বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

স্বাস্থ্য

নাকে প্রদাহ বা রাইনাইটিস

| প্রকাশের সময় : ১১ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

হঠাৎ করে যদি নাকের ভেতর মিউকাস মেমব্রেনে প্রদাহ হয় তাকে একিউট রাইনাইটিস বলে। সাধারনত ভাইরাসের সংক্রমনে এমনটি হয়। এটি এখন অনেক বেশী দেখা যায়। ঋতু পরিবর্তনের সময় বেশী দেখা যায় একিউট রাইনাইটিস।

নাকের ভেতর মিউকাস মেমব্রেনে যে গ্লান্ড বা গ্রন্থি থাকে একিউট রাইনাইটিসে সেখান থেকে নিঃসরণ বেড়ে যায়। বিভিন্ন ভাইরাস এর জন্য দায়ী। যেমন-

১। রাইনোভাইরাস
২। ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস
৩। এডেনো ভাইরাস
৪। ইকো ভাইরাস ইত্যাদি

উপসর্গঃ
একিউট রাইনাইটিসে বিভিন্ন উপসর্গ থাকে।
যেমন-
১। নাক দিয়ে পানি পড়া,
২। নাকের ভেতর অস্বস্থি
৩। হাঁচি
৪। জ্বর
৫। নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া
৬। মাথা ব্যথা
৭। কানে অস্বস্থি
৮। আস্তে আস্তে নাকের নিঃসরণ কমতে থাকে এবং পুরু হতে থাকে।

৫-৬ দিনের মধ্যেই এসব উপসর্গ ভাল হয়ে যায়। যেহেতু একিউট রাইনাইটিস সংক্রামক রোগ তাই এ রোগ হলে দুরত্ব বজায় রেখে চলা উচিত, বাসায় থাকা উচিত। বাচ্চাদের হলেও এ সময় বাইরে পাঠনো উচিত নয়। তাহলে অন্য বাচ্চাদেরও এমন হতে পারে। পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে। জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল দেয়া যেতে পারে। এন্টিবায়োটিক খুব কম ক্ষেত্রেই লাগে। ইনফেকশন ব্যকটেরিয়া জনিত সন্দেহ হলে বা তীব্র হলে এন্টিবায়োটিক দেয়া হয়।

এন্টিহিস্টাসিন তেমন উপকার করে না। নাক পরিষ্কার করার জন্য ন্যাজাল ডিকনজেসটেন্ট ব্যবহার করা হয়।

একিউট রাইনাইটিস খুব সাধারণ সমস্যা। তাই এ বিষয়ে জানতে হবে। ঋতু পরিবর্তনের সময় সাবধানে থাকা উচিত। তাহলে অনেকটাই এ রোগ প্রতিরোধ করা যায়।

ডা. ফজলূল কবির পাভেল
পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন