ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭, ১২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইইউ-ব্রিটেন আলোচনায় করোনার কালো ছায়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

সোমবারের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কে বোঝাপড়ার উদ্যোগ নিচ্ছে ইইউ ও ব্রিটেন। এদিকে এক ইইউ প্রতিনিধির করোনা সংক্রমণের কারণে মুখোমুখি আলোচনা বন্ধ রাখতে হয়েছে। আগামী ১ জানুয়ারি ব্রিটেন পুরোপুরি ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ করার পর দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তির পথে একের পর এক বাধা সৃষ্টি হচ্ছে। এবার আলোচনার মেয়াদ শেষ হবার ঠিক আগে ইইউ মধ্যস্থতাকারীদের দলের এক সদস্যের করোনা সংক্রমণের কারণে আলোচনা বন্ধ রাখতে হলো। ফলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত মুখোমুখি আলোচনা শুরু হচ্ছে না। তার বদলে অনলাইন প্রক্রিয়ায় সংলাপ চালানো হবে। এখনো পর্যন্ত দুই প্রতিনিধিদলের মধ্যে কোনো ব্যক্তির কোভিড-১৯ সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইইউ কর্মকর্তার বক্তব্য অনুযায়ী আগামী সোমবারের মধ্যে বাণিজ্য চুক্তির খসড়া প্রস্তুত না হলে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট অনিবার্য হয়ে পড়বে। তার মতে, শীর্ষ স্তরে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত না বদলালে বোঝাপড়ার সম্ভাবনা কম। তবে ফিনল্যান্ডের ইউরোপ বিষয়ক মন্ত্রী টুটি টুপুরাইনেন চুক্তি সম্পর্কে আশা প্রকাশ করেন। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে তিনি বলেন, হাতে সময় এত কম থাকায় চাপ আরও বেড়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত বোঝাপড়া সম্ভব না হলে চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের প্রস্তুতির জন্য চাপ দিচ্ছে কিছু দেশ।

নেদারল্যান্ডস, ফ্রান্স, বেলজিয়াম ও স্পেন ইউরোপীয় কমিশনের উদ্দেশ্যে আপদকালীন পরিকল্পনা সময়োপযোগী করে তোলার ডাক দিয়েছে। ১ জানুয়ারি থেকে বাণিজ্যের পথে যেসব বাধা সৃষ্টি হতে পারে, সে বিষয়ে আগেভাগে প্রস্তুত থাকার উপর জোর দিচ্ছে এই দেশগুলি। ইইউ কমিশন অবশ্য আলোচনার সময়সীমা শেষ হবার আগে আপদকালীন পরিকল্পনা প্রকাশ করতে চাইছে না।

দুই পক্ষের মুখরক্ষা হয়, এমন সমাধানসূত্র কীভাবে সম্ভব হতে পারে সে বিষয়ে এখনো কোনো স্পষ্ট চিত্র পাওয়া যাচ্ছে না। ইইউ-র অভ্যন্তরীণ বাজারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিশনার টিয়েরি ব্রেতোঁ বলেন, ইইউ ত্যাগ করার পরেও ব্রিটেন অভ্যন্তরীণ বাজারের সুবিধা ভোগ করতে চায় বলে তিনি মনে করেন। সে ক্ষেত্রে ব্রিটেনকে প্রতিযোগিতার ন্যায্য নিয়ম মেনে নিতে হবে। তা না হলে বাণিজ্য চুক্তি সম্ভব হবে না, বলেন ব্রেতোঁ। মাছ ধরার অধিকারসহ সংঘাতের বাকি কারণগুলির ক্ষেত্রে ইইউ নমনীয়তা দেখাতে প্রস্তুত কিনা, তা এখনো স্পষ্ট নয়। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ব্রিটেন এখনো ইইউ-র সঙ্গে শুল্ক ও অন্যান্য বাধা ছাড়া বাণিজ্য চালিয়ে যেতে আগ্রহী। ইইউ কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডেয়ার লাইয়েন আগামী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইইউ শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। ব্রেক্সিটসহ একাধিক বিষয়ে তিনি বক্তব্য রাখবেন। সোমবারের মধ্যে সাফল্য সম্ভব না হলে আলোচনার মেয়াদ বাড়ানোর কোনো সম্ভাবনা রয়েছে কিনা, সে বিষয়ে এখনো স্পষ্ট কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না। তবে আপোশের স্পষ্ট সম্ভাবনা দেখা দিলে ‘টেকনিকাল এক্সটেনশন’ বা প্রক্রিয়াগত কারণে মেয়াদ সামান্য বাড়ানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশেষজ্ঞরা। সূত্র : রয়টার্স, এপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন