বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দক্ষিনাঞ্চলে ৪ টি পৌরসভার ভোট গ্রহন ২৮ ডিসেম্বর বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের প্রচারনায় বাঁধা দেয়ার অভিযোগ

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ ডিসেম্বর, ২০২০, ৫:১৭ পিএম

বরিশাল,পটুয়াখালী ও বরগুনার ৪টি পৌরসভার ২৮ ডিসেম্বরের ভোট গ্রহনকে কেন্দ্র করে সব
প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেও বিরোধী দলীয় প্রার্থীরা নির্বিঘেœ প্রচারনা চালাতে পারছেন না বলে
অভিযোগ উঠেছে। অনেক মেয়র প্রার্থী তার বাসা থেকেও
বের হতে পারছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন। এমনকি
মনোনয়নপত্র জমা এবং চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা
প্রকাশের পর থেকে ঐসব প্রার্থীদের কর্মীদের পর্যন্ত
ভোটের প্রচারনায় মাঠে নামতে নানাভাবে বাধাগ্রস্থ
করারও অভিযোগ করেছেন একাধীক মেয়র প্রার্থী। উপরন্তু
আসন্ন এ নির্বাচনে ৩৬টি কেন্দ্রর ১৬৭টি কক্ষেই
ইভিএম মেশিন ব্যবহারের উদ্যোগ নেয়ায় উপজেলা
পর্যায়ের ঐসব পৌরসভাগুলোতে ভোটারা কতটা সাচ্ছন্দে
ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন তা নিয়েও সংশয়
প্রকাশ করেছেন একাধীক নির্বাচন পর্যবেক্ষকও।
২৮ ডিসেম্বর বরিশালের উজিরপুর ও বাকেরগঞ্জ,
পটুয়াখালীর কুয়াকাটা এবং বরগুনার বেতাগী পৌরসভার
নির্বাচনে মেয়র পদে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদন্ধীতা
করছেন। এসব পৌরসভায় রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে
আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ছাড়াও ইসলামী আন্দোলন
দলীয় প্রতিকে নির্বাচন করছে। শুধুমাত্র কুয়াকাটা
পৌরসভায় ১জন সতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদন্ধীতায় আছেন
এখনো। এসব পৌরসভাতেই ৯টি করে ওয়ার্ড ছাড়াও
৩টি করে সংরক্ষিত মহিলা আসন রয়েছে। ইতোমধ্যে
বরিশালের উজিরপুর পৌরসভার ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন
ও বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডে সরকারী দল
সমর্থিত একজন কাউন্সিলর বিনা প্রতিদন্ধীতায়
নির্বাচিত হয়েছেন।
এর বাইরে বরগুনার বেতাগী পৌরসভায় আওয়ামী লীগ,
বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনের ৩ জন মেয়র প্রার্থী
ছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে ২৬ জন প্রার্থী প্রদিন্ধীতা
করছেন। ৯ হাজার ৪৯৪ জন ভোটারের বেতাগী পৌরসভায়
মহিলা ভোটারের সংখ্যা ৪,৮২৫। ৩টি সংরক্ষিত মহিলা
কাউন্সিলর পদে ৯ জন প্রার্থী প্রতিদন্ধীতা করছেন।
পটুয়াখালীর কুয়াকাটা পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী
লীগ, বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনের ৩ প্রার্থী ছাড়াও
স্বতন্ত্র এক প্রার্থী প্রতিদন্ধীতা করছেন। ৮ হাজার ১২২
জন ভোটারের কুয়াকাটা পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে
প্রার্থী ৩১ জন। ৩,৯৪৫ জন মহিলা ভোটারের এ
পৌরসভায় সংরক্ষিত ৩টি আসনে প্রার্থী ৮ জন।
বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগ,
বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনের ৩জন প্রার্থী রয়েছেন।
১৫,৩০৪ জন ভোটারের এ পৌরসভার ৮টি ওয়ার্ডে
কাউন্সিলর প্রার্থী ২৫ জন। আর সংরক্ষিত ৩টি আসনে
মহিলা প্রার্থী ৮ জন। এ পৌরসভায় মহিলা ভোটার সংখ্যা ৭,৬৩৪ । ১১ হাজার ৯২৪ জন ভোটারের বরিশালের উজিরপুর পৌরসভায় মেয়র পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনের ৩জন প্রার্থী। ৯টি ওয়ার্ডের এ
পৌরসভায় নারী ভোটার সংখ্যা ৫,৯৩৬। কাউন্সিলর পদে ২৪
জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৮ জন প্রতিদন্ধীতা
করছেন। 
২৮ ডিসেম্বর দক্ষিনাঞ্চলের এ ৪টি পৌরসভায় ভোট গ্রহন হলেও প্রচারনা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ২৬ ডিসেম্বর
মধ্যরাতে। ৩৬টি কেন্দ্রের প্রায় সবগুলোই কমবেশী
ঝুকিপূর্ণ বিধায় আইনÑশৃংখলা রক্ষায় সেসব কেন্দ্রে
বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহনের কথা বলেছে পুলিশের দায়িত্বশীল
সূত্র। তবে বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের প্রচারনায় বাঁধা
দেয়া প্রসঙ্গে কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে
জানিয়ে যেকোন পরি¯িথতিতে আইনÑশৃংখলা রক্ষায়
কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের কথাও বলা হয়েছে। এমনকি
বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের প্রচারনায় বাঁধা দেয়া
প্রসঙ্গে কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলেও পুলিশের
একাধীক সূত্র দাবী করেছে।
ইভিএম ব্যবহার প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের
দায়িত্বশীল সুত্র থেকে ‘ভোটাররা যাতে সাচ্ছন্দে ভোট
দিতে পারেন সে লক্ষে সব ধরনের প্রচারনার’ কথা
জানিয়েছেন। ‘প্রতিটি ওয়ার্ডে সন্ধার পরে
মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে প্রদর্শনীরও ব্যাবস্থার কথা
জানিয়ে ২৫ ডিসেম্বর মাঠ পর্যায়ে প্রতিকি ভোট
প্রদানের মাধ্যমে ভোটারদেরকে হাতে কলমেও প্রশিক্ষন
দেয়ার কথা জানিয়েছেন বরিশালের আঞ্চলিক নির্বাচন
কর্মকর্তা।
তবে বিগত নির্বাচনগুলোর মত ২৮ ডিসেম্বর
দক্ষিণাঞ্চলের ৪টি পৌরসভার ভোট গ্রহন হবে কিনা তা
নিয়ে সংশয়ে আছেন একাধীক নির্ব্চানী পর্যবেক্ষক
গ্রুপ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন