রোববার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

করোনার নতুন ধরন ঠেকাতে আরেকটি কার্যকর টিকার উদ্ভাবন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জানুয়ারি, ২০২১, ৩:২৮ পিএম

এক পরীক্ষায় দেখা গেছে যে, করোনাভাইরোসের নতুন একটি ভ্যাকসিন ৮৯ দশমিক ৩ শতাংশ কার্যকর। নোভাভ্যাক্স উদ্ভাবিত এই টিকাটি ব্রিটেনে পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইনটির বিরুদ্ধেও কার্যকর বলে জানা গেছে। যুক্তরাজ্য এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের তিনটি টিকা জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে। এর মধ্যে একটি অক্সফোর্ড-আস্ট্রাজেনেকা, অপরটি ফাইজার-বায়োএনটেক এবং তৃতীয়টি ঔষধ কোম্পানি মর্ডানার টিকা। -বিবিসি বাংলা

নোভাভ্যাক্সের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যে তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পর দেখা গেছে তাদের টিকা ৮৯ দশমিক ৩ শতাংশ কার্যকর। এই ট্রায়ালে ১৮ থেকে ৮৪ বছর বয়সী ১৫ হাজার মানুষ অংশ নেয়, যাদের ২৭ শতাংশ মানুষের বয়স ছিল ৬৫ বছরের বেশি। দক্ষিণ আফ্রিকাতে বেশিরভাগ মানুষ করোনাভাইরাসের একটি নতুন ধরনে আক্রান্ত। সেখানে চালানো ট্রায়ালে দেখা গেছে, যাদের এইচআইভি নেই তাদের ক্ষেত্রে এটি ৬০ শতাংশ কার্যকর হয়েছে। নোভাভ্যাক্স-এর প্রধান নির্বাহী স্ট্যান অ্যার্ক বলেছেন যে যুক্তরাজ্যে ট্রায়ালের ফলাফল “চমৎকার” এবং “ততটাই ভালো যতটা আমরা আশা করেছিলাম”। আর দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাপারে তিনি বলেছেন যে সেখানকার ফলাফল মানুষের প্রত্যাশার চেয়ে বেশি ছিল।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এই ‘সুখবর’কে স্বাগত জানিয়েছেন এবং বলেছেন যে যুক্তরাজ্যের ঔষধ নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ এখন এই ভ্যাকসিন পরীক্ষা করে দেখবে। যুক্তরাজ্য এরই মধ্যে এই টিকার ছয় কোটি ডোজ কেনার জন্য আদেশ দিয়েছে, আর এই টিকা তৈরি হবে স্টকটন-অন-টিজ শহরে। সরকার বলছে, যুক্তরাজ্যের মেডিসিন অ্যান্ড হেলথ কেয়ার প্রোডাক্টস রেগুলেটরি এজেন্সির অনুমোদন পেলে চলতি বছরের মাঝামাঝি সময় থেকেই এই টিকার প্রয়োগ শুরু করবে দেশটি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেছেন, যদি নতুন এই টিকা অনুমোদন পেয়ে যায়, তাহলে এনএইচএস এটি প্রয়োগ শুরু করতে প্রস্তুত আছে। তিনি বলেন, “এটি একটি ইতিবাচক খবর। যদি মেডিসিন নিয়ন্ত্রকরা এটির অনুমোদন দেয়, তাহলে নোভাভ্যক্স ভ্যাকসিন আমাদের টিকাদান কর্মসূচীকে জোরদার করবে এবং এই ভয়াবহ ভাইরাস মোকাবেলায় এটি হবে আরেকটি অস্ত্র”। আমি গর্বিত যে যুক্তরাজ্য আরেকটি উদ্ভাবনে সামনের সারিতে রয়েছে। আমি মেধাবী বিজ্ঞানী এবং গবেষকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই এবং একই সাথে যে হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবী ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিয়েছেন, তাদেরকেও ধন্যবাদ জানাই।

নোভাভ্যাক্স ট্রায়ালের প্রধান ইনভেস্টিগেটর অধ্যাপক পল হিথ বলেন, এই ফলাফল খুবই রোমাঞ্চকর, যা দেখাচ্ছে যে টিকাটি বেশ কার্যকর এবং নিরাপদ। আরও গুরুত্বপূর্ণ হল, যুক্তরাজ্যে ভাইরাসের নতুন যে ধরণটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে, তার বিরুদ্ধে এটি কার্যকর। ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ডনের এক্সপেরিমেন্টাল মেডিসিনের অধ্যাপক পিটার ওপেনশ বলেন, যুক্তরাজ্যে ট্রায়ালে এই ভ্যাকসিনের যে ফলাফল দেখা গেছে তা ‘চমৎকার’, কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার পরীক্ষায় যে এটি কিছুটা কম কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে, সেটা ‘উদ্বেগের’।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন