রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১ কার্তিক ১৪২৮, ০৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পাওনা টাকা ফেরত চাই

পিকে হালদারে ক্ষতিগ্রস্ত আমানতকারীদের কান্নাভেজা আকুতি হাইকোর্টে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০৩ এএম

প্রশান্ত কুমার হালদার (পি.কে.হালদার)র হাতিয়ে নেয়া অর্থ ফেরত চেয়ে এবার কান্না ভেজা আকুঁতি জানিয়েছেন আমানতকারীরা। গতকাল রোববার হাইকোর্টে করা আবেদনে তারা আকুতি জানান। আবেদনকারীদের মাঝে যেমন রয়েছেন নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ। তেমনি রয়েছেন সাবেক প্রধান বিচারপতির মেয়ে এবং সংগীত শিল্পী।
পিকে হালদারের কারণে ধারাবাহিক লোকসানে থাকা শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং ২০১৪ সালের পর থেকে আমানতকারীদের কোনো লভ্যাংশ দিতে পারেনি। আবার ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই থেকে দেশের পুঁজিবাজারে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন বন্ধ। একপর্যায়ে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা বোর্ড ভেঙ্গে নতুন বোর্ড গঠন করে পর্যবেক্ষক নিয়োগ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। কিন্তু এতেও প্রতিষ্ঠানটির সার্বিক অবস্থার উন্নতি না হলে গত বছরের জুলাই মাসে প্রতিষ্ঠানটি অবসায়নের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

এমন দৈন্যদশায় পড়া এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে পিকে হালদারের নামে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকিাশিত সংবাদে বলা হয়, পিকে হালদার জালিয়াতির মাধ্যমে দেশের কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে নামে বেনামে ৩ হাজার ৬শ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন। যার ফলে প্রতিষ্ঠানগুলো দেউলিয়া হতে বসেছে। গ্রাহকের আমানতের টাকা ফেরত দিতে অপারগতা প্রকাশ করে।

এসবের মাঝেই পিকে হালদার গোপনে দেশ ছাড়ে। এক পর্যায়ে পিকের বিষয়ে স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে পিকে হালদারে দেশে ফিরিয়ে আনা ও তার গ্রেফতারে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা জানতে চান উচ্চ আদালত। পিকে হালদারের বিষয়ে রুল জারি হয়েছে জেনে হাইকোর্টের কাছে নিজেদের সীমাহীন কষ্টের কথা বলতে দুদক আইনজীবীর সাথে যোগাযোগ করেন পিপলস লিজিংয়ের আমানতকারীরা। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বিচারপতি মো.নজরুল ইসলাম তালুকদার এবং বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চকে বলেন, পিপলস লিজিং এর কয়েকজন আমানতকারী কিছু বলতে চান। একপর্যায়ে অনুমতি নিয়ে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে হাইকোর্টে নিজেদের দুর্দশার কথা বলেন চার আমানতকারী।

ভিডিও লিংকে যুক্ত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত আমানতকারী হিসেবে সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের কন্যা ড. নাশিদ কামাল আদালতে বলেন, মাই লর্ড, আমার বাবা এবং আমিসহ পরিবারের ৫ জন পিপলস লিজিং এ টাকা আমানত রেখেছি। আমরা সরল বিশ্বাসে আমাদের টাকাটা রেখেছিলাম। আমরা গণমাধ্যমে জেনেছি পিকে হালদার এখান থেকে টাকা নিয়ে গিয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রিত আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং। তাই এখানকার আমানতকারী হিসেবে আমি আমারা আমাদের টাকাটা ফেরত চাই। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র মো. শওকতউর রহমান হাইকোর্টকে বলেন, দেশটা কি স্বাধীন করেছিলাম এভাবে নিজে প্রতারিত হওয়ার জন্য? আমি আমার আমানতের টাকাটা ফেরত চাই।

সামিয়া বিনতে মাহবুব নামের এক আমানতকারী কান্না বিজড়িত হয়ে বলেন, আজ আমি একজন ক্যান্সারের রোগী। আমার এখন আর চাকরি নেই। করোনা আসার পর থেকে আমার স্বামীরও চাকরি নেই। আমি আর আমার স্বামী মিলে আমাদের জীবনের কষ্টার্জিত টাকা পিপলস লিজিং এ আমানত রেখেছিলাম। এখন আমারা আমাদের টাকা পাচ্ছি না!। এতটা অসহায় হয়ে গেছি যে, এবার বাচ্চাদের স্কুলে ভর্তি করাতে পারিনি। গত ১ বছর বাচ্চাদের একটু মাছ মাংস খাওয়াতে পারিনি। আমারা আর্থিক-মানুষিক কষ্টে মারা যাচ্ছি। আমারা এখন কার কাছে যাব? আপনাদের কাছে আকুল আবেদন আমাদের বাঁচান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
MOHAMMED ISMAIL KABIR AHMED ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:৩৯ এএম says : 0
DESH SHADIN KORECI EITA HOLO SHADHINATAR FALAFOL THANKS
Total Reply(0)
Engr Amirul Islam ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:২৬ এএম says : 0
These people are blessed by Bharat and league nothing will at best dramma and this country is a dramma theatre
Total Reply(0)
Md Monir Hossain ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৫:৪৪ এএম says : 0
এই দেশটাকে ধ্বংস করে দিয়েছে কিছু ..................রা এদেরকে ধরে এখনই আইনের আওতায় না আনলে ভবিষ্যৎ অন্ধকার বাংলাদেশের
Total Reply(0)
Mostafa Sarker ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৫:৪৪ এএম says : 0
আমার মনে হয় দুর্বল প্রশাসন ব্যাবস্থার কারনে দেশের এই অবস্থা
Total Reply(0)
Md Syed Alam ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৫:৪৫ এএম says : 0
দেশের অর্থনৈতিক হিসাব কিন্তু আজ না হয় কাল জাতি কে অবশ্যই দিতে হবে।
Total Reply(0)
Md AMIR HOSSAN ৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:০৪ এএম says : 0
STARTING AND FINISHING ALL PROCESS AND POLICY MAKERS MUST HAVE UNDER SUPERVISION SUDDENLY .FOLLOW WESERN COUNTRY .WE SHALL PROGRESS IN FAST .
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন