ঢাকা শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৩ রজব ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জো বাইডেন শপথ নিলেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট

মোহাম্মদ সানাউল্লাহ | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিে জোসেফ আর বাইডেন জুনিয়র। একই সঙ্গে শপথ গ্রহণ করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। করোনাভাইরাস মহামারি ও সদস্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অনুসারীদের নানা ধরনের হুমকির কারণে দর্শনার্থী সমাগম সীমিত করা হয় এবং অনুষ্ঠানসূচিতে কাটছাঁট করা হয়।

জো বাইডেনকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস। পারিবারিক ১২৭ বছরের পুরনো বাইবেলে হাত রেখে জো বাইডেন শপথ নেন। তিনি হলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় ক্যাথলিক প্রেসিডেন্ট।

৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়ে জো বাইডেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঐক্য অটুট রাখার অঙ্গীকার করেন। একই সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের সঙ্গে শিথিল হয়ে যাওয়া সম্পর্ক পুনঃপ্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দেন।
এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিজের শেষ ভাষণে ডোনাল্ড ট্রাম্প জনগণের জন্য সব সময় লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। যৌথ ঘাঁটি অ্যান্ড্রুসে সংক্ষিপ্ত বিদায় অনুষ্ঠানে দেয়া ভাষণে এ মন্তব্য করেন তিনি। আগামী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জন্য শুভ কামনাও জানান তিনি। স¤প্রচারমাধ্যম সিএনএন’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের শত বছরেরও বেশি সময়ের প্রথা ভেঙে পরবর্তী প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠান হাজির না হওয়ার ঘোষণা আগেই দিয়ে রেখেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। জানিয়ে দিয়েছেন, বাইডেন শপথ নেয়ার আগেই হোয়াইট হাউজ ছেড়ে যাবেন তিনি। সেই অনুযায়ী হোয়াইট হাউজ থেকে ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্পকে নিয়ে বেরিয়ে যৌথ ঘাঁটি অ্যান্ড্রুজে যান তিনি। সেখানে এক সংক্ষিপ্ত বিদায় অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন তিনি।

অ্যান্ড্রুজে সমবেত হওয়া পরিবারের সদস্য এবং কর্মচারীদের উদ্দেশে দেয়া ভাষণে ট্রাম্প বলেন, ‘আপনারা চমৎকার মানুষ। এটা একটা মহান, মহৎ দেশ। আপনাদের প্রেসিডেন্ট হতে পারা আমার জন্য সবচেয়ে সম্মানের এবং মর্যাদার।’

ট্রাম্প বলেন, আপনাদের জন্য সব সময় লড়াই চালিয়ে যাবো। সবকিছু পর্যবেক্ষণ করবো, সবকিছু শুনবো আর আপনাদের বলতে থাকবো যে এই দেশের ভবিষ্যৎ ভালো হতে পারবে না। আমি নতুন প্রশাসনের জন্য শুভ কামনা রাখছি। আমি মনে করি তারা বিপুল সফলতা পাবে। সত্যিই দর্শনীয় কিছু করার জন্য তারা ভিত্তি প্রস্তুত পাবে।’ এছাড়াও ট্রাম্প ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স, সেকেন্ড লেডি কারেন পেন্স এবং কংগ্রেসকে ধন্যবাদ জানান।

এদিকে মঙ্গলবার ছিল হোয়াইট হাউসে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শেষ কর্মদিবস। বিদায় বেলাতে রাজনৈতিক প্রতিদ্ব›দ্বী জো বাইডেনের নাম উচ্চারণ না করলেও তার প্রশাসনের সাফল্য কামনা করেছেন ট্রাম্প। মঙ্গলবার একটি ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, ‘এ সপ্তাহে আমরা নতুন প্রশাসনের সূচনা করব। আমেরিকাকে সুরক্ষিত এবং সমৃদ্ধ রাখতে তার সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করুন।’

বিদায়ী ভাষণে ডেমোক্র্যাট দলের ভাবী প্রেসিডেন্টের উদ্দেশে রিপালিকান দলের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘আমাদের শুভকামনা জানাই এবং ওদের ভাগ্য সুপ্রসন্ন হোক।’ সেই সঙ্গেই বলেন, ‘আমি এক দশকের মধ্যে প্রথম প্রেসিডেন্ট, যার আমলে কোনও নতুন যুদ্ধ শুরু হয়নি।’

নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য নির্বাচনী লড়াইয়ে বাইডেনের কাছে পরাজিত হলেও তা স্বীকার করতে চাননি ট্রাম্প। বাইডেন শিবির ৩০৬টি ইলেক্টোরাল কলেজের দখল নিলেও তা ‘চুরি’ করে নেয়া হয়েছে বলে বার বার দাবি করেছেন। এমনকি, ব্যক্তিগত স্তরেও বাইডেনকে এক বারের জন্য অভিনন্দন জানানি। ট্রাম্পের কাছে থেকে এখনও পর্যন্ত ওভাল অফিসে প্রথামাফিক চায়ের আমন্ত্রণও পাননি ভাবী প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

তবে বিদায়ী ভাষণে সুর নরম করেছেন ট্রাম্প। আমেরিকার প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, ট্রাম্পের বিদায়ী ভাষণের ভিডিও তারা পরে প্রকাশ করবে। তবে তার ভাষণের যে সারাংশ প্রকাশ্যে এসেছে, তাতে শোনা গিয়েছে নিজের প্রশাসনের প্রশংসাও।

বিদায়বেলায় আত্মবিশ্বাসী ট্রাম্পের বিপরীতে বেশ আবেগপ্রবণ দেখা গিয়েছে তার প্রতিদ্ব›দ্বী বাইডেনকে। ওয়াশিংটনে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উড়ে যাওয়ার আগে ডেলাওয়্যারে নিজের শহর উইলমিংটনে নিজের প্রয়াত ছেলে বিউ-র স্মৃতিচারণ করতে দেখা গিয়েছে তাকে। সূত্র : নিউ ইয়র্ক টাইমস, সিএনএন, বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন