ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ব্রিজের রেলিং ভেঙে রাস্তা নির্মাণ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

ব্রিজের রেলিং রাতের আধারে ভেঙে বোনের বাড়ি যাওয়ার রাস্তা তৈরির অভিযোগ পাওয়া গেছে উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়ন ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম ওরফে বাবু খানের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের চরবিলসা গ্রামে। গ্রামবাসী এই ঘটনার প্রতিবাদ করলে উল্টো হুমকি-ধামকি দেয়ারও অভিযোগ উঠেছে ওই নেতার বিরুদ্ধে।
গত সোমবার বিকেলে সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। উপজেলা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০০২-২০০৩ অর্থবছরে চরবিলসা গ্রামের খালের ওপর ২০ মিটার দৈর্ঘ্যের একটি ফুট ব্রিজ নির্মাণ করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর। ওই ব্রিজটি নির্মাণ হওয়ার পর গ্রামের মানুষ সহজে বারিন্দা বাজারসহ উপজেলা সদরে নির্বিঘেœ যাতায়াত করে।
গত শনিবার ওই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম ওরফে বাবু খান তার বোনের বাড়িতে যাওয়ার রাস্তা সহজ করতে খালের ওপর নির্মিত ব্রিজের রেলিং ভাঙে। ব্রিজের রেলিং ভেঙে বাবু খান এবং তার ভগ্নিপতি মঞ্জুর রহমান (মজনু খান) চান মিয়া নামের এক ব্যক্তির জমির ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ শুরু করেন এবং নির্মাণকাজের ব্যয়ভার বহন করছেন।
এলাকাবাসী এর প্রতিবাদ করলে বাবু খান উল্টো তাদের ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। যেকোন মুহূর্তে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
জমির মালিক চান মিয়ার ছেলে আব্দুল হক ও ফজলুল হক বলেন, না জানিয়েই বাবু খানের ভগ্নিপতি মঞ্জুর রহমানের বাড়ি যাওয়ার রাস্তা আমাদের জমির ওপর দিয়ে বানানো হচ্ছে। আনাইতার ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার লুৎফর রহমান বলেন, ব্রিজ ভেঙে রাস্তা করার খবর পেয়ে বাধা দিতে গেলে বাবু খান তা কর্ণপাত না করে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
আনাইতার ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বেল্লাল হোসেন বলেন, ব্রিজের রেলিং ভেঙে যে রাস্তা নির্মাণ করছে তা কোনভাবেই ঠিক হয়নি। অভিযুক্ত বাবু খান বলেন, গ্রামবাসীর স্বার্থে রাস্তা তৈরির কাজ চলছে। এ কাজের সাথে আমি জড়িত নই। উপজেলা প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান বলেন, এলাকা পরিদর্শন করে ব্রিজের রেলিং ভাঙার সত্যতা পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন