ঢাকা সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভাঙ্গা ঘড়ির দাম ১৩ লাখ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের অগ্রনায়ক মহাত্মা গান্ধীর একটি নষ্ট ও ভাঙ্গা পকেট ঘড়ি যুক্তরাজ্যে এক নিলামে ১২ হাজার পাউন্ডে (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১৩ লাখ ৫১ হাজার টাকা) বিক্রি হয়েছে। সুইস মেড সিলভার প্লেটেড ওই ঘড়িটি ১৯৪৪ সালে মহাত্মা গান্ধী তার এক একনিষ্ঠ শিষ্যকে খুশি হয়ে ঘড়িটি উপহার দিয়েছিলেন। ওই শিষ্যের নাতি সম্প্রতি ঘড়িটি নিলামের জন্য দিয়েছিলেন।
শুক্রবার যুক্তরাজ্যের ইস্ট ব্রিস্টল অকশনস হলে নিলামের শুরুতে ঘড়িটির দাম রাখা হয়েছিল ১০ হাজার পাউন্ড। সেখান থেকে ১২ হাজার পাউন্ডে যুক্তরাষ্ট্রের একজন সংগ্রাহক তার ব্যক্তিগত সংগ্রহে রাখার জন্য মহাত্মা গান্ধীর ঘড়িটি কিনে নিয়েছেন বলে জানান নিলামের আয়োজক অ্যান্ড্রু স্টো। তার প্রতিষ্ঠানই এর আগে গত আগস্টে মহাত্মা গান্ধীর এক জোড়া চশমা নিলামে বিক্রি করেছিল ৩ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার বা প্রায় ২ কোটি ৯০ লাখ টাকায়। এ বিষয়ে স্টো বলেন, ‘মহাত্মা গান্ধীর ব্যবহৃত সামগ্রী গত কয়েক মাসে ভাল দামে বিক্রি হয়েছে। ঘড়িটি যে দামে বিক্রি হয়েছে তা প্রতিষ্ঠানটির জন্য একটি দুর্দান্ত অর্জন।’ তিনি বলেন, ‘আগস্টে গান্ধীর চশমা অবিশ্বাস্য দামে বিক্রি করতে সফল হওয়ার পর থেকেই আমরা তার সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য আইটেমগুলোও নিলামে উঠানোর জন্য অসংখ্য অনুরোধ পেয়ে আসছি।’
জানা গেছে, ঘড়িটি মহাত্মা গান্ধীর কাছ থেকে উপহার হিসাবে পেয়েছিলেন তার অনুসারী মোহনলাল শর্মা। তিনি পেশায় ছিলেন একজন ছুতার মিস্ত্রি। ১৯৩৬ সালে তিনি গান্ধীর সাথে নাগরিক অধিকার আন্দোলনে যোগ দেন এবং স্বেচ্ছাসেবী হিসাবে তার বিভিন্ন কাজে তাকে সহযোগিতা করতেন। মোহনলালের নিষ্ঠার জন্য খুশি হয়ে গান্ধী ১৯৪৪ সালে স্মারক হিসাবে পকেট ঘড়িটি তাকে উপহার দিয়েছিলেন। পরে উত্তরাধিকার সূত্রে ১৯৭৫ সালে ঘড়িটির মালিক হন তার নাতি। সূত্র : বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন