ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

রোহিতকে নিয়ে ‘সন্দিহান’ ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

রোহিত শর্মার ভারত দলে ডাক না পাওয়া নিয়ে কত নাটকই না হলো। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়ায় বাড়তি সতর্কতা হিসেবে প্রাথমিকভাবে দলে রাখা হয়নি তাঁকে। ব্যাপারটাকে ব্যক্তিগত অপমান হিসেবেই হয়তো দেখেছিলেন রোহিত। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল ফ্র্যাঞ্চাইজি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। দল ঘোষণার দিনই ব্যাট হাতে নেটে নেমে পড়েছিলেন। তড়িঘড়ি করে প্লে-অফে নেমেও পড়েছিলেন মুম্বাই অধিনায়ক। মুম্বাইকে রেকর্ড পঞ্চম আইপিএল শিরোপাও জিতিয়েছেন মাঠে থেকে। প্রকারান্তরে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে বাধ্য করেছিলেন তাঁকে দলে ডেকে পাঠাতে।
রোহিতকে নতুন করে ডেকে পাঠানো হলেও বোর্ড যে তার সুস্থতা নিয়ে সন্দিহান ছিল, সেটা ডাকার ধরনেই বোঝা গেছে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সংস্করণেই সবচেয়ে দাপুটে এই ব্যাটসম্যান, তবু তাঁকে এ দুই সিরিজে বসিয়ে রাখা হয়েছে; বরং টেস্ট সিরিজের দলেই ডাকা হয়েছে তাঁকে। কারণ, তাহলে সেরে ওঠার আগে বাড়তি সময় পাবেন রোহিত। কিন্তু সে চেষ্টাও বৃথা যাচ্ছে। ডিসেম্বর-জানুয়ারির টেস্ট সিরিজের আগেও নাকি সুস্থ হয়ে উঠবেন না রোহিত। পেসার ইশান্ত শর্মাকেও নাকি টেস্ট সিরিজে পাবে না ভারত।
প্রাথমিক দল ঘোষণার সময় রোহিতের মতোই নাম ছিল না ইশান্তের। তখন দুজনের ব্যাপারেই বোর্ডের সিদ্ধান্ত ছিল, তখন ডাকা না হলেও বোর্ডের নজরে থাকবেন দুজনই। নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হবে তাঁদের অবস্থা। অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথমে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ হবে। তাই টেস্ট সিরিজের আগে সময় পাচ্ছে ভারত। এ কারণেই চোটাক্রান্ত দুজনকে পাওয়ার আশা করছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। মুম্বাই মিরর জানাচ্ছে, ১৭ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া প্রথম টেস্টের আগে সুস্থ হবেন না দুই শর্মা। এমনকি ১৫ জানুয়ারির শেষ টেস্টের আগেও নাকি ম্যাচ ফিট হবেন না এ দুজন। বেঙ্গালুরুতে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে দুজনই পুনর্বাসনপ্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গিয়েছেন এবং এখন পর্যন্ত যে প্রতিবেদন মিলেছে, তাতে আশাবাদী হওয়ার মতো কিছু পাওয়া যায়নি। ক্রিকেট একাডেমিতে বিশেষজ্ঞরা এ ব্যাপারে আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে ইশান্ত ও রোহিতের চোট নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে এবং অনানুষ্ঠানিকভাবে বোর্ড, নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে দুজনের অবস্থাই জানানো হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে সিদ্ধান্তটা শুধু জানানোর অপেক্ষা।
কয়েক দিন আগে কোচ রবি শাস্ত্রী বলেছিলেন, টেস্ট সিরিজে অংশ নিতে চাইলে তিন থেকে চার দিনের মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছাতে হবে এ দুজনকে। কিন্তু পুনর্বাসনপ্রক্রিয়ার যে পরিস্থিতি, তাতে সে কাজটা করা কঠিন এ দুজনের পক্ষে। সে সময় শাস্ত্রী বলেছিলেন, ‘রোহিত সাদা বলের সিরিজে খেলার মতো অবস্থায় কখনোই ছিল না। শুধু দেখতে চেয়েছিলাম, তার কতটা বিশ্রাম দরকার। কারণ, খুব বেশি দিন বিশ্রাম নেওয়াও ঠিক না। যদি টেস্ট বা লাল বলে খেলতে চান, আগামী তিন বা চার দিনের মধ্যেই ফ্লাইটে উঠতে হবে। যদি সেটা না করতে পারেন, তা হলে কাজটা (খেলা) কঠিন। ইশান্তের অবস্থাও রোহিতের মতো। আপনি কখনোই বলতে পারবেন না সে কখন ওড়ার জন্য প্রস্তুত হতে পারবে। যা বলছিলাম, যদি টেস্ট সিরিজে খেলতে চায়, তাকে চার-পাঁচ দিনের মধ্যে ফ্লাইটে উঠতে হবে। না হলে খুব কঠিন হয়ে যাবে।’
শাস্ত্রীর কথাতেই পরিষ্কার ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন, ইশান্ত ও রোহিতের পক্ষে টেস্ট খেলা এখন কতটা অসম্ভব। দল সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে, শুধু পুরো ফিট হলেই তাঁদের পাঠানো হবে। আইপিএলে যেমন তাড়াহুড়া করে নামানো হয়েছিল, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তেমন করা সুযোগ নেই। আর অস্ট্রেলিয়ায় যেহেতু ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন পর্ব মানতেই হবে, তাই খুব দ্রুত সেখানে না পৌঁছাতে না পারলে অনুশীলন করার সুযোগ হারাবেন এ দুজন। আর তাহলে এমনিতেও ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা থাকবে না তাঁদের। কারণ, চোট থেকে ফেরার পর অনুশীলন না করে টেস্ট ম্যাচে নামা সম্ভব নয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন