ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭, ১০ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মামলা-হুলিয়া দিয়ে আন্দোলন দমানো যাবে না

মানববন্ধনে মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

মামলা-হুলিয়া দিয়ে গণতন্ত্রের কোনো আন্দোলন দমানো যাবে না বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তারেক রহমান সাহেব একা নন। এই দেশের ১৬ কোটি স্বাধীনতাকামী, গণতন্ত্রকামী মানুষ আজকে তার (তারেক রহমান) সঙ্গে আছে। সুতরাং মিথ্যা মামলা দিয়ে, হুলিয়া দিয়ে গণতন্ত্রের কোনো আন্দোলনকে দমন করা যাবে না। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মহানগর উত্তর-দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা ‘ভুয়া-বানোয়াট-মিথ্যা’ রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় এই কর্মসূচির পাশাপাশি সারাদেশে জেলা ও মহানগরে একযোগে এই কর্মসূচি করেছে বিএনপি
মির্জা ফখরুল বলেন, তারেক রহমান সাহেবের বিরুদ্ধে যে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে এবং গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তা নতুন কোনো ঘটনা নয়। এদেশে গণতন্ত্রকে ধবংস করার জন্য এই সরকার অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে প্রায় ১২ বছর ধরে এখানে অত্যাচার-নিপীড়ন-নির্যাতনের একটা স্টিমরোলার চালিয়ে যাচ্ছে। তারা মনে করছে যে, এই অত্যাচার-নির্যাতন-মামলা-হুলিয়া দিয়ে এদেশের মানুষকে দমন করে রাখা যাবে কিন্তু তা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, এই সরকার গণবিরোধী সরকার, জনগণের বিরুদ্ধে, গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধবংস করে দিচ্ছে। এজন্যে সরকারকে সরাতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এদেরকে পরাজিত করতে হবে।
তিনি সরকারের প্রতি দাবি জানান, তারেক রহমান যার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার হুলিয়াসহ ৩৫ লাখ মানুষের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নিতে হবে এবং বেগম খালেদা জিয়াসহ আটককৃত সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দিতে হবে।

ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আপনারা চুরি এবং লুটপাট করে একটা ডাকাতির রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করেছেন এই বাংলাদেশে। কোভিড-১৯ এর মতো ভায়াবহ মহামারীতে লুটপাট বন্ধ করেননি। আরো কিভাবে লুটপাট করবেন-এখন ভ্যাকসিন আমদানির মধ্য দিয়ে লুটপাটের ষড়যন্ত্র করছেন। যেখানে ভ্যাকসিন ভারতে বিক্রি করছে ২ টাকা ৪০ পয়সা করে, সেখানে আপনারা বিক্রি করবেন ৫ টাকা করে বাংলাদেশের মানুষের কাছে। অর্থ্যাৎ এই টাকা সম্পূর্ণ আপনারা নিয়ে যাবেন।
স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আজকে আদালত, বিচার বিভাগ বলুন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীসহ, যত বাহিনী আছে সব একজনের হাতের মুঠায়। এই কর্তৃত্ববাদী সরকার ভিন দেশীদের দাসত্ব গ্রহণ করে ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করা এবং দেশের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে দেশটাকে আগের মতো তলাবিহীন ঝুড়ি বানানোর পায়তারা করছে। তাই আমাদের একটি-দুইটি মামলার প্রতিবাদ করে ক্ষান্ত হলে চলবে না, একটি সমাবেশের মধ্য দিয়ে আত্মতৃপ্তি প্রকাশ করলে চলবে না।

তিনি বলেন, জনগণ প্রস্তুত আছে। আমাদের কথার চেয়ে কাজ দরকার বেশি। জনগণ চায় আমরা রাস্তায় নামি। তারা আমাদের সাথে নামবে। সেকারণে দলকে ঐক্যবদ্ধ করার মধ্য দিয়ে পাড়ায়-মহল্লা-গ্রাম-গঞ্জে যে যেখানে আছেন তাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করুন। ঐক্যের ডাক দিয়ে বলুন-‘এক দফা এক দাবি, হাসিনা তুই করে যাবি’।
সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে শেখ হাসিনা বলেছিলেন যে, মালয়েশিয়ায় তারেক রহমানের মিল, ফ্যাক্টরি, কারকানা আছে। আপনি (শেখ হাসিনা) তো ১২ বছর ধরে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছেন। কই? তারেক রহমানের সেই মিল, ফ্যাক্টরি, কারাখানা কোথায়? আপনিতো একটারও ছবি দেখাতে পারলেন না। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যে মিথ্যা অভিযোগ করেছিলেন তা ক্ষমতায় বসে থেকেও প্রমাণ করতে পারেননি। কারণ তারেক রহমানের সততা দিনের আলোর মতোই প্রস্ফুটিত। আর শেখ হাসিনার কথা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং অপপ্রচার।

মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে ও দক্ষিণের কাজী আবুল বাশার ও উত্তরের আবদুল আলীম নকির পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নাজিম উদ্দিন আলম, মীর সরফত আলী সপু, আজিজুল বারী হেলাল, শিরিন সুলতানা, আবদুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম, শামীমুর রহমান শামীম, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, যুব দলের সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, মহিলা দলের সুলতানা আহমেদ, কৃষক দলের হাসান জাফির তুহিন, জাসাসের হেলাল খান, ছাত্রদলের ফজলুল রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন