বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

একজন নারী নিরুপায় হয়ে তার স্বামীকে তালাক দিতে চায় তার দেনমোহরের টাকাও বাকী রয়ে গেছে। এখন সে কিভাবে শরীয়তসম্মতভাবে তার কাছ থেকে তালাক নিবে?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০২১, ৬:৫২ পিএম

উত্তর : শরীয়তসম্মতভাবে এই নারীর তালাক লাভের পদ্ধতি তিনটি। এক. স্বামীকে বলে রাজী করিয়ে দেনমোহর ছেড়ে দিয়ে কিংবা তার আরেক বিয়ের খরচ দিয়ে অথবা কোনোকিছু ছাড়া খোলাআ তালাকের ব্যবস্থা করা। এখানে স্বামী সম্মত হয়ে তাকে ছেড়ে দিবে। দুই. স্বামীর পক্ষ থেকে নিজেকে নিজে তালাক দিয়ে বিবাহবন্ধন ছিন্ন করার পদ্ধতি হাতে পাওয়া। যাকে তালাকে তাফবীজ বলে। যেটি বিবাহ রেজিষ্ট্রেশনের একটি ধারায় দেওয়া আছে। তিন. স্বামীকে ত্যাগ করার গ্রহণযোগ্য কারণ দেখিয়ে আদালতের দারস্থ হওয়া। এখানে কোনো মিথ্যা কারণ তৈরি কিংবা তাকে হয়রানি করা হারাম ও কবিরা গুনাহ। বাস্তব কারণ থাকলেই কেবল বিচারকের কাছে যাওয়া যায়। প্রচলিত সরকারী আইনে সরাসরি তালাকের ব্যবস্থা আছে, তবে শরীয়ত মানতে চাইলে শরীয়তসম্মত উপায়ই তালাশ করা উচিত।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Tahir ৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:৫৫ এএম says : 0
Shorkari ayin shoriot shommoto noy- Qur'an birodhi.
Total Reply(0)
নুর মোহাম্মদ মনির হোসেন ২০ এপ্রিল, ২০২২, ১০:৩৮ এএম says : 0
বিয়ের শুরুতে আমার বাবা মেয়েটি আমাকে দেখায়। পরে যখন মেয়েটি আমার পছন্দ হয় বিয়ে করবো বলে সিদ্ধান্ত নেই তখন তিনি এই বিয়েতে রাজি হয় না। আমি নিজে আমার কয়েক জন ছোট ভাই ও বোনকে নিয়ে বিবাহ করি। বিয়ের দিনে শ্বশুর বাড়ী থেকে লোকজন আমার বাড়ি আসলে আমার বাবা তাদের সাথে কথা বলেন না। আমাদের পারিবারিক জীবনে টুটি টাকি কথা নিয়ে মনোমালিন্য হতো। আমি নিজে একা বিয়ে করার জন্য আমার পরিবারের লোকজন আমার শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি দাওয়াত দিলে আমার (ছেলে) পরিবারের লোকজন দাওয়াত নিতেন না। আমার জনা মতে আমার শ্বশুড় ৩ বার আমার বাবাকে দাওয়াত দিয়েছেন। কিন্তু আমার বাবা আমার সাথে মনোমালিন্য তার জন্য যেতেন না। আমার বাবা, মা, ভাই, বোন, বোনজামাই সবাই আমার স্ত্রীকে ভালো চোখে দেখতো না। অপর দিকে আমার শ্বাশুড়ী অনেক রাগি সে সব সময় আমার পরিবারের লোকদের সাথে উগ্রভাবে কথা বলতো । এই দিকে আমার স্ত্রী নিজেও আমার কথা ঠিকমতো শুনতো না। তার মা সব সময় তার মেয়েকে সাহস দিতে। আমার স্ত্রী অন্যায় করলে তার মা কে বিচার দিলে সে বলতো মেয়েরা একটু এ রকম কাজ করেই । আমর স্ত্রী তার মা ও কাকার প্ররোচনায় আমাকে তালাক এর নোটিশ করে। নোটিশে লিখা আছে আমি নিজ নফসের উপর তালাকের এক তরফা উচ্চারণের মাধ্যমে তালাক গ্রহন করলাম। তার পর ৯০ দিন এর মাঝে ৩ বার নিতে যাই আসে নাই। এখন ৯০ দিন পার হয়ে গেছে ও আসতে চায় এখন ওকে নেওয়া যাবে। এখন সে তার ভুল বুঝতে পেরেছে আমার কাছে আসতে চায়। তার সাতে সংসার করা যাবে ?
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন