ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭, ১২ রজব ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

৬ মাসে রাজস্ব আয় ২৬১ কোটি টাকা

রেলপথে পণ্য আমদানি

বেনাপোল অফিস : | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

বেনাপোল বন্দর দিয়ে রেলপথে চলতি অর্থ বছরের ৬ মাসে ২৬১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় করেছে সরকার। অন্যদিকে রেল কর্তৃপক্ষ ভাড়া বাবদ ২ কোটি ৮৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা আয় করেছে। বেলপথে এসময় পণ্য আমদানি হয়েছে ৮২২ কোটি টাকা। যার পরিমান ২ লাখ ৩৯ হাজার ৪৫৪.৩ মেট্রিক টন। তবে চলতি অর্থ বছরের শেষে এ পথে দিগুণ পরিমান রাজস্ব ও ভাড়া আদায় হবে বলে জানান বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শাহিদুজ্জামান।

বেনাপোল রেলস্টেশন সূত্রে জানা যায়, বেনাপোল স্থলবন্দর রেলপথে চলতি ২০২০-২১ অর্থ বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ছয় মাসে ভারত থেকে পণ্য আমদানি হয়েছে ২ লাখ ৩৯ হাজার ৪৫৪.৩ মেট্রিক টন। যা থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ১১ কোটি ৮৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা। এদিকে গত বছরের ২০১৯-২০ অর্থ বছরে এ পথে ভারত থেকে পণ্য আমদানি হয়েছে ১ লাখ ৮৪ হাজার ৭৩ দশমিক৯ মেট্রিক টন। যা থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ৮ কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শাহিদুজ্জামান জানান, বর্তমানে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে স্থলপথের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেলপথে পণ্য আমদানি হচ্ছে। এতে করে বন্দরের রেল ইয়ার্ড না থাকায় পণ্য আমদানি কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। তবে ইতোমধ্যে বন্দরে দুটি রেল ইয়ার্ড নির্মাণের ভিত্তি স্থাপনা করা হয়েছে। আশাকরি খুব শিগগিরই এ সমস্যা সমাধান হবে। তিনি আরো জানান, আগে এপথে শুধুমাত্র পাথর ও সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল আমদানি হতো। বর্তমানে এ পথে ছোট পিকআপ ট্রাক্টর, পাথর, সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল, ভুট্টা, গম, শুকনা মরিচ, জিরা, আদাসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য আমদানি হচ্ছে। তবে এভাবে যদি স্থলপথের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেলপথেও পণ্য আমদানি হয় তাহলে এবছর রেলখাতে সরকারের রাজস্ব দিগুণ আদায় হবে বলে জানান তিনি।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, আমাদের দেশের সব থেকে বড় বাণিজ্যিক কেন্দ্র ভারত। হঠাৎ করে মহামারি করোনাভাইরাস শুরু হলে এর সংক্রমণ রোধে পেট্রাপোল-বেনাপোল বন্দরের স্থলপথে পণ্য আমদানি রফতানি বাণিজ্য বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। এতে করে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য স্থবির হয়ে পড়ে। পরবর্তীকারে আমদানি-রফতানি সচল করতে রেলপথে সব ধরণের পণ্য আমদানি চালু করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে রেলপথে সব ধরনের পণ্য আমদানি সচল রয়েছে। এতে করে গত বছরের তুলনায় এবছর রেলখাতে সরকারের দিগুণ রাজস্ব আদায় হবে বলে তিনি জানান।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের ডেপুটি কমিশনার এস এম .শামীমুর রহমান জানান, রেলপথে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানিকারকরা পণ্য আমদানি করতে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী। গত ছয় মাসে সরকার ২৬১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় করেছে। তবে চলতি অর্থ বছরে এটি বেড়ে দ্বিগুণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন