানীয় তিন যুবকের লাগাতার কট‚ক্তির প্রতিবাদ করায় পেট্রল ঢেলে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় ওই তরুণীকে।

মৃত্যুর আগে পুলিশের কাছে জবানবন্দিতে ওই নির্যাতিতা অভিযুক্ত সতীশ, তার বাবা বিনয় ও তুতো ভাই চন্দনের নাম বলেছিলেন। সেই জবানবন্দির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।
ভিডিওতে তরুণীর বক্তব্য হচ্ছে, সতাশ তাকে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। সেই কাজে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে বিনয় ও চন্দন। পরিবারের অভিযোগ, কট‚ক্তি এবং নিগ্রহের প্রতিবাদ করায় স্থানীয় তিন যুবক বাড়ি থেকে বের করে তরুণীর গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। পাটনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১৫ দিন পর গত সোমবার তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর আগে তিনি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে জবানবন্দি দিয়ে যান। সূত্র : নিউজ ১৮, বলিউড হেলপলাইন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন