ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ২৭ শাবান ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

হাইকোর্টে সব আসামি খালাস

পিরোজপুরে কলেজছাত্র বাদল হত্যা মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

পিরোজপুর ভান্ডারিয়ার বাদল সরদার হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত চার আসামিকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ এবং বিচারপতি এএসএম আব্দুল মোবিনের ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। খালাসপ্রাপ্তরা হলেন, ভান্ডারিয়া উপজেলা উত্তর ভিটাবাড়িয়া গ্রামের শহীদ শিকদার, দুলাল শিকদার, বাদল শিকদার, নিজাম শিকদার, ভিটা বাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার সালাম সরদার, হারুন শিকদার ও মিনু শিকদার।

আসামিদের আপিল এবং সরকারপক্ষের ডেথ রেফারেন্স শুনানি শেষে উপরোক্ত আদেশ দেন আদালত। আসামিপক্ষের আপিল শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ফজলুল হক ফরিদ, শেখ আলী আহমেদ খোকন, মো.আব্দুর রাজ্জাক। সরকারপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান।

প্রসঙ্গত: ১৯৯৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে ভিটাবাড়িয়া গ্রামের জালাল সরদারের ছেলে কলেজছাত্র বাদল সরদারকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় নিহত ব্যক্তির বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন। এ মামলার বিচার চলাকালে ২০০৩ সালে আসামিপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট মামলাটি পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে ঝালকাঠি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে স্থানান্তরের আদেশ দেন।
বিচার শেষে ২০১৫ সালের ১ জুলাই ঝালকাঠি জেলা ও দায়রা জজ আদালত মামলার রায় দেন। রায়ে ভান্ডারিয়া উপজেলা উত্তর ভিটাবাড়িয়া গ্রামের শহীদ শিকদার, দুলাল শিকদার, বাদল শিকদার, নিজাম শিকদারকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়। এ ছাড়া ভিটাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার সালাম সরদার, হারুন শিকদার ও মিনু শিকদারকে দেয়া হয় যাবজ্জীবন কারাদন্ড। আসামিদের আপিল এবং সরকারপক্ষের ডেথ রেফারেন্স শুনানি শেষে উপরোক্ত আদেশ দেন আদালত।

এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট ফজলুল হক খান ফরিদ বলেন, হত্যাকান্ডের সময় এই মামলার এক আসামি অন্য মামলায় জেলে ছিলেন। কিন্তু একজন সাক্ষী জেলে থাকা ওই আসামির বিরুদ্ধেও সাক্ষ্য দেন। এরকম কয়েকটি বিষয় বিবেচনায় নিয়েই হাইকোর্ট খালাসের রায় দিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন