ঢাকা সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৫ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

বড়দিনে কবে বাড়িতে ছিলেন, মনে নেই উইলিয়ামসনের!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

সংবাদ সম্মেলনে কত কঠিন সব প্রশ্নের উত্তরই না দিতে হয় ক্রিকেটারদের। অধিনায়ক হলে তো কথাই নেই, সম্ভাব্য একাদশ থেকে শুরু করে আরও কত কিছুর ব্যাখ্যা দিতে হয় তাঁদের। নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও ব্যতিক্রম নন। সেই উইলিয়ামসনই কিনা গতকাল সহজ এক প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে হিমশিম খেলেন। বাংলাদেশ সময় গত ভোর সাড়ে চারটায় শুরু হয়ে গেছে নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের প্রথম টেস্ট। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের এই টেস্টের আগে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন কিউই অধিনায়ক। সেখানেই এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, ‘উইলিয়ামসন সর্বশেষ কবে ক্রিসমাস কিংবা বড়দিন বাড়িতে উদযাপন করেছেন?’ একটু ইতস্তত করে উইলিয়ামসন বলেন, উত্তরটা তার জানা নেই। এরপর একটু ভেবে যে উত্তরটা দিলেন, তাতেও সরাসরি কিছু বলতে পারেননি নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান, ‘একবার মনে হয় থেকেছিলাম। সাধারণত ওই সময়ে ক্রাইস্টচার্চ কিংবা দেশের বাইরে থাকি। অনেকে আগের কথা।’

উইলিয়ামসনের আর দোষ কী! গত সাত মৌসুমে খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় এই উৎসবের সময় জাতীয় দলের সঙ্গে ছয়বারই বাড়ির বাইরে ছিলেন তিনি। কোন সালে বাড়িতে ছিলেন, সেটিই বলতে পারেননি কিছুদিন আগে সন্তানের বাবা হওয়া উইলিয়ামসন। তবে সালটি সম্ভবত ২০১৭। ওই বছর বড়দিনের পরদিন ক্রাইস্টচার্চে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের ওয়ানডে দলে ছিলেন না উইলিয়ামসন। ওয়ানডে সিরিজের দল থেকে ছুটি দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। এবার অবশ্য বাড়িতেই বড়দিনটা উদযাপন করবেন উইলিয়ামসন। ভোরে ম্যাচ শুরু হয়ে গেলেও শুক্রবার দিনটা বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে কাটানোর অনুমতি পেয়েছেন উইলিয়ামসন।
সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের কাছে অবশ্য পরিবারের চেয়ে ক্রিকেট মাঠে সময় কাটানোর গুরুত্বও কম নয়, ‘সন্তানই যে সবকিছুর ওপরে, সেটি তো আর বলতে হয় না। এরপর ক্রিকেটে চোখ বুলিয়ে বলতে হয়, ঘরের মাঠে বক্সিং ডে টেস্ট খেলার মতো বিশেষ কিছু আর কী আছে।’
বছরের বেশির ভাগ সময়ই বাড়ির বাইরে থাকা একজন খেলোয়াড়ের কাছে উৎসবের সময় পরিবারের কাছে থাকা কতটা কাক্সিক্ষত, সেটি পরিষ্কার উইলিয়ামসনের পরের কথায়, ‘বড়দিনটা তো বেশির ভাগ সময় বাড়ির বাইরেই কাটাতে হয়, থাকতে হয় হোটেলে হোটেলে; তাই এ সময়ে বাড়িতে থাকার অনুভ‚তি অন্য রকম। এ বছর পরিবারের সঙ্গে বড়দিন উদযাপন সত্যিই চমৎকার ব্যাপার। আমার মতো বাকিদের বেশির ভাগেরই পরিবারও আশপাশে থাকে। তাই উৎসব শেষে সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলতে নামাটা দারুণ ব্যাপার হবে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন