ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বেক্সিমকো জনতা ব্যাংকের সর্বোচ্চ রফতানিকারক ও সেরা গ্রাহক

দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে পেরে আমরা গর্বিত : সালমান এফ রহমান

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

সর্বোচ্চ রফতানিকারক ও সেরা গ্রাহক হিসেবে মনোনীত হয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেড। জনতা ব্যাংক লিমিটেড এই মনোনয়ন দিয়েছে। ব্যাংকটির পরিচালনা পরিষদের ৬৪৮তম সভায় এ মনোনয়ন দেয়া হয়। গত ৬ জানুয়ারি সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্বোচ্চ রফতানিকারক ট্রফি ও সেরা গ্রাহক হিসেবে সম্মাননা স্মারক প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ব্যাংকের পক্ষ থেকে এই ট্রফি ও স্মারক তুলে দেয়া হবে। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. মুজিবুর রহমান মোল্লা এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে গত ১০ জানুয়ারি জনতা ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মো. শহিদুল হক স্বাক্ষরিত বেক্সিমকো গ্রুপের চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়। চিঠিতে বলা হয়েছে, ব্যাংকের হিসাব অনুসারে ২০২০ সালে বেক্সিমকো লিমিটেডের রফতানির পরিমাণ ছিল ২৩২৬ দশমিক ৫৪ কোটি টাকা এবং গ্রুপের সর্বমোট রফতানির পরিমাণ ছিল ৪৭১৩ দশমিক ৯১ কোটি টাকা। এ ছাড়া একই সময়ে বেক্সিমকো গ্রুপ প্রদত্ত পুন:তফসিলকৃত/পুনর্গঠিত ঋণের কিস্তির পরিমাণ ছিল ৪২৬ দশমিক ৬১ কোটি টাকা এবং গ্রুপ হতে ব্যাংকের সর্বমোট আয়ের পরিমাণ ছিল ৪৮৩ দশমিক ৯২ কোটি টাকা। আজ বিকাল সাড়ে তিনটায় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে ট্রফি ও সম্মাননা প্রদান করা হবে।

বেক্সিমকো গ্রুপের চেয়ারম্যানের প্রতিক্রিয়া
বর্ষসেরা গ্রাহক নির্বাচিত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় বেক্সিমকো গ্রুপের চেয়ারম্যান এ এস এফ রহমান বলেন, জনতা ব্যাংকের বর্ষসেরা গ্রাহক হিসেবে বেক্সিমকো গ্রুপ নির্বাচিত হওয়ার খবরে আমরা আনন্দিত। গত বছরে বেক্সিমকো গ্রুপ ৪৭০০ কোটি টাকার পণ্য রফতানি করেছে। এ কারণে জনতা ব্যাংকের সর্ববৃহৎ রফতানিকারক নির্বাচিত হয়েছে।

তিনি বলেন, সূচনালগ্ন থেকেই বেক্সিমকো একটি রফতানিমুখী প্রতিষ্ঠান। একটি বৃহৎ রফতানিকারক এবং দেশের অন্যতম বৃহৎ বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান হওয়ার মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে পেরে আমরা গর্বিত। কোভিড-১৯ মহামারি থেকে সৃষ্ট বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা সত্তে¡ও এই গ্রুপের বৃহৎ রফতানি এবং ‘রিপেমেন্টের’ যে সংখ্যা তা বেক্সিমকোর সক্ষমতা ও সফলতার সাক্ষ্য দেয়। একই সঙ্গে মহামারিকালে আমরা সরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীদের জীবন রক্ষাকারী ওষুধ রেমডেসিভির দান করা হয়েছে। এ ছাড়া করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে দেশজুড়ে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিতদের সুরক্ষা সামগ্রী এবং মেডিকেল সরঞ্জাম দেয়া হয়েছে।

জনতা ব্যাংকের ‘ক্লায়েন্ট অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হওয়ার জন্য আমরা সম্মানীত বোধ করছি। এই পুরষ্কার আমাদের কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতি এবং আমাদের গ্রুপ ও এর ৬৫ হাজার কর্মীর জন্য আনন্দদায়ক এক উৎসাহ। তারা আরো বড় ও সফল উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন