ঢাকা শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭, ২১ রজব ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পাকিস্তানে অসম্ভবকে সম্ভব করে কেটু শৃঙ্গ জিতলো শেরপা দল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:৩৮ পিএম

এতদিন ধরে শীতকালে অধরাই ছিল পাকিস্তানের কেটু শৃঙ্গ। পৃথিবীর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শৃঙ্গ এটি। বছরের অন্যান্য সময় কঠিন এ পর্বত জয় করা সম্ভব হলেও শীতকালে সেটি ছিল অসম্ভব। সেটি সম্ভব করে ইতিহাস গড়লেন নেপালি পর্বতারোহীর একটি দল।

কেটু অভিযাত্রী দলের প্রধান চ্যাং দাওয়া শেরপা পাকিস্তানের বেসক্যাম্প থেকে ফোনে কাঠমান্ডু পোস্টকে এ ঐতিহাসিক সাফল্যের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সারা বিশ্বে আরোহণের জন্য সবচেয়ে কঠিন শৃঙ্গ হিসেবে ধরা হয় ৮ হাজার ৬১১ মিটার উঁচু এই শৃঙ্গকে।

শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটায় কেটু শৃঙ্গকে জয় করেন নেপালি শেরপাদের একটি দল।

পাকিস্তান-চীন সীমান্তে অবস্থিত কারাকোরাম পর্বতশ্রেণির কেটু শৃঙ্গ এভারেস্ট থেকে মাত্র ২০০ মিটার নিচু। শীতকালে এই শৃঙ্গকে জয় করতে ৬০ জন পর্বতারোহী এগিয়ে আসেন।

শেষ পর্যন্ত সাফল্যের দেখা পান ১০ সদস্যের পর্বতারোহীর দলটি। নেপালি শেরপাদের ওই দলে ছিলেন নামকরা পর্বতারোহী নির্মল পুর্জা। তিনি ২০১৯ সালে মাত্র সাত মাসে ১৪টি শৃঙ্গ জয় করেছিলেন, যাদের উচ্চতা ৮ হাজার মিটারের বেশি।

এমন উচ্চতার শৃঙ্গ ১৪টিই আছে পৃথিবীতে। শীতে যার ১৩টিই জয় করেছিলেন নির্মল, শুধু কেটু ছাড়া। এবার সেটিও জয় করেছেন তিনি।

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে নির্মল বলেন, ‘মানবসভ্যতার ইতিহাসের অংশ হতে পেরে আমরা গর্বিত। আমরা দেখাতে পেরেছি দলীয় সমন্বয়, টিমওয়ার্ক ও পজিটিভ মানসিকতা থাকলে যা সম্ভব নয়, তাকেও স্পর্শ করা যায়।’

শীতকালে অধরা থাকা এই শৃঙ্গকে বলা হয় ‘হিংস্র পর্বত’। ১৯৫৩ সালে মার্কিন পর্বতারোহী জর্জ বেল এমন নাম দেন। তিনি বলেছিলেন, ‘এটা একটা এমন হিংস্র পর্বত যা সবসময় আপনাকে মেরে ফেলতে চাইবে।’

নামার সময় ভয়ংকর এই শৃঙ্গে অভিযাত্রীরা মৃত্যুর মুখে পড়েন বেশি। চ্যাং দাওয়া শেরপাও এমন এক দুঃসংবাদ দিলেন। নামার সময় দলের এক পর্বতারোহী নিহত হয়েছেন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন