বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

৯ মাস ধরে বন্ধ ট্রেন চলাচল

ছাতক-সিলেট রেলপথ

কাজি রেজাউল করিম রেজা, ছাতক (সুনামগঞ্জ) থেকে : | প্রকাশের সময় : ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

সুনামগঞ্জের ছাতক-সিলেট রেলপথে ৯ মাস ধরে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে সারা দেশের সাথে এ রেলপথেও ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়। পরবর্তীতে সকল রেলপথ চালু হলেও আজ পর্যন্ত এটি চালু হয়নি। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন ট্রেনে যাতায়াতকারী এ অঞ্চলের যাত্রী সাধারণ। দ্রুত ট্রেন চালু করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।
জানা যায়, সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক একটি ব্যবসায়ীক কেন্দ্র। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য চলে আসছে সেই ব্রিটিশ আমল থেকে। ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে এ উপজেলাটি দেশ-বিদেশে শিল্পনগরী হিসেবে পরিচিত। এ হিসেবে ১৯৫৪ সালে ছাতক-সিলেটে ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলপথটি স্থাপিত হয়। বর্তমানে ছাতক থেকে সিলেটের ভাড়া ১০ টাকা। আগের তুলনায় ট্রেনের গতিও বৃদ্ধি পেয়েছে। ছাতক থেকে সিলেটে পৌঁছতে তার সময় লাগছে সর্বোচ্চ একঘণ্টা ১০ মিনিট। করোনাভাইরাসের কারণে সারা দেশের সাথে এ রেলপথে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। চলতি বছরের ২৩ মার্চ থেকে প্রায় ৯ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহী ট্রেনটি। সম্প্রতিক সময়ে সারা দেশে ট্রেন চলাচল চালু হলেও প্রাচীনতম এ রেলপথে ট্রেন চালু করা হচ্ছে না। যাত্রীরাও ট্রেনের সেবা পাচ্ছে না। ট্রেন পরিবহনে স্বল্প ভাড়ার পরিবর্তে এ অঞ্চলের মানুষ সড়ক পথে এখন গুনতে হচ্ছে অধিক ভাড়া। সরকারও রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কবে এ রেলপথে ট্রেন আবারও চালু হবে এমন প্রশ্নের উত্তর মিলছেনা কর্তৃপক্ষের কাছে। সাইফুল ইসলাম নামের একজন প্রাইভেট ব্যাংকের কর্মকর্তা বলেন, তিনি সিলেট শহর থেকে প্রতিদিন ট্রেনে ছাতক আসতেন। স্বল্প ভাড়ায় নিরাপদে যাতায়াত করতে অনেকটাই সুবিধা হতো। কিন্তু কয়েক মাস ধরে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় তিনি সড়ক পথে যাতায়াত করছেন।
ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন তালুকদার বলেন, অল্প খরচে নিরাপদে ছাতক থেকে সিলেটে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম রেলপথ। যখন সড়ক পথ ছিলনা তখন থেকে ছাতক-দোয়ারা ও কোম্পানীগঞ্জসহ এলাকার মানুষ ট্রেনে যাতায়াত করতেন। জমজমাট ছিল রেল স্টেশন ও আশপাশ এলাকা। তিনি বলেন করোনার কারণে বন্ধ হওয়া দেশের সকল ট্রেন আবার চালু হলেও এটি চালু না করায় এ অঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষগুলো সড়ক পথে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে চলাচল করছে। ট্রেন চালু, জনবল বৃদ্ধি, রেললাইন সংস্কারের সাথে ট্রেনের বগি ও স্টেশন আধুনিকায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তিনি জোর দাবি জানান।
ছাতকবাজার স্টেশন মাষ্টার আবদুল মতিন ভুইয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তার মুল দায়িত্ব আফজালাবাদ স্টেশনে। ছাতকবাজার স্টেশনে তাকে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। কবে ট্রেন চালু হবে এ বিষয়ে তার জানা নেই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন