ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আদালত ১৫ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিলেন

ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

ধর্ষণের মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে ১৫ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সাত বছর আগে দক্ষিণ ভারতের চেন্নাইয়ের ওই ঘটনায় নির্দোষ সাব্যস্ত হওয়ার পর সন্তোষ নামে ওই ব্যক্তি ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেছিলেন। তারই জেরে গতকাল শনিবার এ রায় দিয়েছেন আদালত।

ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ দায়েরের সময় সন্তোষ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ছাত্র ছিলেন। অভিযোগকারিণী এবং তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশ এবং আদালতকে জানান, সন্তোষ ধর্ষণ করার ফলেই তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। এক সন্তানেরও জন্ম দেন অভিযোগকারিণী।
২০০৯ সালের শেষ পর্বের ওই ঘটনায় অভিযোগ দায়েরের পরেই পুলিশ সন্তোষকে গ্রেফতার করেছিল। ৯৫ দিন পরে ২০১০ সালের ফেব্রæয়ারিতে তিনি জামিনে মুক্তি পান। সেক্রেটারিয়েট কলোনি থানার তদন্তকারী পুলিশ ইন্সúেক্টরও চার্জশিটে সন্তোষকে ‘দোষী’ হিসেবে চিহ্নিত করেন। কিন্তু ডিএনএ পরীক্ষায় জানা যায়, অভিযুক্ত সন্তোষ ওই সন্তানের পিতা নন।
ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পর ২০১৬ সালে চেন্নাইয়ের মহিলা আদালত ধর্ষণের মিথ্যা মামলা থেকে সন্তোষকে মুক্তি দেন। কিন্তু ততদিনে সাত বছর পেরিয়ে গেছে। সন্তোষ আদালতে মানহানি এবং ক্ষতিপূরণের মামলা দায়ের করেন। তিনি আদালতকে জানান, ধর্ষণের মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার ফলে তার ব্যক্তিগত জীবনের ক্ষতি হয়েছে। নষ্ট হয়েছে কেরিয়ার। নিজেকে আদালতে নির্দোষ সাব্যস্ত করতে প্রায় ২ লাখ রুপি খরচও হয়েছে। এ জন্য মোট ৩০ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেন তিনি।
চেন্নাইয়ের একটি আদালত সন্তোষকে ১৫ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেয়ার রায় ঘোষণা করে জানিয়েছেন, অভিযোগকারিণী, তার পরিবার এবং সেক্রেটারিয়েট কলোনি থানার তদন্তকারী পুলিশ ইন্সপেক্টরের কাছ থেকে ওই অর্থ আদায় করা হবে। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন