শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রাজনীতিতে অন্য দলের টিকে থাকা দুরুহ হয়ে পড়েছে -মতবিনিময় সভায় জিএম কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:৪৪ এএম

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি বলেছেন, দেশের মানুষ নির্বাচনের প্রতি অনীহা প্রকাশ করেছে। মানুষ এখন আর নির্বাচনে ভোট দিতে যায় না। ক্ষমতা গ্রহণের মাধ্যমে মানুষের সেবা করতেই রাজনৈতিক দলগুলোর রাজনীতি। আর ক্ষমতা গ্রহণের একমাত্র পথ হচ্ছে নির্বাচন। কিন্তু এখন শুধু একটি দলই নির্বাচনে জয়লাভ করছে। তাই অন্যান্য দলগুলোর রাজনীতিতে টিকে থাকাই দুরুহ হয়ে পড়ছে।

গতকাল বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে গাজীপুর জেলা জাতীয় পার্টি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। জিএম কাদের বলেন, নির্বাচন যেমনই হোক জাতীয় পার্টি প্রতিটি নির্বাচনে অংশ নেবে। নির্বাচনে চ্যালেঞ্জ ছাড়া কাউকে ছেড়ে দেয়া হবে না। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকবে জাতীয় পার্টি। যারা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কাজ করবে তাদের জাতীয় পার্টি থেকে বহিস্কার করা হবে।

তিনি আরো বলেন, ১৯৯০ সালের পর আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে যা স্বৈরতন্ত্র। সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে একটি দল সরকার গঠন করে সেই দলের প্রধান সংসদ ও সরকার প্রধান হন। সংবিধানের ৭০ ধারার কারণে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের বাইরে সরকারদলীয় সদস্যরা সংসদে ভোট দিতে পারেন না। তাই প্রধানমন্ত্রী যা চান তাই পাশ হয়, তিনি যা চাননা তা পাশ হয়না।

দেশের প্রতিটি নাগরিককে বিনামূল্যে করোনা টিকা সরবরাহের দাবি জানিয়ে বলেন, এখনো পর্যন্ত ভ্যাকসিন নিয়ে সরকারের নীতিমালা সাধারণ মানুষের কাছে পরিস্কার নয়। সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা নেই। মানুষ সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসার ওপর আস্থা রাখেনা। সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরাই বেসরকারীভাবে চিকিৎসা দিচ্ছে। কিন্তু অতিরিক্ত টাকা খরচ করে বেসরকারী ব্যবস্থাপনায় দেশের মানুষের চিকিৎসা নেয়া সম্ভব হয়না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আব্দুস সবুর আসুদ, আজম খান, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. গোলাম মোস্তফা, ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, মোস্তফা আল মাহমুদ, হুসেইন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ, তারেক এ আদেল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন মঞ্জু, এনাম জয়নাল আবেদীন, আনোয়ার হোসেন তোতা, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিরু, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আহাদ ইউ চৌধুরী শাহীন প্রমূখ।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
Shafiq Ahmed ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:১৬ এএম says : 0
রাজনীতিতে নাকি মহাজোটে
Total Reply(0)
Edrish Ali Talukder ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:১৬ এএম says : 0
সমস্যা কি আপনারা থাকলেই চলবে
Total Reply(0)
রাজিব ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:১৬ এএম says : 0
এতদিনে বুঝলেন কাকা....!
Total Reply(0)
তোফাজ্জল হোসেন ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:১৭ এএম says : 0
কোনো দেন দরবার নিয়ে সমস্যা হয়ছে মনে হয়।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন