ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭, ১২ রজব ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

তামিমের চোখ পয়েন্টে সিমন্সের চাই রান

শেষ ওয়ানডে আজ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

প্রতিটি ম্যাচই হতে হবে অর্থবহ, সবকটি ম্যাচই গুরুত্বপ‍র্ণ। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ চালুর পেছনে এটিই ছিল আইসিসির ম‚ল ভাবনা। সেটির কার্যকারিতা ভালোভাবেই ধরা পড়ছে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে। সিরিজ জয় নিশ্চিত হওয়ার আগে বেশির ভাগ আলোচনা থাকত হোয়াইটওয়াশ ঘিরে। এখন ‘হোয়াইটওয়াশ’ শব্দটির নাম-গন্ধ নেই, আকাক্সক্ষাজুড়ে কেবল আরও ১০ পয়েন্ট।
২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি জায়গা করে নিতে প্রতিটি ম্যাচেরই পয়েন্ট হবে গুরুত্বপ‚র্ণ। সিরিজ হেরে যাওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ ফিল সিমন্স বলেছিলেন, শেষ ম্যাচ থেকে অন্তত ১০টি পয়েন্ট পেতে মরিয়া তার দল। সিরিজ জয়ী অধিনায়ক তামিম ইকবালের কণ্ঠেও শেষ ম্যাচের আগে ফুটে উঠল একই তাড়না, ‘আমরা সিরিজ জিতে গেছি বটে। তবে আরও ১০টি পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ আছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম দুই ম্যাচে ততটা ভালো খেলতে পারেনি। তবে তারা বিপজ্জনক দল ও যে কোনো সময় ঘুরে দাঁড়াতে পারে। আশা করি, আমাদের এই ধারাবাহিকতা চলতে থাকবে। কালকের ম্যাচ গুরুত্বপ‚র্ণ। যেটা বলেছি, সিরিজ জিতেছি, কিন্তু আরও ১০ পয়েন্ট পাওয়ার আছে।’

স্বাগতিক ভারত ও এই সুপার লিগের অন্য শীর্ষ ৭ দল সরাসরি সুযোগ পাবে ২০২৩ বিশ্বকাপে। অন্য দুটি দলকে জায়গা করে নিতে হবে জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠেয় বাছাইপর্ব উতরে। এই সিরিজ দিয়েই সুপার লিগে পথচলা শুরু করেছে বাংলাদেশ। ২ ম্যাচ থেকে তামিমদের প্রাপ্তি প‚র্ণ ২০ পয়েন্ট। ৬ ম্যাচ খেলে ৪ জয়ে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত শীর্ষে আছে অস্ট্রেলিয়া।

এদিকে প্রথম দুই ম্যাচে লড়াইয়ের জন্য স্কোরবোর্ডে যথেষ্ট রান পাননি বোলাররা। উভয় ম্যাচে দল গুটিয়ে গেছে দেড়শর নিচে। হোয়াইটওয়াশড হওয়া এড়াতে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ব্যাটসম্যানদের এগিয়ে আসার আহŸান জানালেন ফিল সিমন্স। এবার অন্তত ২৩০-২৫০ রান চান ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ।
মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচে ১২২ রানের পর দ্বিতীয়টিতে ১৪৮ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সঙ্গী হয় যথাক্রমে ৬ ও ৭ উইকেটের হার। এই সিরিজ দিয়েই আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে যাত্রা শুরু করে দুই দল। টানা দুই জয়ে বাংলাদেশ তুলে নিয়েছে ২০ পয়েন্ট। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এখনও খুলতে পারেনি পয়েন্টের খাতা।

আজ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে হবে শেষ ম্যাচ। শনিবার চট্টগ্রাম পৌঁছার পর সিমন্স ব্যাটসম্যানদের কাছে জানিয়ে দিলেন তার চাওয়া, ‘আমরা এখানে এসেছিলাম ৩০ পয়েন্টের জন্য। এখনও এই সিরিজ থেকে ১০ পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ আছে আমাদের। সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো উন্নতি করা। ১২২ রানের পর আমরা ১৪৮ করেছি। কিন্তু আমাদের ২৩০-২৫০ রান করতে হবে, যাতে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করতে পারি। বোলারদের লড়াই করার জন্য তো কিছু দিতে হবে... অবশ্যই ১০ পয়েন্ট চ‚ড়ান্ত লক্ষ্য।’

করোনাভাইরাস শঙ্কা ও ব্যক্তিগত কারণে বাংলাদেশ সফরে আসেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের একগাদা শীর্ষ ক্রিকেটার। প্রথম দুই ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের হয়ে ওয়ানডে অভিষেক হয় সাত জনের। তাদের জন্য সিরিজটিকে বড় সুযোগ হিসেবে দেখছেন সিমন্স, ‘আমার চেয়ে দলের কাছে এটি আরও বেশি গুরুত্বপ‚র্ণ। এই পর্যায়ে তারা কী করতে পারে, তা দেখানোর সুযোগ এটি। ২০২৩ বিশ্বকাপ, শ্রীলঙ্কা সিরিজ এবং এর পরেও দলে জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ তাদের জন্য।’


সাগরিকায় এবার সাদাওয়াশের হাতছানি
ওয়ানডে, ক্রিকেট
রুমু, চট্টগ্রাম ব্যুরো
জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম বাংলাদেশ দলের জন্য লাকি ভেন্যু। এই ভেন্যুতে ১৯ টি ওয়ানডে ম্যাচ হয়েছে। তার মধ্যে ১২ টিতে মিলেছে জয়। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে টাইগারদের জন্য এই ভেন্যু ফেভারিট। তাছাড়া ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল এ মাঠে খেলতে গিয়ে করেছিল মাত্র ৬১ রান। দীর্ঘ ৯ বছর পর ক্যারিবীয়রা ফের খেলতে এল সেই দু:স্বপ্নের ভেন্যুতে। এবার তারা সেই লজ্জা এড়াতে পারবে কিনা তাই বড় প্রশ্ন। তবে চট্টগ্রামের উইকেট বরাবরই ব্যাটিং সহায়ক। দেখে শুনে খেলতে পারলে ব্যাটসম্যানরা ভালো রান পেয়ে থাকেন।

এরইমধ্যে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ঢাকায় অনুষ্ঠিত দুই ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পুরো ৫০ওভারও খেলতে পারেনি তারা। চট্টগ্রামে শেষ ওয়ানডেতে তাই তাদের সামনে ঘুরে দাঁড়নোর সুযোগ। অপরেিদক সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে একেবারেই ফুরফুরে মেজাজে টাইগাররা। তাদের সামনে হোয়াইট ওয়াশের হাতছানি। তবে ক্যারিবীয়দের হালকাভাবে নিচ্ছে না তারা। আজকের ম্যাচটিও বাংলাদেশ জিততে পারলে তা টেস্টের জন্য যোগাবে বাড়তি রসদ।

আগের দুই ম্যাচে বাংলাদেশ সহজ জয় পাওয়ায় অনেক ব্যাটসম্যানই খেলতে পারেনি। তাই আজ ১৮ জনের দলে থাকা বাকিদের খেলানোর একটা সুযোগ তৈরি হয়েছে। একাধিক পরিবর্তন নিয়ে টাইগাররা খর্ব শক্তির প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে পারে। তবে বিশ্বকাপ খেলতে হলে পয়েন্ট বাড়াতে হবে। তাই এই ম্যাচও জিততে চায় বাংলাদেশ। সেই হিসেবে দলের সিনিয়রদের রেখে সুযোগ দেয়া হতে পারে কয়েকজন তরুণকে। এর মধ্যে শরীফুল ইসলাম ও মেহেদী হাসানের অভিষেক ঘটতে পারে। এছাড়া ভালো করতে না পারা রুবেল হোসেনের পরিবর্তে মাঠে নামানো হতে পারে তাসকিনকে। তিন নম্বর পজিশনে শান্ত’র পরিবর্তে আসতে সৌম্য সরকার। সেলক্ষ্যে গতকাল জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সাকিব, মুশফিক, তামিমসহ সবাইকে কঠোর অনুশীলনে দেখা গেছে। বোলিংয়ে তাসকিন, রুবেল, হাসান মাহমুদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ করেছেন কঠোর পরিশ্রম। ঝালিয়ে নেয়া হয় দলের সবাইকে।

এদিকে বিকালে অনুশীলনে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ঢাকার ব্যাটিং ব্যর্থতা ঘুঁচিয়ে তারাও বড় স্কোর করতে চায় ।মাঠে নেমেই হালকা শারীরিক কসরত শেষে ক্যারিবীয়রা নেমে পড়ে ব্যাটিংয়ে । দুই গ্রæপে বিভক্ত হয়ে দীর্ঘ সময় ধরে চলে তাদের ব্যাটিং অনুশীলন। শেষ ম্যাচটি তাদের জন্য সন্মান রক্ষার লড়াই।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন