ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭, ১০ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অভিজ্ঞ ব্লিংকেনই হচ্ছেন মার্কিন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ১:৫৬ পিএম

বারাক ওবামার আমলে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরে দ্বিতীয় শীর্ষ কর্তাব্যক্তি হিসেবে কাজ করেছেন অ্যান্টনি ব্লিংকেন। তিনি ডেপুটি সেক্রেটারি অব স্টেট ছিলেন। এ ছাড়া একই প্রশাসনে তিনি উপ-জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাও ছিলেন। সেই প্রশাসনে বাইডেন ছিলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট। বারাক ওবামা আমলে অ্যান্টনি ব্লিংকেন আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে অভিজ্ঞ কূটনীতিক অ্যান্টনি ব্লিংকেনকে বেছে নিতে যাচ্ছেন। বাইডেন টিমের ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি গতকাল রোববার এই তথ্য জানান। খবর সিএনএনের।

হোয়াইট হাউসের হবু চিফ অব স্টাফ রন ক্লাইন বলেন, ডেমোক্রেটিক পার্টির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট তার মনোনীত পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম আগামীকাল মঙ্গলবার ঘোষণা করতে পারেন। বাইডেনের দীর্ঘদিনের আস্থাভাজন ব্যক্তি এ অ্যান্টনি ব্লিংকেন। এ মনোনয়ের মাধ্যমে বাইডেন আমেরিকার সংস্কারের বার্তা দিতে যাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে। ব্লুমবার্গ থেকে প্রথম এ মনোনয়নের সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের হাত ধরে হোয়াইট হাউসে প্রথম পা রাখেন অ্যান্টনি ব্লিংকেন। তিনি প্রথমে বিল ক্লিনটনের হোয়াইট হাউসে ‘স্পিচ রাইটার’ হিসেবে যোগ দেন। পরে তিনি বিল ক্লিনটনের অন্যতম জাতীয় নিরাপত্তা সহযোগী হন। অ্যান্টনি ব্লিংকেন কিছুদিন আইনচর্চা করেছেন। তিনি ১৯৮০-এর দশকের শেষভাগে ডেমোক্র্যাট রাজনীতিতে যোগ দেন।

অ্যান্টনি ব্লিংকেনকে মনোনয়নের বিষয়ে বাইডেনের ট্রানজিশন টিম কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। এ বিষয়ে জানতে অ্যান্টনি ব্লিংকেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো সাড়া দেননি।

দীর্ঘদিন ধরে বাইডেনের পাশে থেকে নিষ্ঠা ও দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে তার যে অগাধ আস্থা তিনি অর্জন করেছেন, তারই পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের সক্রিয় নেতৃত্বের ভূমিকা নেওয়ার পক্ষে ৫৮ বছর বয়সী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। তা না হলে চীনের মতো প্রতিপক্ষ দেশ এই ভূমিকা নিয়ে নেবে বলে দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করে আসছেন তিনি।

অ্যান্টনি ব্লিংকেনের কাজের ধরন সম্পর্কে পরিচিত লোকজন তাকে ‘কূটনীতিকদের কূটনীতি’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। তাদের ভাষ্যমতে, তিনি সুচিন্তিত মানুষ। তিনি তুলনামূলক মৃদুভাষী। তবে পররাষ্ট্রনীতির খুঁটিনাটি দিক সম্পর্কে তিনি খুবই অভিজ্ঞ ও ঝানু।

ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ পরাজিত হওয়ার পর অ্যান্টনি ব্লিংকেন একটি স্ট্র্যাটেজিক অ্যাডভাইজরি ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেন।

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচার পর্বে বাইডেনের অন্যতম ঘনিষ্ঠ উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেন অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন