ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৩ রজব ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন ঢাকায়

কাল থেকে অনলাইনে নিবন্ধন শুরু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

এবার সরকারি অর্থায়নে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মাধ্যমে ৫০ লাখ ডোজ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন ঢাকায় এসেছে।

গতকাল ভারতের মুম্বাই থেকে ভ্যাকসিনবাহী এয়ার চার্টার ফ্লাইট শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। তারপর করোনার ভ্যাকসিন বিমানবন্দর থেকে গাজীপুরের টঙ্গীতে অবস্থিত বেক্সিমকোর ফার্মাসিটিক্যালসের ওয়্যারহাউজে নেওয়া হয়েছে। ওয়্যারহাউজে রেখে ভ্যাকসিনগুলো যাচাই-বাছাই করা হবে। এরপর ভ্যাকসিনগুলো পাঠানো হবে প্রতিটি জেলায়। এ প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হতে আরও চার-পাঁচদিন লাগবে বলে জানিয়েছেন সংসদ সদস্য ও বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান পাপন। এর আগে, গত ২০ জানুয়ারি বাংলাদেশকে শুভেচ্ছাস্বরূপ সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২০ লাখ ডোজ করোনার টিকার পাঠায় ভারত।

কাল থেকে অনলাইনে নিবন্ধন শুরু
আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এরপর টিকা গ্রহীতাদের অনলাইনে নিবন্ধন শুরু হবে। গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আয়োজিত ‘কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন অবহিতকরণ’ অনুষ্ঠানে এ উপলক্ষে তৈরি ওয়েব অ্যাপলিকেশন কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ‘সুরক্ষা’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। অবহিতকরণ অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমেদ কায়কাউস, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদফতরের প্রোগ্রামারদের একটি দল নিজস্ব উদ্যোগ ও ব্যবস্থাপনায় কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ‘সুরক্ষা’ সফটওয়্যারটি তৈরি করেছে। সুরক্ষা সফটওয়্যারটি সরকারের কোনও অর্থ ব্যয় ছাড়া তৈরি করা হয়েছে এবং এটি ব্যবহারের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরকে সরবরাহ করা হচ্ছে। নাগরিক নিবন্ধন ও ভ্যাকসিন প্রদানসহ ভ্যাকসিশন কার্যক্রমের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় সুরক্ষা সফটওয়্যারটি স্বাস্থ্য অধিদফতর ব্যবহার করতে পারবে। সিস্টেমটির উন্নয়ন এবং পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদফতর, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), এটুআই এবং স্বাস্থ্য অধিদফতর এক সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন