ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ০৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কৃষককে মারপিট করে পরিত্যক্ত বাড়িতে আটকে রাখার অভিযোগ

তাড়াশে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ২:০১ পিএম

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে তালম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জুয়েল ও কুন্দাশন ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল আজিজের বিরুদ্ধে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর গোবিন্দ চন্দ্র সরকার নামে এক সত্তুর বছর বয়সী কৃষক ও তার ছেলে সনাতন চন্দ্র সরকারকে (৪০) মারধর করে পরিত্যক্ত বাড়িতে আটকে রাখায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার সন্ধায় কৃষক গোবিন্দ সরকার বাদি হয়ে এ অভিযোগ দেন।

তাড়াশ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফজলে আশিক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ঘটনার তদন্তু করে আইনানুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, (২৮ জানুয়ারি) গত শনিবার দুপুরে আওয়ামীলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম জুয়েল ও আব্দুল আজিজ দেশীগ্রাম ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামের শ্রী গোবিন্দ চন্দ্র সরকারের তফশীলভুক্ত ১ একর জমির বোরো ধান নষ্ট করে দেওরা গ্রাম থেকে তাদের কুন্দাশন গ্রামে যাতায়াতের জন্য জমির মধ্যে মাটি ফেলে রাস্তা নির্মানের চেষ্টা করেন। কিন্তু কৃষক গোবিন্দ চন্দ্র সরকার ও তার ছেলে সনাতন চন্দ্র সরকার বাধা দিলে ঐ দুই আওয়ামীলীগ নেতা ও তার কয়েকজন কর্মী কিল ঘুষি-মারেন। এক পর্যায়ে বাপ-ছেলেকে টেনে হেঁচরে দেওরা গ্রাম থেকে আওয়ামীলীগ নেতার কুন্দাশন গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সাত থেকে আট ঘন্টার মতো একটি পরিত্যক্ত ঘরে আটকে রেখে রাতে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ছেড়ে দেন।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নেতা জোত্যিষ চন্দ্র মাহাতো জানান, আগেও ঐ দুই আওয়ামীলীগ নেতা জোরপূর্বক সনাতন চন্দ্র সরকারসহ বেশ কয়েকজন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কৃষকের জমির মধ্যে মাটি ফেলে রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করেন। তখনো ভুক্তভোগী দেওরা গ্রামের কৃষরা বাধা দেয় ও অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাউল করিম বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযুক্ত তালম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জুয়েল ও কুন্দাশন ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল আজিজ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নির্মানকৃত রাস্তা ভেঙে দিয়েছেন কৃষক গোবিন্দ চন্দ্র সরকার ও তার ছেলে সনাতন সরকার। কিন্তু তাদের কিছুই বলা হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন