ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ০৭ মাঘ ১৪২৭, ০৭ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সিলেটে পানির জন্য হাহাকার

বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হতে পারে আজ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

কুমারগাঁওয়ের বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের বিপর্যয়ে পড়েছে সিলেট। ফলে স্বাভাবিক হয়ে উঠেনি এখনো সিলেটের জনজীবন। গত মঙ্গলবার সকাল থেকেই এহেন পরিস্থিতির মুখে সিলেটের বৃহৎ গোষ্ঠি। এর প্রায় ৩১ ঘণ্টা পর গত বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নগরীর কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ রেশনিং পদ্ধতিতে দেয়া সম্ভব হলেও এখনো অন্ধকারের বেশিরভাগ এলাকা।

তবে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মধ্যে সিলেটের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা পুরো স্বাভাবিক হতে পারে বলে এমন তথ্য প্রকাশ হলে ভুক্তভোগী মানুষের মধ্যে আশার সঞ্চার ঘটেছিল। কিন্তু সেই অবস্থা স্থায়ী হয়নি, কারণ ঘোষিত সময় পর্যন্ত মেরামত কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় এটি সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন পিডিবি’র ডিভিশন-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরেফিন। আজ শুক্রবার দিনের বেলা সিলেটে পুরোপুরি বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবে। বিদ্যুৎ বিভাগের প্রায় ২’শ কর্মী ক্ষতিগ্রস্থ জায়গায় কাজ করছেন বলে জানান তিনি।

এদিকে, বিদ্যুৎহীনতায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। নগরজুড়ে এখন পানি সঙ্কট তীব্র। কোথাও কোথাও পাড়ার দোকানগুলোতে টাকা দিয়েও মিলছে না পানি। পানির অভাবে নগরীর ঘরে ঘরে সাংসারিক কাজকর্ম মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। গত দুইদিন রাতে পানির অভাবে অনেক গৃহিনী চুলায় রান্না বসাতে পারেননি। দোকান থেকে শুকনো খাবার কিনে নিয়ে এসে রাত পার করেছেন। নগরীর জল্লারপাড়, মির্জাজাঙ্গাল, দাড়িয়াপাড়া, তালতলা, শেখঘাট, বেতের বাজার, কুয়ারপাড়, কাজীরবাজার, লামাবাজার, রিকাবিবাজার, দক্ষিণ সুরমা বিভিন্ন এলাকায় এখনও বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়নি। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার বিভিন্ন এলাকা। বিদ্যুতবিহীন অবস্থায় সিলেট নগর ও সদর উপজেলায় ভোগান্তিতে পড়েছেন প্রায় ৭৫ হাজার গ্রাহক। বিদ্যুৎ না থাকায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সিলেটের বাসিন্দাদের। নগরজুড়ে দেখা দিয়েছে তীব্র পানি সঙ্কট।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর জল্লারপাড়, মির্জাজাঙ্গাল, দাড়িয়াপাড়া, লামাবাজার, রিকাবিবাজার, দক্ষিণ সুরমা বিভিন্ন এলাকায় এখনও বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়নি। ফলে নানাবিধ দুর্ভোগের মধ্যে পানির হাহাকার তীব্র হয়ে উঠেছে। অনেকে ব্যক্তি উদ্যোগে সাধারণ মানুষকে পানি সরবরাহ করছেন। কোন কোন এলাকায় ট্যাংক ভর্তি পানি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মানুষের পাশে। গতকাল বাদ আছর নগরীর জল্লারপাড়ে সিসিকের একটি গাড়ি পানি নিয়ে আসলে, পানির জন্য অপেক্ষামান মানুষকে পানি সারিবদ্ধভাবে দেয়া হয় প্রয়োজনীয় পানি।

সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর বলেন, সিটি করপোরেশন এলাকায় আংশিক বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে। যেসব এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে সেসব এলাকার সিটি করপোরেশনের গভীর নলক‚পকগুলো থেকে সঙ্গে সঙ্গে পানি সরবরাহ চালু করা হয়েছে। সিটি করপোরেশনের পাওয়ার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টও চালু করা হয়েছে। সাধারণত রাত আটটা পর্যন্ত সিটি করপোরেশনের আওতায় পানির পাম্পগুলো চালানো হতো, সেগুলো চালানো হয়েছে রাত দুইটা পর্যন্ত। তবে শুক্রবার থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হলে সিটি কর্পোরেশনের পানি সরবরাহ স্বাভাবিক করতে পারব।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন