ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সউদীর প্রতি কাতার আমীরের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৯:৩৫ এএম

সউদী আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ এবং ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমানকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি।

উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার (০৫ জানুয়ারি) কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সংকট সমাধানের লক্ষে উপসাগরীয় দেশগুলো ‘সংহতি এবং স্থিতিশীলতা’ চুক্তিতে সই করেছে। সউদী আরবের আল উলায় জিসিসি সম্মেলনে এ চুক্তি সই হয়। সউদী ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এ তথ্য জানান।
জিসিসি শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেওয়ার সময় সউদী বাদশাহ এবং তার সঙ্গী প্রতিনিধিরা যে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছেন, সেজন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কাতারের আমির।

আল-উলা থেকে ফিরে সউদী বাদশাহ ও ক্রাউন প্রিন্সকে পাঠানো বার্তায় জিসিসি সম্মেলনে ভ্রাতৃত্বপূর্ণ পরিবেশ এবং সম্মেলন সফল করার প্রয়াসের জন্য প্রশংসা করেন শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি।

তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, এই সম্মেলনের ইতিবাচক ফলাফলগুলো জিসিসির পদযাত্রাকে শক্তিশালী করবে এবং উপসাগরীয় অঞ্চল যে হুমকির মুখোমুখি হয়েছে, সেসব মোকাবেলায় সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সংহতি বাড়িয়ে তুলবে।

২০১৭ সালে কাতারের সঙ্গে সউদী জোটের সংকট শুরু হয়। সোমবার (০৪ জানুয়ারি) এ সংকট সমাধানের ঘোষণা আসে মধ্যস্থতাকারী কুয়েতের কাছ থেকে। পরদিন মঙ্গলবার সম্মেলনে অংশ নিতে সউদী আরবে পৌঁছান কাতারি আমির। তাকে স্বাগত জানান সউদী ক্রাউন প্রিন্স।
মধ্যস্থতার জন্য কুয়েত এবং যুক্তরাষ্ট্রকে ধন্যবাদ জানিয়ে মোহাম্মদ বিন সালমান এক সভায় বলেন, এ চুক্তি উপসাগরীয়, আরব এবং মুসলিম দেশগুলোর মধ্যকার সংহতি এবং স্থিতিশীলতার নিশ্চিয়তা দেবে। যা সবার অংশগ্রহণের মাধ্যমে সম্ভব হয়েছে।

‘আঞ্চলিক সমৃদ্ধি এগিয়ে নেয়ার জন্য এ ধরনের ঐক্য খুবই জরুরি। পাশাপাশি আঞ্চলিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য। বিশেষ করে ইরান যখন পরমাণু এবং ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি এবং তাদের ষড়যন্ত্র এবং ভয়ংকর পরিকল্পনা নিয়ে আমাদের হুমকি দিচ্ছে।’ বলেন ক্রাউন প্রিন্স। সূত্র: সউদী গেজেট

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন