ঢাকা সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অসুস্থ রিজভীর দ্রুত সুস্থতা কামনা তথ্যমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর দ্রæত সুস্থতা কামনা করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।
গতকাল শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডের সরকারি বাসভবন থেকে অনলাইনে সদ্যপ্রয়াত সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব:) শওকত আলী স্মরণে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত স্মরণসভায় অনলাইনে যুক্ত হয়ে রিজভীর সুস্থতা কামনা করেন হাছান মাহমুদ। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ও জনতার প্রত্যাশা যৌথভাবে এ সভা আয়োজন করে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর দ্রæত সুস্থতা এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যেন সুস্থ থাকেন। আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি, তিনি যেন দ্রæত সুস্থ হয়ে ওঠেন। একইসাথে বিএনপিকে তাদের মহাসচিবের অসংলগ্ন বক্তব্যের কারণ বের করার অনুরোধ জানান। গত ১৩ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন রিজভী। পরে আবারো হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলীর মৃত্যুতে স্মরণসভাটির আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ও জনতার প্রত্যাশা নামের দুটি সংগঠন। স্মরণসভায় অনলাইনে যুক্ত হয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, সমগ্র পৃথিবী যখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করছে, তখন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বললেন, দেশে সরকার আছে কি-না, তিনি তা অনুধাবন করতে পারছেন না। তার আগে তিনি বলেছেন, সরকার প্রতিনিয়ত তাদের দলের নেতা-কর্মীদের ওপর দমন-নিপীড়ন চালাচ্ছে। কোনো কোনো সময় তিনি বলছেন, সরকার একদলীয় সরকারের মতো আচরণ করছে। তার এই বক্তব্য অসংলগ্ন, স্ববিরোধী। হাছান মাহমুদ বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা দেখতে পাচ্ছি, দেশের বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র অব্যাহত আছে। নানামুখী ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে দলের নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকার আহŸান জানান তথ্যমন্ত্রী।
ড. হাছান বলেন, নির্মোহ সদালাপী এ মানুষটি শেখ হাসিনার সাথেও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছেন। ২০০১ সালে বিএনপি রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকাকালে যখন আওয়ামী লীগের হাজার নেতাকর্মী নির্যাতনের শিকার হচ্ছিল, তখন শওকত আলী অত্যন্ত সোচ্চার ছিলেন। নতুন প্রজন্মের রাজনীতিকদের কাছে অনুকরণীয় এ ব্যক্তিত্বের মৃত্যু শুধু দলের নয় সমগ্র দেশের রাজনীতির জন্যই এক অপূরণীয় ক্ষতি।
স্মরণসভায় জনতার প্রত্যাশা সংগঠনের সভাপতি এম এ করিম সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনায় ছিলেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা। বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট আকরাম হোসাইন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু, ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন